পেসমেকারের লোভে খুশির খুন?

দু দু`বার পোস্টমর্টেম করেও খুশির মৃতদেহ থেকে মিলল না পেসমেকার। আটদিন নিখোঁজ থাকার পর লিলুয়ার একটি কুয়ো থেকে আজ উদ্ধার হয় চার বছরের শিশু খুশির মৃতদেহ। খুশির পরিবারের অনুমান পেসমেকারের লোভে কেউ খুশিকে অপহরণ করে খুন করে।  

Updated: Jan 11, 2013, 11:02 PM IST

দু দু`বার পোস্টমর্টেম করেও খুশির মৃতদেহ থেকে মিলল না পেসমেকার। আটদিন নিখোঁজ থাকার পর লিলুয়ার একটি কুয়ো থেকে আজ উদ্ধার হয় চার বছরের শিশু খুশির মৃতদেহ। খুশির পরিবারের অনুমান পেসমেকারের লোভে কেউ খুশিকে অপহরণ করে খুন করে।  
গত ৮ দিন ধরে নিখোঁজ ছিল লিলুয়ার দক্ষিণ চকপাড়ার বাসিন্দা রাজেশ কোশিয়ারির শিশুকণ্যা খুশি। এই নিয়ে থানায় অপহরণের অভিযোগ জানানোও হয়। শুক্রবার এলাকার একটি মুখ বন্ধ কুয়ো থেকে উদ্ধার হয় খুশির মৃতদেহ। খুশির পরিবারের অভিযোগ হৃদরোগের কারণে খুশির পেসমেকার ছিল। তার পক্ষে ওই কুয়ো পর্যন্ত আসা সম্ভব নয়। কেউ খুশিকে খুন করে কুয়োতে ফেলে দিয়েছে। কিন্তু দু-দুবার পোস্টমর্টেম করেও পেসমেকার মেলেনি খুশির দেহে।
 
তদন্তের স্বার্থে এখনও পরিবারের হাতে মৃতদেহ তুলে দেয়নি পুলিশ। খুন না অন্য কিছু এই বিষয়েও পুলিশের পক্ষ থেকে এখনও পর্যন্ত কিছু জানানো হয়নি। এ দিকে ঘটনাস্থলে যান রাজ্যের মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। কথা বলেন খুশির খুশির পরিবারের সঙ্গে। পুলিশকে দ্রুত তদন্তের নির্দেশও দেন মন্ত্রী।