নিজেকে দক্ষিণ বিরোধী লবির শিকার বলে দাবি শ্রীনির

Last Updated: Saturday, June 8, 2013 - 11:07

এতদিন যাঁর নামের সঙ্গে এক নিঃশ্বাসে স্বজনপোষন, লবিইং, গোষ্ঠীতন্ত্রের মত শব্দ গুলো উচ্চারিত হত, সেই তিনিই কিনা নিজেকে লবির শিকার বলে দাবি করলেন! বিসিসিআই-এর একদা দোর্ডণ্ড প্রতাপ সভাপতি এন শ্রীনিবাসন ফিক্সিং কেলেঙ্কারির জেরে কুর্সি হারাবার কিছুদিনের মধ্যেই এমনই অদ্ভুত ঘোষণা করলেন। দাবি করলেন বিসিসিআই-এর অভ্যন্তরে দক্ষিণ বিরোধী লবির ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি।
একটি টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকারে শ্রীনিবাসন জানান ``এটা এখন পরিষ্কার পুরো বিষয়টিই দক্ষিণ ভারতীয়দের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কিছুই নয়।``
অনেকে মনে করছেন বিসিসিআইয়ের অভ্যন্তরে একঘরে হয়ে যাওয়ার পর সেপ্টেমবরে বোর্ডের নিরবাচনের আগে দক্ষিণ সেন্টিমেন্ট তাস খেলতে চাইছেন কুর্সিচ্যুত শ্রীনিবাসন।
খাতায় কলমে চেন্নাই সুপার কিংসের সিইও তথা শ্রীনির জামাই গুরুনাথ মেইয়াপ্পন আইপিএলে স্পট ফিক্সিং কান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে বেশ কিছুদিন শ্রীঘরের কাটিয়ে এসেছেন। বর্তমানে গুরু শর্তাধীন জামিনে মুক্ত। কিন্তু তাঁর কেলেঙ্কারির জেরে বাধ্য হয়েই গদিচ্যুত হতে হয়েছে শ্বশুর শ্রীনিকে।
বিসিসিআই সভাপতি থাকাকালীন শ্রীনি জামাইয়ের সপক্ষে মুখ না খোলেননি একবারও। কিন্তু গদি হারাবার পর জামাইয়ের হয়ে গলা ফাটালেন। জানালেন গুরুর উপর তাঁর পূর্ণ আস্থা আছে। দাবি করলেন তাঁর জামাইয়ের বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগই ভুল প্রমাণিত হবে।



First Published: Saturday, June 8, 2013 - 11:07


comments powered by Disqus