দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিলেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল, দিল্লি বিধানসভা ভেঙে দেওয়ার সুপারিশ আপ সুপ্রিমোর, দাবি ফের নির্বাচনের

Last Updated: Friday, February 14, 2014 - 20:53

সব জল্পনার ইতি। ৪৯ দিনের আম আদমি সরকার সরে দাঁড়াল রাজধানীর তখত থেকে। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দিলেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর ইস্তফার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। টুইট করে সিদ্ধান্ত জানাল আপ নেতৃত্ব।ফ্যাক্স মারফত ইস্তফা পাঠালেন উপরাজ্যপালকে। দলীয় কার্যালয়ে পৌঁছালেন তিনি। সেখানে কথা বলছেন দলীয় সমর্থকদের সঙ্গে। আপ কার্যালয়ে সমর্থকদের ভিড়।

সমর্থকদের সামনে কেজরিওয়াল ঘোষণা করলেন ইস্তফা দিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে। দিল্লির বিধানসভায় আজ জনলোকপাল বিল পেশের বুরুদ্ধে কংগ্রেস, বিজেপি এক সঙ্গে বিরোধীতা করেছে। ৪২ জন বিধায়ক এই বিল পেশের বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছেন। সমর্থকদের সামনে কেজরিওয়াল জানিয়েছেন তাঁর সরকার মুকেশ আম্বানির বিরুদ্ধে কেজি বেসিন নিয়ে এফআইআর দায়ের করার জন্যই আজ বিধানসভায় জনলোকপাল বিল পেশ করতে দেয়নি কংগ্রেস-বিজেপি। দিল্লির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ কেন্দ্রীয় সরকার আসলে মুকেশ আম্বানির টাকায় চলে। বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদীর ভোট প্রচারে বিপুল অর্থব্যায়ের পিছনেও মুকেশ আম্বানির টাকা আছে বলে অভিযোগ এনেছেন তিনি। কেজরিওয়ালের অভিযোগ ''কংগ্রেস-বিজেপি ভয় পেয়েছে। অ্যান্টি কোরাপশন সেল দিয়েই মুকেশ আম্বানি আর বীরাপ্পন মইলির বিরুদ্ধে এফআইআর করেছি আমরা। এরপর জনলোকপাল বিল আনলে শিন্ডেকেও হয়ত বিপাকে পড়তে হবে। তাই আজ জনলোকপাল বিল পেশ করতে দিল না ওরা।'' উপরাজ্যপালের কাছে দিল্লির বিধানসভা ভেঙে দেওয়ার আবেদন করেছেন কেজরিওয়াল। দিল্লিতে ফের নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন তিনি।



First Published: Friday, February 14, 2014 - 20:25


comments powered by Disqus