দীপাবলিতে দর গলছে মোমবাতির

দীপাবলি। আলোর রোশনাই। আলোর উত্‍সবে চিরাচরিত মাটির প্রদীপ বা মোমবাতি আজ পিছনের সারিতে। বাজারচলতি হরেক রকমের আলোর ভিড়ে মোমবাতির চাহিদা খানিকটা পড়তির দিকে। তারপর, মোমবাতি তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় প্যারাফিনের দাম বেড়েছে। ফলে লাভের হার কমেছে মোমবাতি প্রস্তুতকারীদের। কাঁচামালের দাম মাত্রাতিরিক্ত বেড়ে যাওয়ায় সমস্যার মধ্যে মোমবাতি শিল্প।  

Updated: Nov 11, 2012, 10:37 AM IST

দীপাবলি। আলোর রোশনাই। আলোর উত্‍সবে চিরাচরিত মাটির প্রদীপ বা মোমবাতি আজ পিছনের সারিতে। বাজারচলতি হরেক রকমের আলোর ভিড়ে মোমবাতির চাহিদা খানিকটা পড়তির দিকে। তারপর, মোমবাতি তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় প্যারাফিনের দাম বেড়েছে। ফলে লাভের হার কমেছে মোমবাতি প্রস্তুতকারীদের। কাঁচামালের দাম মাত্রাতিরিক্ত বেড়ে যাওয়ায় সমস্যার মধ্যে মোমবাতি শিল্প।  
গৃহস্থের ঘর আলো করতে বাজারে হাজির কমদামি বৈদ্যুতিন এলইডি আলো। মোমবাতির চাহিদা কমে যাওয়ার অন্যতম কারণ এটাই। প্রস্তুতকারকদের বয়ান অনুযায়ী, প্যারাফিনের দাম বেড়ে যাওয়ায় এবং পর্যাপ্ত জোগান না থাকায় বাইরে থেকে বেশি দাম দিয়ে কাঁচামাল কিনতে হচ্ছে তাঁদের। এরফলে প্রতিযোগিতার বাজারে পিছিয়ে পড়েছে রায়গঞ্জের মোমবাতি তৈরির সংস্থাগুলি। সমস্যায় পড়ছেন মোমবাতি কারখানার মালিকরা। কাঁচামালের অভাব থাকায় চাহিদা অনুযায়ী মোমবাতির জোগান দিতে পারছেন না নদীয়ার মোমবাতি ব্যবসায়ীরাও।  
 
শুধুমাত্র মোমবাতি শিল্পই নয় বর্তমানে সঙ্কটের মুখে বাংলার শোলা শিল্পও। থিমের পুজো রমরমা হওয়ায় চাহিদা কমেছে চিরাচরিত ডাকের সাজের প্রতিমারও। সব দিক সামলে কাজ যাও বা জুটছে, শিল্পীরা ঠিকমতো পারিশ্রমিক পাচ্ছেন না বলেও অভিযোগ। ফলে আর্থিক অনটনের কোনও রকমে দিন কাটাচ্ছেন শোলা শিল্পীরা।