আড়াই বছরের লড়াই কাটিয়ে কামদুনিতে নতুন ভোর, ভয় কী কেটেছে?

আড়াই বছরের লড়াই কাটিয়ে কামদুনিতে নতুন ভোর, ভয় কী কেটেছে?

কামদুনিতে আজ নতুন সকাল। ছয় দোষীকে সর্বোচ্চ সাজা শুনিয়েছে আদালত।  তবে ছাড়া পেয়ে গিয়েছে দুই অভিযুক্ত। এবার তাদের শাস্তির দাবিতে উচ্চ আদালতে যাওয়ার লড়াইয়ে সামিল হতে চাইছেন কামদু

বিরলের মধ্যে বিরলতম ঘটনা কামদুনি, অপরাধের প্রবণতাকে অঙ্কুরেই বিনাশের বার্তা বিচারপতির বিরলের মধ্যে বিরলতম ঘটনা কামদুনি, অপরাধের প্রবণতাকে অঙ্কুরেই বিনাশের বার্তা বিচারপতির

বিরলের মধ্যে বিরলতম ঘটনারই মান্যতা পেল কামদুনির নির্যাতিতার ওপর অত্যাচার। তাঁর রায়ে , অপরাধীদের কড়া বার্তা দিলেন বিচারক সঞ্চিতা সরকার। তিনি বলেন, মেয়েদের উপর  ক্রমবর্ধমান অপরাধে

কামদুনির রায়, নতুন করে লড়াইয়ের অক্সিজেন দিয়েছে বাকিদেরও, অপেক্ষা সুবিচারের কামদুনির রায়, নতুন করে লড়াইয়ের অক্সিজেন দিয়েছে বাকিদেরও, অপেক্ষা সুবিচারের

ফাঁসি চেয়েছিল কামদুনি। আড়াই বছর পর, তা পেল।  কিন্তু শুধুই তো কামদুনি না, বিচার পাওয়ার আশায় দিন গুনছে গাইঘাটা, খরজুনা, কাটোয়া, জলপাইগুড়িও। দাবি সেই একই। ফাঁসি দেওয়া হোক অভিযুক্তদের।সব অভিযুক্তেরই ফাঁসির দাবি তুলেছিল কামদুনি। সবার না হলেও, তিন জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। বাকিদের আমৃত্যু কারাদণ্ড। দুহাজার চোদ্দর দোসরা সেপ্টেম্বর রাতে, ধূপগুড়ির কাছে রেললাইনের ধারে  উদ্ধার হয় স্কুল ছাত্রীর ক্ষতবিক্ষত-বিবস্ত্র দেহ। ধর্ষণ করে খুনের অভিযোগ তোলেন কিশোরীর বাবা-মা। অভিযোগে উঠে আসে তৃণমূলের ওয়ার্ড কমিটির নেতা সহ শাসকদল ঘনিষ্ঠ বেশ কয়েকজনের নাম। এই মামলায় বিচার আজও অধরা। এদিন কামদুনির রায়ে, নতুন করে আশার আলো দেখছে নির্যাতিতার পরিবার।

নৃশংশ অপরাধীরা আর ফিরবে না গ্রামে, স্বস্তির হাসি কামদুনির মানুষের মুখে নৃশংশ অপরাধীরা আর ফিরবে না গ্রামে, স্বস্তির হাসি কামদুনির মানুষের মুখে

বিচার পেল কামদুনি। নৃশংশ অপরাধীরা আর ফিরবে না গ্রামে।  স্বস্তির হাসি কামদুনির মানুষের মুখে।  বিশ্বাস, এবার নির্ভয়ে পথে বের হতে পারবে  গ্রামের মেয়েরা। বর্ষার সেই দুপুরে পরীক্ষা দিয়ে আর ঘরে ফেরা হয়নি মেয়েটির। ভেড়ি আর ধানজনির মাঝের  শুনশান পথ  দিয়ে ফেরার সময়ই আক্রমণ। আট বিঘা জমিতে টেনে নিয়ে গিয়ে মেয়েটিকে ছিন্ন ভিন্ন করে দিয়েছিল আনসার-সইফুলরা। ঝরা পাতার মতো ছিঁড়ে দু টুকরো করে দেওয়া হয়েছিল দেহ।

