কাশ্মীর থেকে কেরল, পশ্চিমবঙ্গ থেকে মহারাষ্ট্র, কোন রাজ্যে কার সরকার

কাশ্মীর থেকে কেরল, পশ্চিমবঙ্গ থেকে মহারাষ্ট্র, কোন রাজ্যে কার সরকার

রাত পোহালেই জোড়া উত্‍সব। একদিকে, কেন্দ্রে 'আচ্ছে দিন' সরকারের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি। অন্যদিকে, পশ্চিমবঙ্গে দ্বিতীয় বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে চলেছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবারের বিধানসভা নির্বাচনের আগে প্রচারে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেছিলেন, ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে কেন্দ্রে নির্ণায়ক ভূমিকা নেবে তৃণমূল কংগ্রেস। অন্যদিকে, কংগ্রেস ও বিজেপি একে অপরের বিরুদ্ধে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে বলে দাবি করেছে।

জানেন কী, এই মুহূর্তে দেশের কোন কোন রাজ্য কংগ্রেসের দখলে? জানেন কী, এই মুহূর্তে দেশের কোন কোন রাজ্য কংগ্রেসের দখলে?

এ কোন পথে চলেছে কংগ্রেস? স্বাধীনতার পর এই প্রথম দেশে কংগ্রেসের হাল এতটা খারাপ। অন্তত রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা তাই বলেছেন। ভারেতর ২৯টি রাজ্যের মধ্যে মাত্র ৫টি রাজ্যে এককভাবে কংগ্রেস সরকার রয়েছে। আর বাকি এক রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে কংগ্রেস নেতৃত্বধীন জোট সরকার রাজত্ব করছে।

ভোটের মুখে সরকারি মেডিক্যাল কলেজে ছাত্র ভর্তির ছাড়পত্রের অস্বস্তিতে রাজ্য ভোটের মুখে সরকারি মেডিক্যাল কলেজে ছাত্র ভর্তির ছাড়পত্রের অস্বস্তিতে রাজ্য

বছর গড়িয়ে গেলেও শর্ত পূরণ করতে পারেনি রাজ্য সরকার। প্রয়োজনীয় পরিকাঠামোয় রয়ে গেছে বিস্তর গলদ। MCI-এর পরীক্ষায় ডাহা ফেল রাজ্যের ৮টি সরকারি কলেজ। মিলল না MBBS-এর সাড়ে ৫০০ আসনে ছাত্র ভর্তির ছাড়পত্র। এর জেরে ভোটের মুখে অস্বস্তিতে রাজ্য।

উত্তরাখণ্ডে জারি হয়ে গেল রাষ্ট্রপতি শাসন উত্তরাখণ্ডে জারি হয়ে গেল রাষ্ট্রপতি শাসন

অরুণাচলের পর এবার পালা উত্তরাখণ্ডের। উত্তরের এই রাজ্যে জারি হয়ে গেল রাষ্ট্রপতি শাসন। মূলত রাজ্যপালের রিপোর্টের ভিত্তিতেই রাষ্ট্রপতি শাসনের সুপারিশে সিলমোহর দিলেন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি।

ভোটে জঙ্গলমহল থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনী সরানোয় আপত্তি রাজ্যের ভোটে জঙ্গলমহল থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনী সরানোয় আপত্তি রাজ্যের

বিধানসভা ভোটে জঙ্গলমহল থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনী সরানো সম্ভব নয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে একথা জানিয়ে দিল রাজ্য সরকার। রাজ্যের যুক্তি,  ঝাড়খণ্ড সীমান্ত দিয়ে মাঝ্যেমধ্যেই এরাজ্যে যাওয়া আসা করছে মাওবাদীরা। এই অবস্থায় বাহিনী সরালে জঙ্গলমহলের শান্তি বিঘ্নিত হতে পারে।

রাজ্যের সমস্ত বিদ্যালয়ে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া বাধ্যতামূলক করল রাজ্য সরকার রাজ্যের সমস্ত বিদ্যালয়ে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া বাধ্যতামূলক করল রাজ্য সরকার

রাজ্যের সমস্ত স্কুলে এবার স্কুল শুরুর সময় জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া বাধ্যতামূলক। এমনই নির্দেশ দিল রাজ্য সরকার। রাজ্য সরকারের নির্দেশের ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই নির্দেশিকা জারি করেছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

