পরীক্ষা দিতে যাওয়ার পথে শ্লীলতাহানি মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর, বাধা দিয়ে হেনস্থার শিকার মা

জীবনের প্রথম বড় পরীক্ষা দিতে যাওয়ার পথে ভয়াবহ অভিজ্ঞতার সাক্ষী হল এক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। বর্ধমানের ওই পরীক্ষার্থীর শ্লীলতাহানি করে চার দুষ্কৃতী। মেয়েকে বাঁচাতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের হাতে হেনস্থা হয়েছেন ওই ছাত্রীর মাও। অভিযুক্তকে চার দুষ্কৃতীকে আটক করেছে পুলিস।

Updated: Feb 24, 2014, 09:27 PM IST

জীবনের প্রথম বড় পরীক্ষা দিতে যাওয়ার পথে ভয়াবহ অভিজ্ঞতার সাক্ষী হল এক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। বর্ধমানের ওই পরীক্ষার্থীর শ্লীলতাহানি করে চার দুষ্কৃতী। মেয়েকে বাঁচাতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের হাতে হেনস্থা হয়েছেন ওই ছাত্রীর মাও। অভিযুক্তকে চার দুষ্কৃতীকে আটক করেছে পুলিস।

বর্ধমান শহরে মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে যাচ্ছিল ওই ছাত্রী। সঙ্গে ছিল তাঁর মা। ওই সময় তাঁদের পথ আটকায় চার দুষ্কৃতী। এরপরই ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করে তারা। দুষ্কৃতীদের হাত থেকে মেয়েকে বাঁচাতে গিয়ে হেনস্থার শিকার হন তাঁর মা। ঘটনার পরই বর্ধমান থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। তদন্তে নেমে শেখ কায়েম, শেখ রফিক, শেখ রানা এবং সাদ্দাম হোসেনকে গ্রেফতার করে পুলিস। পুলিসি পাহাড়ায় পরীক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে নির্বিঘ্নেই পরীক্ষা দেয় ওই ছাত্রী। পরীক্ষার পর ফের পুলিসি পাহাড়ায় ওই ছাত্রীকে বাড়ি পৌছে দেওয়া হয়।

ঘটনায় এলাকার নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয়রা। আগামিকাল ধৃতদের আদালতে পেশ করা হবে।