 কামদুনি গণধর্ষণ কাণ্ডে ৩ জনের ফাঁসি এবং ৩ জনের আমৃত্যু যাবজ্জীবন সাজা ঘোষণা করলেন বিচারক কামদুনি গণধর্ষণ কাণ্ডে ৩ জনের ফাঁসি এবং ৩ জনের আমৃত্যু যাবজ্জীবন সাজা ঘোষণা করলেন বিচারক

কামদুনির ঘটনা কী বিরলের মধ্যে বিরলতম অপরাধ? শনিবার এ প্রশ্ন নিয়েই সরগরম রইল এজলাস। তবে অভিযুক্তপক্ষের সব যুক্তি খারিজ করে বিচারক রায় দিলেন- দুহাজার তেরোর সাতই জুন  বিরলের মধ্যে বিরলতম অপরাধই হয়েছিল কামদুনির আটবিঘা জমিতে। অভিযুক্তদের ছজনকে বৃহস্পতিবারই দোষী সাব্যস্ত করে আদালত। বিচারক জানান,  এ মামলায় আর বেশি সওয়াল জবাবের প্রশ্ন নেই।  বিচার্য বিষয় একটাই,কামদুনিতে গণধর্ষণ করে খুনের ঘটনা কী বিরলের মধ্যে বিরলতম অপরাধ?

কামদুনিকাণ্ডে অভিযুক্ত দুজন বেকসুর খালাস পেল কীভাবে? মুখ্যমন্ত্রীর জবাব দাবি করে লালবাজার অভিযানে বামেরা   কামদুনিকাণ্ডে অভিযুক্ত দুজন বেকসুর খালাস পেল কীভাবে? মুখ্যমন্ত্রীর জবাব দাবি করে লালবাজার অভিযানে বামেরা

কামদুনিকাণ্ডে অভিযুক্ত দুজন বেকসুর খালাস পেল কীভাবে? মুখ্যমন্ত্রীর কাছে জবাব দাবি করে লালবাজার অভিযানে নামল চারটি বাম মহিলা সংগঠন। যদিও ফিয়ার্স লেনেই মিছিল আটকে দেয় পুলিস। এরপর চলে অবস্থান-বিক্ষোভ।

আতঙ্ক ক্রমশ গ্রাস করছে কামদুনির বাসিন্দাদের আতঙ্ক ক্রমশ গ্রাস করছে কামদুনির বাসিন্দাদের

কামদুনিকাণ্ডে আদালতের ছজনকে দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালত। পর্যাপ্ত তথ্য প্রমাণের অভাবে বেকসুর খালাস পেয়ে গেছে দুই অভিযুক্ত নূর ও রফিক গাজি। তবে এরপরও স্বস্তিতে নেই কামদুনি। আতঙ্ক ক্রমশ গ্রাস করছে কামদুনির বাসিন্দাদের। একদিকে দুই অভিযুক্তের বেকসুর ছাড়া পেয়ে যাওয়া, অন্যদিকে গতকাল আদালত চত্বরে নির্যাতিতার ভাইকে খুল্লামখুল্লা হুমকি। কোর্ট চত্বরে দোষী সাব্যস্তদের হুমকির মুখে পড়ে কামদুনির নির্যাতিতার পরিবার। নির্যাতিতার ভাইয়ের দাবি, বিনা প্ররোচনাতেই তাদের হুমকি দেয় দোষীরা। এদিকে কামদুনিতে অস্থায়ী পুলিস ক্যাম্পের ব্যবস্থা ছিল। সাজা ঘোষণার পর সেই অস্থায়ী ক্যাম্প থাকবে কিনা, তা নিয়ে সংশয়ে কামদুনির বাসিন্দারা। তাঁদের আশঙ্কা ক্যাম্প উঠে গেলে কামদুনিতে নিরাপত্তা বলে আর কিছুই থাকবে না। গত পরশু বিধাননগর কমিশনারেটে গিয়ে স্থীয় ক্যাম্পের দাবি জানান বাসিন্দারা। 

কামদুনি মামলার রায় হতে সময় লেগে গেল দুবছর আট মাস! কামদুনি মামলার রায় হতে সময় লেগে গেল দুবছর আট মাস!

