বেআইনি মদের ঠেকের প্রতিবাদ করায় খুন চিকিতসক

বেআইনি মদের ঠেকের প্রতিবাদ করায় এক চিকিত্সককে খুন করল দুষ্কৃতীরা। শ্বাসরোধ করে খুন করার পর দুষ্কৃতীরা মৃতদেহটি পুড়িয়ে ফেলায় চেষ্টা করে। নৃশংস এই ঘটনাটি ঘটেছে হুগলির মোমক মুন্সির গোডাউন এলাকায়। দোষীদের শাস্তির দাবিতে দীর্ঘক্ষণ মৃতদেহ আটকে বিক্ষোভ দেখান এলাকার মানুষ।

Updated: Feb 10, 2013, 11:52 PM IST

বেআইনি মদের ঠেকের প্রতিবাদ করায় এক চিকিত্সককে খুন করল দুষ্কৃতীরা। শ্বাসরোধ করে খুন করার পর দুষ্কৃতীরা মৃতদেহটি পুড়িয়ে ফেলায় চেষ্টা করে। নৃশংস এই ঘটনাটি ঘটেছে হুগলির মোমক মুন্সির গোডাউন এলাকায়। দোষীদের শাস্তির দাবিতে দীর্ঘক্ষণ মৃতদেহ আটকে বিক্ষোভ দেখান এলাকার মানুষ।
অন্যান্য দিনের মতো শনিবারও বাড়ি থেকে দশ কিলোমিটার দূরে মোমকপুরের চেম্বারে রোগী দেখতে গিয়েছিলেন চিকিত্সক সঞ্জয় চক্রবর্তী। রবিবার সকালে রাজহাটি মারওখানা সড়ক যোজনার কাছে রাস্তার ধারে তাঁর অর্ধদগ্ধ দেহ উদ্ধার হয়। দিন কয়েক আগেই এলাকার বেআইনি মদের ঠেকের বাড়বাড়ন্তের প্রতিবাদ করেছিলেন সঞ্জয় চক্রবর্তী। তার জেরেই দুষ্কৃতীরা চিকিত্সককে খুন করেছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।
বেআইনি মদের ঠেকই নয়, এলাকায় বেশকিছুদিন ধরেই দুষ্কৃতীদের দৌরাত্ম্য বাড়লেও, পুলিস কোনও ব্যবস্থাই নিচ্ছেনা বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে দীর্ঘক্ষণ মৃতদেহ আটকে বিক্ষোভ দেখান এলাকাবাসী। ভাঙচুর করা হয় বেশকয়েকটি মদের ভাঁটি। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে পৌঁছন পুলিসের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। উপযুক্ত তদন্তের আশ্বাস দেওয়ার পর বিক্ষোভ তুলে নেওয়া হয়।