নীরবতায় প্রতিবাদ

প্রতিবাদের এক অন্য ভাষা দেখাল বাংলাদেশ। নীরবতার মাধ্যমে যুদ্ধঅপরাধীদের ফাঁসি ও জামায়েত শিবিরকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানালেন অগণিত মানুষ। মঙ্গলবার বিকেল চারটে থেকে রাজধানী ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে তিন মিনিট নিরবতা পালন করেন বহু মানুষ। তবে শান্তিকামী এই আন্দোলনে পাশাপাশি হিংসারও সক্ষী থাকল মঙ্গলবারের ঢাকা। জামায়েতে ইসলামির পাল্টা মিছিলে অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে ঢাকার বিভিন্ন এলাকা।

Updated: Feb 13, 2013, 06:32 PM IST

প্রতিবাদের এক অন্য ভাষা দেখাল বাংলাদেশ। নীরবতার মাধ্যমে যুদ্ধঅপরাধীদের ফাঁসি ও জামায়েত শিবিরকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানালেন অগণিত মানুষ। মঙ্গলবার বিকেল চারটে থেকে রাজধানী ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে তিন মিনিট নিরবতা পালন করেন বহু মানুষ। তবে শান্তিকামী এই আন্দোলনে পাশাপাশি হিংসারও সক্ষী থাকল মঙ্গলবারের ঢাকা। জামায়েতে ইসলামির পাল্টা মিছিলে অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে ঢাকার বিভিন্ন এলাকা।
মঙ্গলবার বিকেল চারটে। নীরবতা ছিল প্রতিবাদের ভাষা। যুদ্ধ অপরাধীদের ফাঁসি ও  জামাতে শিবিরকে নিষিদ্ধ করার দাবিতে এই কর্মসূচীর ডাক দিয়েছিল শাহবাগের আন্দোলনকারীরা। মঙ্গলবার বেলা চারটে বাজতেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ তিন মিনিট নিরবতা পালন করে এই আন্দোলনে নিজেদের সমর্থন জানান। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, সচিবালয় সর্বত্রই তিন মিনিট নিরবতা পালিত হয়।
গত পাঁচই ফেব্রুয়ারি মানবতাবিরোধী অপরাধে জামাতের নেতা আব্দুল কাদের মোল্লাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় আদালত। এই রায় প্রত্যাখান করে আন্দোলনে নামে বাংলাদেশের যুব সমাজ। অন্যদিকে মঙ্গলবার ঢাকার রাজপথে মিছিল করে জামাতে ইসলামি। ট্রাইবুনাল ভেঙে দেওয়া ও আব্দুল কাদের মোল্লাসহ দোষীসাব্যস্ত নেতাদের মুক্তির দাবি জানায় তারা। এর পরেই পুলিসের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ বেধে যায়। অশান্ত হয়ে ওঠে মতিঝিল, করওয়ান বাজার এলাকা।
যদিও সে  সময় উল্টো ছবি ছিল শাহবাগের প্রজন্ম চত্বরে। স্তব্ধতার মিছিলে লাখ মানুষের উপস্থিতিতে আরও জোরালো হয়েছে প্রতিবাদ। বৃহস্পতিবার সন্ধে সাতটায় মোমবাতি জ্বালিয়ে ফের প্রতিবাদ জানাবেন আন্দোলনকারীরা।

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close