নিকাহ ছেড়ে পালিয়ে শবনম বিয়ে করে যশোজিতকে, কিন্তু তারপর?

 বাবা দা নিয়ে তেড়ে এলে যশোজিত দা থেকে হাত কেটে সিঁদুর পরিয়ে দেয় শবনমের মাথায়।

Updated: Nov 10, 2018, 03:06 PM IST
নিকাহ ছেড়ে পালিয়ে শবনম বিয়ে করে যশোজিতকে, কিন্তু তারপর?

নিজস্ব প্রতিবেদন: পরনে সাদা রঙে সারারা শ্যুট। গায়ে সবুজ ওড়না, মাথায় টিকলি। এক্কেবারে নিকাহ-র জন্য সাজগোজ করেছে শবনম। যদিও শবনম নিকাহ করতে চাইছে না। তার বাবা জোর করে মেয়ের নিকাহ করাতে চাইছে। মেয়ে বেঁকে বসায় তাকে একটা ঘরে বন্দি করে রাখে তাঁর বাবা। তবে নিকাহ-র সময় হতেই দেখা যায়, দরজা খুলে মেয়ে পালিয়েছে। মেয়ের পিছনে ধাওয়া করে শবনমের বাবা ও অন্যান্যরা। ততক্ষণে শবনমের সামনে এসে দাঁড়িয়েছে একটি গাড়ি। সেখান থেকে নেমে আসে যুবক যশোজিত। সে শবনমকে জোর করে নিয়ে যেতে বাধা দেয় সে। বাবা দা নিয়ে তেড়ে এলে যশোজিত দা থেকে হাত কেটে সিঁদুর পরিয়ে দেয় শবনমের মাথায়। জি বাংলায় শুরু হতে চলা নতুন ধারাবাহিক নকশিকাঁথার নতুন প্রমোতে এভাবেই ধরা পড়েছে ধারাবাহিকটির গল্প।

 
 
 
 

 
 
 
 
 
 
 
 
 

 

নকশিকাঁথা বলতেই মনে পড়ে দেশভাগের গল্প। আর এই দেশভাগ, কাঁটাতারের সঙ্গেই জুড়ে যায় প্রেমের গল্পও। আগামী ১২ নভেম্বর সোমবার থেকে শুরু হতে চলা নতুন ধারাবাহিকের গল্পে এবার সেই ছবিই উঠে আসতে চলেছে। যেখানে ইসলাম ধর্মাবলম্বী শবনমের চরিত্রে দেখা যাবে মানালি দে-কে। আর হিন্দু যুবক যশোজিতের চরিত্রে দেখা যাবে সুমন দে-কে। এই ধারাবাহিকের মাধ্যমেই দীর্ঘদিন পর ফের ছোট পর্দায় ফিরতে চলেছেন মানালি।

আরও পড়ুন-ছেলে জেইনের সঙ্গে সকলের আলাপ করালেন শাহিদপত্নী মীরা

'নকশিকাঁথা'র গল্পে, শবনম (মানালি) ছোট থেকে চিকিৎসক হয়ে ওঠার স্বপ্ন দেখে। তবে তাঁর সে স্বপ্নে বাধা তার পরিবার। শবনমকে (মানালি) জোর করে বিয়ে দিতে চায়। পরে শবনমের বিয়ে হয় পেশায় চিকিৎসর যশোজিতের সঙ্গে। তবে হিন্দু পরিবার কি মুসলিম মেয়েকে বাড়ির বৌ হিসাবে প্রথমে মেনে না নিতে চাইলেও পরে শবনম তাঁর নিজ গুণেই সবার মন জয় করে নেবে। আর স্বামী যশোজিতের (সুমন দে) উৎসাহেই সে চিকিৎসক হয়ে ওঠার জন্য পড়াশোনাও করবে। এভাবে এগোবে নকশি কাঁথার গল্প। তবে তার মাধে কী কী বাধা শবনমকে পার হতে হবে তা ধারাবাহিকটি শুরু হলেই জানা যাবে।

 
 
 
 

 
 
 
 
 
 
 
 
 

 

 
 
 
 

 
 
 
 
 
 
 
 
 

 

নকশিকাঁথা ধারাবাহিকে তাঁর লুক কেমন হবে তা সোশ্যাল সাইটের মাধ্যমে সকলের সঙ্গে শেয়ার করেছেন মানালি দে।

 
 
 
 

 
 
 
 
 
 
 
 
 

 

 
 
 
 

 
 
 
 
 
 
 
 
 

ইতিমধ্যেই ধারাবাহিকটি শ্যুটিং শুরু করেছেন মানালি। 'বৌ কথা কও' ধারাবাহিকের মৌরী চরিত্রের মাধ্যমে জনপ্রিয়তার শিখরে ওঠেন মানালি। তারপর ছোটপর্দা ও বড় পর্দা সবেতেই দেখা গেছে তাঁকে। তবে মাঝে বেশকিছুটা সময় ছোটপর্দা থেকে দূরে ছিলেন তিনি। তবে 'নকশিকাঁথা'র মাধ্যমে আবারও ছোট পর্দায় ফিরছেন মানালি দে।