রাষ্ট্রপতি পদে সমর্থন নয় প্রণব-আনসারিকে, ঘোষণা বিজেপি`র

Last Updated: Monday, April 30, 2012 - 20:20

এবার রাষ্ট্রপতি নির্বাচন নিয়ে ইউপিএ সরকারের সঙ্গে প্রত্যক্ষ সংঘাতের পথে হাঁটার বার্তা দিল বিজেপি। এদিন লোকসভার বিরোধী দলনেত্রী সুষমা স্বরাজ দ্ব্যর্থহীন ভাষায় জামিয়ে দিয়েছেন, কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন শাসকজোট অর্থমন্ত্রী প্রণব মুখোপাধ্যায় বা বর্তমান উপরাষ্ট্রপতি হামিদ আনসারিকে রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী করলে, কোনও অবস্থাতেই তা সমর্থন করা হবে না।
তাহলে প্রতিভা দেবী সিং পাতিলের উত্তরসূরী হিসেবে কাকে দেখতে চান ১১ নম্বর অশোক রোডের নীতি নির্ধারকরা?
সুষমা স্বরাজের ইঙ্গিত, বাজপেয়ী জমানায় রাষ্ট্রপতি হিসেবে নির্বাচিত এ পি জে আব্দুল কালামকেই ফের রাইসিনা হিলের বাসিন্দা হিসেবে দেখতে চান তাঁরা। তবে সম্ভবত আগ বাড়িয়ে ভারতের `মিসাইলম্যান`কে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে দাঁড় করানোর উদ্যোগ নেবে না বিজেপি। লোকসভার বিরোধী দলনেত্রী বলেছেন, "সমাজবাদী পার্টির প্রধান মুলায়ম সিং যাদব যদি কালামকে প্রার্থী করার প্রস্তাব আনেন তবে আমরা তা সমর্থন করব"। অন্যদিকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে দলীয় অবস্থান নির্ণয়ের বিষয়ে `ধীরে চলো` নীতি গ্রহণের ইঙ্গিত দিয়ে বিজেপি মুখপাত্র রবিশঙ্কর প্রসাদ বলেছেন, "আমার মনে হয়, আরও কিছুদিন অপেক্ষা করার প্রয়োজন রয়েছে"।
ইতিমধ্যেই রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে অকংগ্রেসি দলগুলিকে জোটবদ্ধ করার উদ্যোগ নিয়েছে বিজেপি। কিছু দিন আগে চেন্নাই গিয়ে তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী তথা এআইএডিএমকে সুপ্রিমো জয়ললিতার সঙ্গে বৈঠক করেছেন বিজেপি`র রাজ্যসভার নেতা অরুণ জেটলি। গত ১৬ তারিখ দিল্লিতে বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের সন্ত্রাস দমন সংক্রান্ত বৈঠকের মাঝেই ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়কের সঙ্গে একই ইস্যুতে আলোচনা করেন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ঘরোয়া পর্যায়ে বিএসপি সভানেত্রী মায়াবতীর সঙ্গেও রাষ্ট্রপতি নির্বাচন নিয়ে মতবিনিময় হয়েছে পদ্ম-ব্রিগেডের সেনাপতিদের।

এই পরিস্থিতিতে প্রাথমিকভাবে ইউপিএ জোটের ঐক্য স্থাপনের উপরেই জোর দিচ্ছে কংগ্রেস নেতৃত্ব। গতকালই সনিয়া গান্ধীর বার্তা নিয়ে চেন্নাই উড়ে গিয়ে পরবর্তী রাষ্ট্রপতি প্রার্থী নিয়ে আলোচনা করেছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী এ কে অ্যান্টনি। তৃণমূল কংগ্রেস, এনসিপি`র মতো শরিক দলগুলির সঙ্গেও এ ব্যাপারে দ্রুত কথা বলে ঘর গোছানোর পরিকল্পনা নিয়েছে কংগ্রেস হাইকম্যান্ড। আগামী ৫ মে প্রস্তাবিত জাতীয় সন্ত্রাস দমন কেন্দ্র (এনসিটিস) আইন মুখ্যমন্ত্রীদের বৈঠকে যোগ দিতে দিল্লি আসতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এআইসিসি-সূত্রে খবর, সে সময় তৃণমূল নেত্রীর সঙ্গে বৈঠক করতে পারেন দশ জনপথবাসিনী স্বয়ং।



First Published: Monday, April 30, 2012 - 20:20


comments powered by Disqus