তরুণীকে লাথি, কিল, ঘুষি, রাজনাথের নির্দেশের পর গ্রেফতার দিল্লির পুলিস কর্মীর ছেলে

অভিযুক্ত রোহিত তোমরকে একদিনের পুলিস হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

Updated: Sep 14, 2018, 06:15 PM IST
তরুণীকে লাথি, কিল, ঘুষি, রাজনাথের নির্দেশের পর গ্রেফতার দিল্লির পুলিস কর্মীর ছেলে

নিজস্ব প্রতিবেদন: তরুণীর উপরে চলছে বেধড়ক কিল, ঘুষি। চুলের মুটি ধরে টানছেন এক যুবক। দিল্লির একটি অফিসের এমন একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর দিল্লি পুলিসকে পদক্ষেপ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। তাঁর নির্দেশের পরই গ্রেফতার করা হল অভিযুক্ত রোহিত তোমরকে। 

অভিযুক্ত রোহিত তোমর দিল্লি পুলিসের সাব-ইনস্পেক্টরের ছেলে। তাঁকে একদিনের পুলিস হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ভাইরাল ভিডিওয় দেখা গিয়েছে, এক তরুণীকে চুল ধরে টানছেন রোহিত। মারছেন কিল, ঘুষি। এমনতি তরুণীকে বার কয়েক লাথিও মারেন। সেই সময় ভিডিও তুলছিলেন রোহিতের এক বন্ধু। তিনি রোহিতকে থামতে অনুরোধ করেন। তবে তরুণীকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেননি তিনি। বরং ঘটনা ক্যামেরাবন্দি করেছেন। 

গত ২ সেপ্টেম্বর দিল্লির উত্তমনগরে একটি বেসরকারি সংস্থার অফিসে ভিডিওটি তোলা হয়েছিল। এরপর তা ভাইরাল হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ওঠে প্রতিবাদের ঝড়। 

ভিডিওটি দেখার পর দিল্লি পুলিস কমিশনের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। উপযুক্ত ব্যবস্থাগ্রহণের নির্দেশ দেন। চাপের মুখে রোহিত তোমরকে গ্রেফতার করে পুুলিস।  

বুধবার পুলিসের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন রোহিতের বান্ধবী। দুজনের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। পুলিসে তিনি জানান, অভিযুক্ত তাঁর বাগদত্তা। ভিডিওটি দেখার পর বিয়ে ভেঙে দিয়েছেন তিনি। অফিসের সহকর্মীকে রোহিত মারধর করেছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি। বৃহস্পতিবার রোহিত তোমরের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন ভিডিওয় নির্যাতনের শিকার তরুণী। লিখিত বিবৃতিতে তিনি জানান, নিজের বন্ধুর অফিসে ডেকে তাঁকে ধর্ষণ করে রোহিত তোমর। পুলিসে যাওয়ার কথা জানালে মারধর শুরু করে সে। 

আরও পড়ুন- মালিয়াকে দেশ ছেড়ে পালাতে সাহায্য করেছিল সিবিআই, জানতেন মোদী, অভিযোগ রাহুলের