প্রকাশ্যে সকলের নাকের ডগাতেই বারাসতের জয়া সিটি মলে চলত এই কাজ!

 হল একের পর এক পর্দা ফাঁস।

Updated: Jun 13, 2018, 02:25 PM IST
প্রকাশ্যে সকলের নাকের ডগাতেই বারাসতের জয়া সিটি মলে চলত এই কাজ!

নিজস্ব প্রতিবেদন:  এ যেন কেঁচো খুঁজতে বেরিয়ে পড়ল কেউটে। লাইসেন্স ছাড়াই রেস্তোরাঁ চালানোর অভিযোগ ছিল। তার তল্লাশি করতে গিয়ে দেখা গেল, সেই রেস্তোরাঁতে বিকোচ্ছিল পচা খাবার। বারাসতের মলে পচা মোমোর সন্ধান পেল পুরসভা। বুধবার দুপুরে বারাসতের জয়া সিটি মলে অভিযান চালায় পুরসভা ও দমকল আধিকারিকরা। তাতেই হল একের পর এক পর্দা ফাঁস।

আরও পড়ুন: এবার কমবে কলকাতা এয়ারপোর্টের পথে যানজট, বড় সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের

গত রবিবার জয়া সিটি মলের একটি মোমো কাউন্টারে আগুন লাগে। সেখান থেকেই আসল ঘটনার সূত্রপাত।  দমকল খবর পায়, লাইসেন্স ছাড়াই চলছিল বারাসতের জয়া সিটি মলের ওই মোমো কাউন্টার। বুধবার দুপুরে সেখানে অভিযান চালান দমকল আধিকারিকরা। সঙ্গে যান পুরকর্তারাও। খতিয়ে দেখার সময়েই দেখা যায়, ওই মোমো কাউন্টারের দমকলের লাউসেন্স নেই।

আরও পড়ুন: দিঘাতে আজ সকালে যে ভয়ানক ঘটনা ঘটল তা আগে কখনও ঘটেনি, হতবাক প্রশাসনও

এরপর মলের দোতলায় একটি রেস্তোরাঁয় অভিযান চালান পুরকর্তারা। খাবারের নমুনা সংগ্রহ করে দেখা যায়, তা অত্যন্ত নিম্নমানের ও পচা। এরপর ওই রেস্তোরাঁটিও বন্ধ করে দেন পুরকর্তারা। ওই মলে যেকটি দোকান রয়েছে, তার বেশিরভাগই ট্রেড লাইসেন্স ও যথাযথ নথি দেখাতে পারেনি। পুরকর্তারা তাঁদের সব নথি জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। তবে এতদিন পুরসভার নাকের ডগাতেই কীভাবে একটি মলে এসব চলছিল, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।