জলকর বসানোয় রাজি নয় রাজ্য সরকার জলকর বসানোয় রাজি নয় রাজ্য সরকার

ভোট বড় বালাই। তাই কেন্দ্র প্রকল্পের বরাদ্দ টাকা কাটলেও সাধারণ মানুষের ওপর জলকর বসাতে রাজি নয় রাজ্য সরকার। পরিবর্তে ব্যবসায়ীদের কাছে জল বিক্রি করে ঘুরপথে সমাধানের রাস্তায় হাঁটতে চলেছে রাজ্য। তবে জলকর না নিলেও অপচয় রুখতে গৃহস্থ বাড়িতে মিটার বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুর ও নগরোন্নয়ন দফতর।

পুজোর বাকি মাত্র ৫দিন, তবু বোনাস/অগ্রিম পাননি রাজ্য সরকারি কর্মীদের একাংশ পুজোর বাকি মাত্র ৫দিন, তবু বোনাস/অগ্রিম পাননি রাজ্য সরকারি কর্মীদের একাংশ

পুজোর বাকি মাত্র ৫দিন। অথচ, এখনও বোনাস বা অগ্রিম পাননি রাজ্য সরকারি কর্মীদের একাংশ। এক্সগ্রাশিয়া পাননি অবসরপ্রাপ্ত কর্মীরাও। দেড়মাস আগে অর্থমন্ত্রীর ঘোষণার পরও কেন মিলল না বোনাস? ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন কর্মীরা।

অব্যাহত দুয়োরানি দশা, কেন্দ্রীয় সরাকারি কর্মীদের থেকে ৬১% কম ডিএ পাচ্ছেন রাজ্যের পরিবহণ কর্মীরা অব্যাহত দুয়োরানি দশা, কেন্দ্রীয় সরাকারি কর্মীদের থেকে ৬১% কম ডিএ পাচ্ছেন রাজ্যের পরিবহণ কর্মীরা

কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের থেকে  রাজ্য সরকারি কর্মীরা চুয়ান্ন শতাংশ ডিএ কম পাচ্ছেন। সরকারি পরিবহণ কর্মীদের অবস্থা আরও খারাপ। তাঁদের ক্ষেত্রে ফারাকটা একষট্টি শতাংশ। জানুয়ারি মাসে রাজ্য সরকার সাত শতাংশ মহার্ঘ ভাতা ঘোষণা করলেও সরকারি পরিবহণ কর্মীদের ভাগ্যে তা জোটেনি। মন্ত্রীমশাই জেল হেফাজতে। কবে ছাড়া পাবেন কেউ জানে না। সিবিআইয়ের খাঁড়া মাথায় নিয়ে পিজি-র কেবিনে বড্ড মন খারাপ। তবে, তার চেয়েও খারাপ অবস্থা রাজ্যের সরকারি পরিবহণ কর্মীদের। তাঁদের কথা ভাবার কেউ নেই । মন্ত্রী থেকেও নেই। তাই, নড়ছে না ফাইল। মিলছে না ডিএ।

মহিলাদের উন্নয়নে জেন্ডার বাজেট সিস্টেম নিয়ে আসছে রাজ্য মহিলাদের উন্নয়নে জেন্ডার বাজেট সিস্টেম নিয়ে আসছে রাজ্য

চাকরি, শিক্ষাসহ সবক্ষেত্রেই রাজ্যে পিছিয়ে রয়েছে মেয়েরা। তাঁদের উন্নয়নে এবার তাই জেন্ডার বাজেট সিস্টেম চালু করল রাজ্য সরকার। আপাতত ২১টি দফতরে চালু হচ্ছে এই সিস্টেম। রাজ্যের দাবি, এমন ব্যবস্থা

সারদা শিক্ষা নিয়ে র‌্যামেল গ্রুপের বিরুদ্ধে তদন্তে রাজ্য সরকার সারদা শিক্ষা নিয়ে র‌্যামেল গ্রুপের বিরুদ্ধে তদন্তে রাজ্য সরকার

এবার নজরে বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থা র‍্যামেল গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ। বাজার থেকে বেআইনিভাবে টাকা তোলার অভিযোগে এই সংস্থার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে রাজ্য সরকার। প্রশ্ন উঠছে সারদা থেকে শিক্ষা নিয়েই কি র

