আজও আম্মাই প্রধান, পদচ্যুত শশীকলা

Updated: Sep 12, 2017, 04:32 PM IST
আজও আম্মাই প্রধান, পদচ্যুত শশীকলা
আম্মা চিরন্তন, শশী ফিকে

ওয়েব ডেস্ক: অল ইন্ডিয়া অন্না দ্রাবিঢ় মুন্নেত্রা কাজাগম অর্থাত্ এআইএডিএমকের চিরন্তন সাধারণ সম্পাদকের পদ অলঙ্কৃত করে থাকবেন ‘আম্মা’ জয়ললিতা, জানিয়ে দিল জোড়া পাতা প্রতীকের ‘সংযুক্ত’ এআইএডিএমকে নেতৃত্ব। পাশাপাশি, শশীকলা ও তাঁর ভাইপো টিটিভি দিনাকরণের দখলে থাকা দলের শীর্ষ পদ দুটিও কেড়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হল আজকের বৈঠকে।

আরও পড়ুন- 'পাকিস্তানকে গুলি চালানো বন্ধ করতেই হবে', কড়া হুঁশিয়ারি রাজনাথের

উল্লেখ্য, দিনাকরণ শিবিরের এক বিধায়ক এদিনের জেনারেল কাউন্সিলের বৈঠক যাতে স্থগিত করা হয় সেই দাবি নিয়ে মাদ্রাজ হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়। আদালত সেই আবেদন খারিজ করে দিয়ে জানায়, বৈঠক করতে কোনও বাধা নেই কিন্তু বৈঠকে গৃহীত সিদ্ধান্ত অবশ্যই আদালতের বিচার্য।

আরও পড়ুন- রামচন্দ্রকে নোটিস পাঠাল বিজেপি

প্রসঙ্গত, পালানি-পন্নির শিবিরের সংযুক্তির ক্ষেত্রে পন্নিরসলভামের অন্যতম শর্ত ছিল দলের শীর্ষপদ থেকে শশীকলা ও দিনাকরণের অপসারণ। ইতিমধ্যেই, সরকারি ঘোষণার মাধ্যমে দুই শিবিরের সংযুক্তি ঘটে গিয়েছে। রফা সূত্র অনুযায়ী, সরকারের উপমুখ্যমন্ত্রী ও দলের ‘স্টিয়ারিং কমিটি’র প্রধান হয়েছেন পন্নিরসেলভাম। পাশাপাশি, জয়ললিতার মৃত্যু তদন্তের সিদ্ধান্তও ঘোষণা করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী পালানিস্বামী। 

শশীকলার প্রতিনিধি তথা তারই ঠিক করে যাওয়া দলের দু’নম্বর টিটিভি দিনাকরণ প্রত্যাশিতভাবেই এই রফাসূত্র অনুসারে দুই শিবিরের সংযুক্তিকে মেনে নিতে পারেননি। দলের ১৯ বিধায়ককে সঙ্গে নিয়ে পালানি সরকারের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করেছেন তিনি। রাজ্যপাল সি বিদ্যাসাগর রাও-এর কাছে গিয়ে বিধানসভায় সংখ্যা গরিষ্ঠতা প্রমাণের দাবিও জানিয়ে আসেন বিদ্রোহী বিধায়করা। দিনাকরণ শিবিরের সঙ্গে সরকার বিরোধিতায় যুক্ত হয় বিরোধী ডিএমকের নেতা তথা করুণানিধি পুত্র এমকে স্ট্যালিনও। গত রবিবার রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে স্ট্যালিনের দাবি, তাঁদের পক্ষে (দিনাকরণ শিবিরকে সঙ্গে নিয়ে) রয়েছে ১১৯ বিধায়কের সমর্থন। কিন্তু এরই মধ্যে আবার পালানি-পন্নির শিবর থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় যে, দিনাকরণের দাবি করা ১৯ বিদ্রোহী বিধায়কের মধ্যে ৯ জনের সমর্থন আবার আদায় করে নিয়েছে সংযুক্ত এআইএডিএমকে। উল্লেখ্য, ২৩৪ আসন বিশিষ্ট তামিলনাড়ু বিধানসভায় এখন ম্যাজিক ফিগার ১১৮।