কামদুনি মামলার রায় হতে সময় লেগে গেল দুবছর আট মাস।  অথচ  দিল্লির নির্ভয়া গণধর্ষণ মামলা, উবের ক্যাবে মহিলাকে ধর্ষণ , মুম্বইয়ে শক্তি মিলে মহিলাকে ধর্ষণ, তিনটি  মামলাতেই  রায় ঘোষণা হয়েছে এক বছরেরও কম সময়ে। আর এ রাজ্যে মালদার বামনগোলায় নাবালিকা ধর্ষণ মামলায় রায় ঘোষণা হয় মাত্র বাইশ দিনে। একমাসের মধ্যে দোষীদের শাস্তি হবে । কামদুনিতে দাঁড়িয়ে ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। তারপরও বিচারের বাণী ঘোষণা হতে লেগে গেল প্রায় দুবছর আট মাস। দেশ জুড়ে আলোড়ন তোলা বেশকয়েকটি গণধর্ষণ মামলার রায় হয়েছে কয়েকমাসের মধ্যেই।

 ২ বছর ৭ মাস ২১ দিনের মাথায় বিচার পেতে চলেছে কামদুনি ২ বছর ৭ মাস ২১ দিনের মাথায় বিচার পেতে চলেছে কামদুনি

দুহাজার তেরোর সাতই জুন থেকে  দুহাজার ষোলর আঠাশে জানুয়ারি। দুবছর সাত মাস একুশ দিনের মাথায় বিচার পেতে চলেছে কামদুনি। মাঝের এই সময়টায় ঘাত-প্রতিঘাত এসেছে বারবার। শাস্তি চাই। বারবার গর্জে উঠেছে কামদুনি।  সেই প্রথম দিন থেকে। তাড়াতাড়ি বিচারের আশ্বাস  দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তবু বিচারের বাণী ঘোষণা হতে লেগে গেল প্রায় দুবছর আট মাস। মাঝের এই সময়টা নানা ভাবে দীর্ঘায়িত হয়েছে বিচার প্রক্রিয়া।

বহু অপেক্ষার কামদুনি ধর্ষণকাণ্ডের রায় দিতে চলেছে নগর দায়রা আদালত বহু অপেক্ষার কামদুনি ধর্ষণকাণ্ডের রায় দিতে চলেছে নগর দায়রা আদালত

আড়াই বছর পার। এবার বহু অপেক্ষার কামদুনি ধর্ষণকাণ্ডের রায় দিতে চলেছে নগর দায়রা আদালত। দোষীদের সর্বোচ্চ সাজার দাবিতে কামদুনির ধারাবাহিক আন্দোলন রাজ্যে এখন প্রতিবাদের আরেক নাম। আড়াই বছরে কতটা বদল হয়েছে কামদুনির? সরকারি প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়নই বা হল কতটা, খোঁজ নিল চব্বিশ ঘণ্টা। কামদুনি মোড়ে ধর্ষিতার সড়ক-ফলকটির নিচে জমে আছে দীর্ঘদিনের মলিন মোম। এই স্মরণ-বেদিতেই প্রতি মাসে শপথ নিত কামদুনি। ফাঁসি চাই ফাঁসি চাই স্লোগান দিত টুম্পা-মৌসুমিরা।

আড়াই বছরের প্রতীক্ষা শেষ, ২৮ জানুয়ারি কামদুনি গণধর্ষণ মামলার রায় আড়াই বছরের প্রতীক্ষা শেষ, ২৮ জানুয়ারি কামদুনি গণধর্ষণ মামলার রায়

