ধৃত নাবিকদের ফিরিয়ে দিতে বাধ্য ইতালি, সুর চড়াল ভারত

ইতালির প্রত্যাখানের বিরুদ্ধে সুর চড়ালো ভারত। আজ ভারতের বিদেশ সচিব মাথাই জানালেন ধৃত দুই ইতালীয় নাবিককে ভারতের হাতে তুলে দিতে বাধ্য ইতালি। এর আগে আজ বিকেলেই ধৃত দুই ইতালীয়কে ভারতে ফেরত না পাঠানোর ইতালির সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। তিনি জানিয়েছিলেন  ইতালির সরকারের এই প্রত্যাখান 'অগ্রহণযোগ্য'।

Updated: Mar 12, 2013, 11:32 AM IST

ইতালির প্রত্যাখানের বিরুদ্ধে সুর চড়ালো ভারত। আজ ভারতের বিদেশ সচিব মাথাই জানালেন ধৃত দুই ইতালীয় নাবিককে ভারতের হাতে তুলে দিতে বাধ্য ইতালি। 
এর আগে আজ বিকেলেই ধৃত দুই ইতালীয়কে ভারতে ফেরত না পাঠানোর ইতালির সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। তিনি জানিয়েছিলেন  ইতালির সরকারের এই প্রত্যাখান 'অগ্রহণযোগ্য'।
বাম এমপিদের প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন তিনি বিদেশমন্ত্রী সলমন খুরশিদকে এই বিষয়টি নিয়ে ইতালির সঙ্গে আলোচনার নির্দেশ দিয়েছেন।
ইউপিএ সরকারের ওপর চাপ বাড়িয়ে কথা রাখল না ইতালি। কেরল উপত্যাকায় দুই ভারতীয় মৎস্যজীবীর হত্যা ঘটনায় অভিযুক্ত দুই ইতালীয় নাবিকে ভারতে ফেরত পাঠাবে না বলে জানিয়েছে সে দেশের সরকার। ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রকের তরফে জারি করা এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, "ইতালি সরকার বারবার আন্তর্জাতিক নিয়ম ভেঙেছে।"
কয়েকদিন আগে অভিযুক্ত দুই নাবিক মাসিমিলিয়ানো লাতরি ও সালভাতরে গিরোনিকে ভোট দিতে দেশে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রীর দফতরের সঙ্গে আলোচনা করে ভারতে ফিরিয়ে দেওয়ার শর্তেই তাঁদেরকে ইতালি পাটানো হয়েছিল। এই সমস্যার সমাধানে ইতালীয় সরকারও ভারতের সঙ্গে সহযোগিতা করছে না বলে জানিয়েছে বিদেশ মন্ত্রক। 
ওই দুই নাবিকদের ইতালি যাওয়ার ছাড়পত্র দেন বিদেশমন্ত্রী সলমন খুরশিদ। এই প্রসঙ্গে বিদেশমন্ত্রী জানান, "ইতালির তরফে পাঠানো চিঠি পড়ে, পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।" সে দেশের সরকারের মত যা জেনে কোনও মন্তব্য করতে রাজি নন খুরশিদ।