শপথ নিলেন কৃষ্ণেন্দু, মন্ত্রীত্বে অনড় হুমায়ূন কবীর

শপথ নিলেন কৃষ্ণেন্দু, মন্ত্রিত্বে অনড় হুমায়ূন কবীর

শপথ নিলেন কৃষ্ণেন্দু, মন্ত্রিত্বে অনড় হুমায়ূন কবীরতৃণমূল কংগ্রেসের ২০ মাসের সরকারে তৃতীয় বারের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান। প্রথমে কংগ্রেসের এবং তারপর তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে শপথ নিলেন কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী। শপথ নিলেন বাকি দুই বিধায়কও। আর হেরে গিয়েও মন্ত্রীর কুর্সি আঁকড়ে বসে থাকার সিদ্ধান্তে অনড় হুমায়ুন কবীর। কাকতালীয়ভাবে সে দিনটাও ছিল সোমবার। কংগ্রেস বিধায়ক হিসাবে শপথ নেন কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী। প্রায় ২০ মাস বাদে ফের শপথ নিলেন কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরী। এখন তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক।
 
মন্ত্রিত্ব পেয়ে দল বদল করেছিলেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন মুর্শিদাবাদের হুমায়ুন কবীরও। হেরে গিয়েছেন তিনি। যদিও, এখনও মন্ত্রী। তাঁকে হারানো রেজিনগরের বিধায়ক রবিউল আলম চৌধুরী এবং নলহাটির বিধায়ক দীপক চ্যাটার্জি শপথ নিলেন সোমবার। কিন্তু, গোটা শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরীর দলবদল আর না জিতেও হুমায়ুন কবীরের মন্ত্রীর চেয়ার না ছাড়া।
 
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ২০ মাসের সরকারের এটা তৃতীয়বারের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান। কেন এতবার? অন্যতম কারণ দলবদলের জন্য উপনির্বাচন আর তার জেরে শপথগ্রহণ। বিধানসভার একটি কেন্দ্রে নির্বাচন করতে কমিশনের খরচ প্রায় ৩৫ লক্ষ টাকা। আর রাজনৈতিক দলের খরচ মিলেয়ে সেই অঙ্কটাই প্রায় কোটি ছুঁই ছুঁই। আর এই পুরো টাকাটাই কিন্তু আসে সাধারণ মানুষের পকেট থেকে।







First Published: Tuesday, March 05, 2013, 09:10


comments powered by Disqus