আইনি টানাপোড়েনের মুখে জমি ফেরতের প্রক্রিয়া বিশ বাও জলে, এখনও প্রকল্প গড়ার বিষয়ে আগ্রহী বলে সুপ্রিম কোর্টে জানাল টাটা

সিঙ্গুরে জমি ছাড়তে নারাজ টাটারা। সিঙ্গুরে এখনও কারখানা গড়তে আগ্রহী টাটা গোষ্ঠী৷ আজ সুপ্রিম কোর্টে এমন কথাই জানালেন টাটার আইনজীবী হরিশ সালভে৷ ওই জমিতে প্রকল্প গড়ার পরিকল্পনা রয়েছে টাটাদের। শীর্ষ আদালতে জানানো হয়েছে, ন্যানো কারখানার প্রথম পর্বের কাজ হয়েছে গুজরাটে। পরের পর্যায়ে আরও পরিকল্পনা রয়েছে। সিঙ্গুরকে ঘিরে আরও পরিকল্পনা আছে বলে জানিয়েছে টাটারা। সিঙ্গুর মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয়েছে ২০১৪ সালের এপ্রিলে।

Updated: Nov 12, 2013, 04:15 PM IST

ফের আইনি টানাপোড়েনের মুখে সিঙ্গুর। ফলে অনিচ্ছুক জমি দাতাদের জমি ফেরতের প্রক্রিয়াও বিশ বাও জলে। একাধিক মহল থেকে জমি ফেরতের বিষয়টি নিয়ে সংশয় প্রকাশ করা হলেও রাজ্য সরকার বারবারই জমি ফেরত দেওয়া সম্ভব বলে দাবি করেছে। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টে টাটাদের আজকের বক্তব্য সেই প্রক্রিয়াকেই আরও আনিশ্চিত করে তুলল।  
রাজ্যে পালাবদলের পর ক্ষমতায় এসেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন সিঙ্গুরে অনিচ্ছুক কৃষকদের জমি ফিরিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু জমি ফেরত পাওয়া নিয়ে আজ পর্যন্ত এতটুকুও আশার আলো দেখেননি তারা। উপরন্তু মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টে টাটাদের বক্তব্য এই প্রক্রিয়াকে আরও জটিলতার মধ্যে ঠেলে দিয়েছে বলেই মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা।
 
তবে টাটাদের এই বক্তব্য সময় কেনার চেষ্টা বলেই কটাক্ষ করেছেন তৃণমূলের আইনজীবী সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বক্তব্যকে খারিজ করেছেন টাটাদের আইনজীবী সিদ্ধার্থ মিত্র। টাটা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সরকারের এই আইনি লড়াইয়ে জমি ফেরত পাওয়া নিয়ে সংশয় আরও বাড়ল। 
সিঙ্গুরে জমি ছাড়তে নারাজ টাটারা। সিঙ্গুরে এখনও কারখানা গড়তে আগ্রহী টাটা গোষ্ঠী৷ আজ সুপ্রিম কোর্টে এমন কথাই জানালেন টাটার আইনজীবী হরিশ সালভে৷ ওই জমিতে প্রকল্প গড়ার পরিকল্পনা রয়েছে টাটাদের। শীর্ষ আদালতে জানানো হয়েছে, ন্যানো কারখানার প্রথম পর্বের কাজ হয়েছে গুজরাটে। পরের পর্যায়ে আরও পরিকল্পনা রয়েছে। সিঙ্গুরকে ঘিরে আরও পরিকল্পনা আছে বলে জানিয়েছে টাটারা। সিঙ্গুর মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয়েছে ২০১৪ সালের এপ্রিলে।
এদিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি টাটার আইনজীবীর কাছে জানতে চান, তিনি কি সংস্থার আধিকারিকদের সঙ্গে ভবিষ্যতে সিঙ্গুরেও প্রকল্প গড়ার বিষয়ে কথা বলেছেন? হরিশ সালভে তখন জানান, টাটার শীর্ষ আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলেই, তিনি এই মতামত জানিয়েছেন৷