ট্রেনের ফাঁকে আটকে এক ব্যক্তির পা, গোটা ট্রেন তুলে ধরলেন সহযাত্রীরা  ট্রেনের ফাঁকে আটকে এক ব্যক্তির পা, গোটা ট্রেন তুলে ধরলেন সহযাত্রীরা

অস্ট্রেলিয়ার ব্যাস্ত স্টেশন। ট্রেন ঢুকল প্লাটফর্মে। হঠাৎ সবাই খেয়াল করলেন এক ব্যক্তির পা আটকে গিয়েছে ট্রেন ও প্লাটফর্মের মাঝে। যন্ত্রণায় ছটফট করছেন ওই ব্যক্তি। এগিয়ে এলেন স্টেশনের সব যাত্রী। সবাই মিলে তুলে ধরলেন ট্রেন। এই ঘটনা অবাক করে দিয়েছে গোটা বিশ্বকে। প্রতিদিন যখন গাজায় ইজরাইলের রকেট হামলায় মানুষের প্রাণের মূল্য খয়রাত হয়ে দাঁড়িয়েছে, সেখানে অস্ট্রেলিয়ার এই ঘটনা একটু হলেও নাড়া দিয়ে গেল। কী বলা যায় একে... মানবিকতা? অস্ট্রেলিয়ার রেল কতৃপক্ষ সহযাত্রীদের এই সাহসিকতাকে সন্মান জানিয়ে বলেছেন 'এটা জনতার জোর'।

রিজার্ভেশন সত্ত্বেও কামরার বাইরে ঝুলে সফর করতে হল ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্রকে

রিজার্ভেশন ছিল। তবু ঝাড়গ্রাম স্টেশন থেকে ট্রেনে উঠতে পারলেন না ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ছাত্র স্বর্ণাভ বাগচী। কারণ বারবার কামরার দরজায় ধাক্কা দেওয়া সত্ত্বেও কেউ দরজা খোলেননি। তারপর প্রায় মিনিট ১৫ চলন্ত এক্সপ্রেসে ট্রেনে ঝুলে থেকে সহযাত্রীদের দয়ায় কামরায় ওঠেন তিনি। পুলিস, টিটিই কাউকেই ট্রেনে দেখা যায়নি। ফলে কেউই সাহায্যের জন্য এগিয়েও আসেননি। হাওড়া স্টেশনে পৌছে অভিযোগ জানানোর পর কর্তৃপক্ষের দায়সারা উত্তর--দু, আড়াই মাস পর অভিযোগের উত্তর পাওয়া গেলেও যেতে পারে। কিন্তু তাতে কী থাকবে, কেউই জানেন না।