হাওড়া, হুগলিতে রাজনৈতিক সংঘর্ষ

Last Updated: Tuesday, July 24, 2012 - 11:57

দলীয় পতাকা তোলার বেদি তৈরিকে কেন্দ্র করে সিপিআইএম-তৃণমূল সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল হাওড়ার ডোমজুড়। দুপক্ষের মধ্যে দফায় দফায় বোমাবাজি হয়। পুলিসের সামনেই দুষ্কৃতীরা স্থানীয়দের বাড়িতে ভাঙচুর ও লুঠপাট চালায় বলে অভিযোগ। অন্যদিকে, হুগলির খানাকুলে দুষ্কৃতীদের হাতে প্রহৃত হয়েছেন ঘরছাড়া এক সিপিআইএম নেতা।
দলীয় পতাকা রাখার জন্য বেদি নির্মাণ, আর সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই রবিবার রাতে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে হাওড়ার ডোমজুড়। দক্ষিণ কোরোলা এলাকায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে সিপিআইএম এবং তৃণমূল কংগ্রেস। দুপক্ষের মধ্যে দফায় দফায় বোমাবাজি হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিস। কিন্তু পুলিসের সামনেই তৃণমূল কংগ্রেসের সমর্থক দুষ্কৃতীরা স্থানীয়দের বাড়িতে লুঠপাট ও ভাঙচুর চালায় বলে অভিযোগ। এমনকি দুই পুলিস অফিসারের বিরুদ্ধেও লুঠপাটের অভিযোগ উঠেছে। র‌্যাফ-এর জওয়ানরা ঘটনাস্থলে পৌঁছনোর পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। এলাকা থেকে তাজা বোমা উদ্ধার করেছে পুলিস। দুপক্ষের মোট ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সংঘর্ষের পর থেকে এখনও আতঙ্কে রয়েছেন দক্ষিণ কোরোলার মানুষ।
অন্যদিকে হুগলির খানাকুলে দুষ্কৃতীদের মারে গুরুতর জখম হয়েছেন এক সিপিআইএম নেতা। মুক্ত মাঝি নামের ওই নেতার বাড়ি কিশোরপুর এক নম্বর অঞ্চলের ঘাসুয়াগ্রামে। এক বছরের বেশি সময় ধরে ঘরছাড়া রয়েছেন তিনি। অভিযোগ, ঘরে ফেরার জন্য মুক্ত মাঝির কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করে এলাকার দুই তৃণমূল নেতা। টাকা দিতে পারায় তাঁকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। দুষ্কতীদের মারে মুক্ত মাঝির হাত, পা ও বুকের পাঁজর ভেঙে গিয়েছে। আহত সিপিআইএম নেতা আরামবাগ মহকুমা হাসাপাতালে ভর্তি রয়েছেন।



First Published: Tuesday, July 24, 2012 - 11:57
comments powered by Disqus