কেন্দ্রের সঙ্গে পাল্লা দিতে এবার বিনামূল্যে পাঠ্য বই বিতরণ করতে চলেছে শিক্ষা দফতর কেন্দ্রের সঙ্গে পাল্লা দিতে এবার বিনামূল্যে পাঠ্য বই বিতরণ করতে চলেছে শিক্ষা দফতর

আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে  রাজ্যের সমস্ত সরকারি স্কুলে নবম শ্রেণিতে বিনামূল্যে পাঠ্যবই দেবে রাজ্য। মধ্যশিক্ষা পর্ষদ প্রকাশিত সব পাঠ্যবই ছাত্রছাত্রীদের দেওয়া হবে বিনামূল্যে। গোটা দেশে অষ্টম শ্রেণি পর্যন

আলু সঙ্কটের সুলুকসন্ধান আলু সঙ্কটের সুলুকসন্ধান

রাজ্যে আলুর উতপাদন হয় পঁচানব্বই মেট্রিক টন। আলুর চাহিদা ষাট মেট্রিক টন। তাহলে কেন এই আলু সঙ্কট? বেশি দামে ভিন রাজ্যে আলু বিক্রীই কী একমাত্র কারণ? কি বলছে সরকার? আলু সঙ্কটের সুলুকসন্ধানে চব্বিশ ঘণ্টা।

 রাষ্ট্রপতি পুরস্কারের জন্য দময়ন্তী সেনের নাম সুপারিশ রাজ্যের রাষ্ট্রপতি পুরস্কারের জন্য দময়ন্তী সেনের নাম সুপারিশ রাজ্যের

রাষ্ট্রপতি পুরস্কারের জন্য দময়ন্তী সেনের নাম সুপারিশ করল রাজ্য সরকার। মেরিটোরিয়াস সার্ভিসের জন্য  রাজ্যের তরফে পাঠানো হয়েছে মোট আটান্ন জনের নাম।  ওই তালিকায় রয়েছে দময়ন্তী সেনের নামও। নিয়মানুযায়ী রাষ্ট্রপতি পুরস্কারের জন্য প্রত্যেক বছর ছাব্বিশে জানুয়ারির আগে  তিরিশ জন এবং  পনেরোই অগাস্টের আগে তিরিশ জন পুলিস অফিসারের নাম  রাষ্ট্রপতির কাছে রাজ্যের  তরফে  সুপারিশ করা হয়।  

কেএলওর সঙ্গে কেপিপির যোগ প্রমাণে মরিয়া সরকার

ষড়যন্ত্র করেই কেএলওর সঙ্গে কেপিপির যোগসাজশ প্রমাণ করতে চাইছে রাজ্য সরকার। শিলিগুড়িতে সাংবাদিক বৈঠক করে আজ এই অভিযোগ করলেন কেপিপি সভাপতি অতুল রায়। বিস্ফোরণকাণ্ডে কেপিপি সদস্যদের গ্রেফতারি নিয়ে উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী গৌতম দেবকে কাঠগড়ায় তোলেন কেপিপি সভাপতি। মঙ্গলবারও জলপাইগুড়ি বিস্ফোরণকাণ্ডে আরও এক কেপিপি সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিস।জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিস।

রাজ্য-কমিশন চিঠি পাল্টা চিঠি অব্যাহত

ডিএম, এসপিদের বদলির এক্তিয়ার নিয়ে রাজ্য-কমিশন চিঠি পাল্টা চিঠি অব্যাহত। নির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি জারির পর বদলি সংক্রান্ত যাবতীয় ক্ষমতা থাকে নির্বাচন কমিশনের হাতে। বিষয়টি জানিয়ে আজ বিকেলেই রাজ্যকে পাল্টা চিঠি পাঠাল কমিশন। এদিকে এবারই প্রথম পঞ্চায়েত নির্বাচনে বুথ সংক্রান্ত  সমস্যা এসএমএসের  মাধ্যমে  জানাতে পারবেন পর্যবেক্ষকরা। দ্বিতীয় দফায় ১২০ জন পর্যবেক্ষকদের সঙ্গে আজ বৈঠক করেন নির্বাচন কমিশনারের তরফে এই ঘোষণা করা হয়।