মালিয়াকে দেশ ছেড়ে পালাতে সাহায্য করেছিল সিবিআই, জানতেন মোদী, অভিযোগ রাহুলের

গোপনে বিজয় মালিয়াকে দেশছাড়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছিল সিবিআই, টুইটে দাবি কংগ্রেস সভাপতির। 

Updated: Sep 14, 2018, 05:30 PM IST
মালিয়াকে দেশ ছেড়ে পালাতে সাহায্য করেছিল সিবিআই, জানতেন মোদী, অভিযোগ রাহুলের

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিজয় মালিয়াকে দেশ ছেড়ে পালাতে সাহায্য করেছিল সিবিআই। শুক্রবার এমন অভিযোগ করলেন রাহুল গান্ধী। তাঁর দাবি, 'আটক' নোটিস বদলে শুধুমাত্র 'অবগত' করেছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

টুইটারে রাহুল গান্ধী লিখেছেন, গোপনে বিজয় মালিয়াকে দেশছাড়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছিল সিবিআই। 'আটক' নোটিস বদলে 'অবগত' করার নোটিস পাঠানো হয়েছিল। সরাসরি প্রধানমন্ত্রীকে রিপোর্ট করে সিবিআই। এই ধরনের হাইপ্রোফাইল ও বিতর্কিত মামলায় প্রধানমন্ত্রী অনুমতি না নিয়ে লুকআউট নোটিস বদলে দিতে পারে না সিবিআই। 

বৃহস্পতিবার সিবিআই জানায়, ২০১৫ সালের মালিয়ার বিরুদ্ধে লুক আউট সার্কুলার আটক থেকে বদলে শুধুমাত্র অবগত করার নোটিস পাঠানো হয়েছিল। এটা রায়ের ভুল ছিল। ২০১৫ সালে ১২ অক্টোবর প্রথম নোটিস পাঠানোর আগেই দেশ ছেড়েছিলেন মালিয়া। 

ব্যুরো অব ইমিগ্রেশন সিবিআই-এর কাছে জানতে চেয়েছিল, মালিয়াকে কি আটক করা হবে। সিবিআই তখন জানিয়েছিল, বিজয় মালিয়া সাংসদ তাই গ্রেফতার বা আটক করার দরকার নেই। তাঁর বিরুদ্ধে কোনও পরোয়ানা নেই। তাঁর গতিবিধির ব্যাপারেই জানতে চেয়েছিল সিবিআই। এরইসঙ্গে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার দাবি, তদন্ত তখন প্রাথমিক স্তরে ছিল। ৯০০ কোটি টাকার ঋণ খেলাপির মামলায় আইডিবিআই-এর কাছ থেকে নথি সংগ্রহ করছিল সিবিআই। 

মালিয়ার গতিবিধি জানতে ২০১৫ সালে নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে বিমান বন্দর কর্তৃপক্ষকে নোটিস পাঠায় সিবিআই। আগের সার্কুলারে অবশ্য দেশ ছাড়ার চেষ্টা করলে আটক করার কথা বলা ছিল।   

দিন কয়েক আগে লন্ডনে বিজয় মালিয়া জানান, দেশ ছাড়ার আগে অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির সঙ্গে বৈঠক হয়েছিল তাঁর। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই বিবৃতি জারি করে জেটলি জানান, মালিয়ার বক্তব্য তথ্যগতভাবে ভুল। ২০১৪ সাল থেকে কোনও দিন বিজয় মালিয়ার সঙ্গে কোনও আনুষ্ঠানিক বৈঠক করেননি তিনি। এরইসঙ্গে জেটলি মনে করিয়ে দেন,''রাজ্যসভার সাংসদ হওয়ার অবৈধ সুবিধা নিয়ে দেখা করেছিলেন বিজয় মালিয়া। রাজ্যসভা থেকে নিজের কক্ষে যাচ্ছিলাম। তখনই পিছন থেকে তাড়া করে ধরেন বিজয় মালিয়া। বলেন, আমি ব্যাঙ্কগুলির সঙ্গে রফা করতে চাই। মালিয়া এর আগেও যে এরকম প্রস্তাব দিয়ে শেষ পর্যন্ত শর্ত পালন করেননি তা আমার জানা ছিল। তাই মালিয়াকে বলি, আমাকে এসব বলে লাভ নেই যা বলার ব্যাঙ্ককে বলুন। আনুষ্ঠানিক বৈঠক যে হয়নি তা মেনে নিয়েছেন বিজয় মালিয়া। তিনি জানান, অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে সংসদে দেখা হয়েছিল। তাঁকে জানিয়েছিলেন লন্ডন রওনা হচ্ছেন। তবে ব্যাংকগুলির সঙ্গে সমঝোতায় আসতে চান।

বুধবার মালিয়ার সঙ্গে জেটলির যোগ নিয়ে তোপ দাগেন রাহুল গান্ধী। দাবি করেন, দীর্ঘক্ষণ জেটলি-মালিয়ার কথা হয়েছে। এদিন সরাসরি প্রধানমন্ত্রীকে জড়ালেন সনিয়া তনয়।

আরও পড়ুন- ফোনে রাহুল বলেছিলেন, মালিয়া সত্ ব্যক্তি, ছেড়ে দিন, বিস্ফোরক রিজভি

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close