বিছানায় ফেলে শুয়ে পড়ল আমার উপর...ভয়ঙ্কর অভিযোগ মালিঙ্গার বিরুদ্ধে

চিন্ময়ী যেন আরও পাঁচজন মহিলাকে এই আন্দোলনে সামিল হওয়ার জন্য শক্তি জুগিয়ে চলেছেন। 

Updated: Oct 11, 2018, 06:23 PM IST
বিছানায় ফেলে শুয়ে পড়ল আমার উপর...ভয়ঙ্কর অভিযোগ মালিঙ্গার বিরুদ্ধে

নিজস্ব প্রতিনিধি : যেন আছড়ে পড়ছে একের পর এক গ্রেনেড। ক্ষত-বিক্ষত হচ্ছেন অভিযুক্তরা। কখনও বলিউড, কখনও ক্রিকেট। #metoo আন্দোলন ক্রমেই দানা বাঁধছে আরও জোরদার হয়ে। যৌন হেনস্থা নিয়ে সরব হচ্ছেন একের পর এক নামজাদা মহিলা। দ্বিধা-দ্বন্দ্ব ছেড়ে প্রকাশ্যে নিজেদের উপর হওয়া নির্যাতনের বিবরণ দিচ্ছেন তাঁরা। গায়িকা চিন্ময়ী শ্রীপদ টুইটারে হ্যাশট্যাগ মিটু আন্দোলন নিয়ে বেশ সরব। চিন্ময়ী যেন আরও পাঁচজন মহিলাকে এই আন্দোলনে সামিল হওয়ার জন্য শক্তি জুগিয়ে চলেছেন। এবার তাঁর অভিযোগের তির শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি পেসার লাসিথ মালিঙ্গার দিকে। 

আরও পড়ুন-  মিটু-ঝড়! এবার শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি রণতুঙ্গার বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ

টুইটারে চিন্ময়ী লিখেছেন, ''আমি নাম প্রকাশ করতে চাই না। কয়েক বছর আগে মুম্বইয়ে আমার সঙ্গে একটা জঘন্য ঘটনা ঘটেছিল। আমরা মুম্বইয়ে এক হোটেলে ছিলাম। সেখানে আমার বান্ধবীকে খুঁজছিলাম। এমন সময় বিখ্যাত এক শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারের সঙ্গে হোটেলের লনে দেখা। তখন আইপিএল চলছিল। তিনি আমাকে বললেন, আমার বান্ধবী নাকি তার রুমেই আছে। আমি বান্ধবীর খোঁজে তাঁর রুমে গেলাম। কিন্তু সেখানে আমার বান্ধবী ছিল না। সেই ক্রিকেটার তখন আচমকাই আমাকে ধাক্কা দিয়ে বিছানায় ফেলে দিলেন। তার পর আমার মুখের ওপর চড়ে বসলেন। আমি বেশ লম্বা এবং স্থূলকায়। ওঁর সঙ্গে গায়ের জোরে পেরে উঠছিলাম না। কিন্তু ভয়ে, লজ্জায় আমি মুখ ও চোখ বন্ধ করে ফেলি। সেই ক্রিকেটার আমার গাল ব্যবহার করে। এমন সময় হোটেলের কর্মচারী কিছু জিনিস নিয়ে এসে দরজায় নক করে। ক্রিকেটার দরজা খুলতে চলে যায়। আমি দ্রুত বাথরুমে গিয়ে মুখ ধুয়ে নিই। এবং হোটেল কর্মচারী বের হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রুম থেকে বেরিয়ে যাই। ভয়ংকর অপমানিত বোধ করছিলাম আমি। জানি কিছু মানুষ এখন বলবে, আমি জেনে বুঝেই সেই রুমে গিয়েছি। কেউ বলবে, আমার সঙ্গে এর চেয়েও ভয়ংকর কিছু হওয়া উচিত ছিল।''

আরও পড়ুন-  অন্যের প্রেমিকার জন্য গোয়েন্দা হলেন রশিদ খান!

শ্রীলঙ্কার আরেক কিংবদন্তি ক্রিকেটার অর্জুন রণতুঙ্গার বিরুদ্ধে আক বিমেনসেবিকা ২৪ ঘন্টা আগেই যৌন হেনস্থার অভিযোগ করেছিলেন। এবার নিশানায় লাসিথ মালিঙ্গা। 

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close