আড়াই বছরের প্রতীক্ষা শেষ। ২৮ জানুয়ারি কামদুনি গণধর্ষণ মামলার রায়। ওইদিন দুপুর দুটোয় রায় ঘোষণা করবেন বিচারক সঞ্চিতা সরকার। দোষী প্রমাণিত হলে অভিযুক্তদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাইবে সরকারপক্ষ।

টিউশন থেকে ফেরারা পথে দশম শ্রেণীর ছাত্রীকে গনধর্ষণ করে খুন, কামদুনির পথে কাকদ্বীপ টিউশন থেকে ফেরারা পথে দশম শ্রেণীর ছাত্রীকে গনধর্ষণ করে খুন, কামদুনির পথে কাকদ্বীপ

কামদুনির পর এবার  কাকদ্বীপ। টিউশন সেরে ফেরার পথে দুষ্কৃতী নির্যাতনের শিকার দশম শ্রেণির ছাত্রী। পরিবারের অভিযোগ, ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে মেয়েটিকে। শুক্রবার বাড়ির কাছেই টিউশন পড়তে গিয়েছিল মেয়েটি। ফেরার পথে তাকে অপহরণ করে কয়েকজন দুষ্কৃতী। শনিবার ভোররাতে স্থানীয় একটি পুকুরে মেয়েটির ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার হয়। ক্ষোভে ফেটে পড়েন এলাকার মানুষ। পুলিসি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগে ফেটে পড়েন নির্যাতিতার পরিবার।তাদের অভিযোগ, ধর্ষণের অভিযোগ নিতে চাইছে না পুলিস।

দুই বছরে কতটা বদলেছে কামদুনি? সরেজমিনে ২৪ ঘণ্টা দুই বছরে কতটা বদলেছে কামদুনি? সরেজমিনে ২৪ ঘণ্টা

২০১৩, ৭ জুন। কামদুনিতে ধর্ষণ করে খুন করা হয় কলেজ ছাত্রীকে। গর্জে ওঠে উত্তর চব্বিশ পরগনার এই অখ্যাত গ্রাম। দোষীদের শাস্তির দাবিতে সরব হয় গোটা গ্রাম। দাবি ছিল রাস্তায় যথাযথ আলো, পুলিসি টহলের। দুবছর পর গ্রামবাসীদের সেই দাবি কী পূরণ হয়েছে? কতটা বদলেছে কামদুনি? সরেজমিনে ঘুরে দেখলেন আমাদের প্রতিনিধি দেবারতি ঘোষ।

রাজীব রায়ের পর প্রতিবাদীর রক্তে ভেজা রাজ্যে অপেক্ষায় বরুণ বিশ্বাস, কামদুনি পরিবার রাজীব রায়ের পর প্রতিবাদীর রক্তে ভেজা রাজ্যে অপেক্ষায় বরুণ বিশ্বাস, কামদুনি পরিবার

রাজীব দাসের মত কিশোর ছাত্রের মর্মান্তিক পরিণতির পরও পরিস্থিতির কোনও পরিবর্তন হয়নি। কামদুনি গণধর্ষণ, মধ্যমগ্রামের ঘটনা তারই প্রমাণ। এখানেই শেষ নয়। বরুণ বিশ্বাস, সৌরভ চৌধুরীর মত প্রতিবাদীদের খুনেরও স

২ টাকা কেজি দরে চালের প্যাকেজে কেন কামদুনি? উঠছে প্রশ্ন ২ টাকা কেজি দরে চালের প্যাকেজে কেন কামদুনি? উঠছে প্রশ্ন

রাজ্যে ৯ কোটির মধ্যে ৩ কোটিরও বেশি মানুষ মাত্র দু-টাকা কেজি দরে চাল পান। কম টাকায় চাল পাওয়ার এই তালিকায় রয়েছে সিঙ্গুর। নতুন সংযোজন কামদুনিও। কী কারণে এখানকার মানুষেরা স্পেশাল প্যাকেজ পাবেন?