যুব ভারতকে সেলাম, পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি রাষ্ট্রপতির

Last Updated: Friday, January 25, 2013 - 21:42

দিল্লি গণধর্ষণকাণ্ড `হৃদয় বিদারক` একইসঙ্গে `চাঞ্চল্যকর`। ৬৪তম গণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে দেশবাদীকে ভাষণে এই মন্তব্যই করলেন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জী। ১২ ডিসেম্বরের পর এক মাস কেটে গিয়েছে। তবে প্রতিবাদ আর আন্দোলনের সেই স্মৃতি এখনও ম্লান হয়ে যায়নি দেশবাসীর মন থেকে। ফলে নৃশংস সেই গণধর্ষণের প্রসঙ্গ রাষ্ট্রপতির ভাষণে উঠে আসাটাই স্বাভাবিক। রাষ্ট্রপতি বলেন, "মহিলার সঙ্গে পাশবিকতা অর্থ সমাজের সঙ্গে পাশবিকতা।"
দিল্লি গণধর্ষণকাণ্ডে নির্যাতিতা তরুণীর স্মৃতির প্রতি গভীর শোঁক ব্যক্ত করে রাষ্ট্রপতি বলেন, "আমরা শুধু একটা তাজা জীবনকেই হারালাম না, আমরা একটা স্বপ্নও হারালাম।" টানা কয়েকদিন ধরে রাজধানীতে চলা আন্দোলনের সামনের সারিতে ছিল যুব সম্প্রদায়। আজ তাঁদেরও পাশে দাঁড়ালেন রাষ্ট্রপতি। তিনি প্রশ্ন তোলেন, "ওই ঘটনায় ভারতের যুব সমাজ যদি ক্ষুব্ধ হয়। তাতে আমরা কী তাঁদের দোষ দিতে পারি?"
এ দিনের ভাষণে সন্ত্রাসবাদী সংগঠনগুলির বাড়বাড়ন্ত নিয়েও গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন রাষ্ট্রপতি। তিনি স্পষ্ট করে দেন, ভারত যেকোনও মূল্যে পাকিস্তানকে বন্ধুত্বের হাত বারাতে প্রস্তুত। কিন্তু সেটিকে নিশ্চিত ধরে নেওয়া উচিত নয় বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন প্রণব বাবু।
সম্প্রতি পাক সেনার হাতে দুই ভারতীয় জওয়ানের মৃত্যুর প্রসঙ্গে রাষ্ট্রপতি বলেন, গত কয়েকদিন ধরে ভারত-পাক সীমান্তে বেশ কিছু নৃশংসতার নজির দেখেছে ভারত। তিনি বলেন, "প্রতিবেশী রাষ্ট্রের মতবিরোধ থাকতেই পারে। কিন্তু জঙ্গি সংগঠনগুলির মাধ্যমে সন্ত্রাসে মদত দেওয়া দু`দেশের পক্ষেই ক্ষতিকারক।"



First Published: Friday, January 25, 2013 - 21:42


comments powered by Disqus