পাকিস্তান সফর ইতিবাচক, জানালেন কৃষ্ণা

Last Updated: Sunday, September 9, 2012 - 23:24

পাকিস্তান সফর ফলপ্রসূ হয়েছে বলে জানালেন বিদেশমন্ত্রী এস এম কৃষ্ণা। রবিবার ইসলামাবাদ থেকে লাহোর যান তিনি। হাফিজ সইদকে বিচারের কাঠগড়ায় তোলার জন্য উদ্যোগ নিতে পাক পঞ্জাবের চিফ মিনিস্টার শাহবাজ শরিফকে অনুরোধ করেন বিদেশমন্ত্রী। পাকিস্তানে নির্বাচনের আগে পিএমএলএ নেতৃত্বের সঙ্গে তাঁর এই সাক্ষাত রাজনৈতিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।
ভিসা চুক্তি হয়েছে। কিন্তু, মুম্বই হামলায় দোষীদের শাস্তি দেওয়ার বিষয়ে সুনির্দিষ্ট প্রতিশ্রুতি মেলেনি। এই পরিস্থিতিতে রবিবার, পাক পঞ্জাবের গভর্নর লতিফ খোসা ও চিফ মিনিস্টার শাহবাজ শরিফের সঙ্গে দেখা করলেন বিদেশমন্ত্রী এস এম কৃষ্ণা। মুম্বই হামলার প্রধান ষড়যন্ত্রকারী জামাত উদ দাওয়া প্রধান হাফিজ সইদ পাক পঞ্জাবের বাসিন্দা। তাঁকে বিচারের কাঠগড়ায় তোলার জন্য উদ্যোগী হতে এদিন শাহবাজ শরিফকে অনুরোধ করেন বিদেশমন্ত্রী। আগামী বছর নির্বাচনে পাকিস্তানে ক্ষমতা বদলের সম্ভাবনা রয়েছে। সেক্ষেত্রে, পাকিস্তান মুসলিম লিগ নওয়াজের অন্যতম শীর্ষ নেতা শাহবাজ শরিফের সঙ্গে এস এম কৃষ্ণার সাক্ষাতের তাত্‍পর্য রয়েছে বলে মনে করছে কূটনৈতিক মহল। PMLN নেতৃত্বের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে তুলতেই তাঁর এই লাহোর সফর বলে মনে করা হচ্ছে। যদিও, কাশ্মীর, সার ক্রিক ও নদীর জলবণ্টন সমস্যা না মিটলে দুদেশের সম্পর্কের উন্নতি হওয়া কঠিন বলে জানিয়েছেন পাক পঞ্জাবের চিফ মিনিস্টার।
এদিন, লাহোরে বিদেশমন্ত্রী এস এম কৃষ্ণা বলেন, তাঁর পাকিস্তান সফরে ঘনিষ্ঠতর হয়েছে দুদেশের সম্পর্ক। তিনি জানান, ভারত সবসময়ই চায়, পাকিস্তানের শান্তি ও স্থায়িত্ব বজায় থাকুক। এদিন, লাহোরের ঐতিহাসিক মিনার-ই-পাকিস্তান, দাতা দরবার, গুরুদ্বার ডেরা সাহিব সহ বিভিন্ন জায়গা ঘুরে দেখেন তিনি। পাকিস্তানের জেলে বন্দি ভারতীয় নাগরিক সরবজিত সিংয়ের মুক্তির বিষয়টি নিয়ে শুক্রবার আসিফ আলি জারদারির সঙ্গে কথা বলেছিলেন এস এম কৃষ্ণা। এরপর, পাক অভ্যন্তরীণ মন্ত্রী রেহমান মালিক বলেন, সরবজিত সিংকে খুব শীঘ্রই মুক্তি দেওয়া হবে। এজন্য, এস এম কৃষ্ণা ও রেহমান মালিককে ধন্যবাদ জানিয়েছে সরবজিত সিংয়ের পরিবার।
প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের পাকিস্তান সফরের আগে সরবজিত সিং মুক্তি পেলে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের আরও উন্নতি হবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।
 



First Published: Sunday, September 9, 2012 - 23:26


comments powered by Disqus