রেল লাইনে পড়ে গেলেন, ট্রেন চলে গেল, তবু বেঁচে গেলেন!

রেল লাইনে পড়ে গেলেন, ট্রেন চলে গেল, তবু বেঁচে গেলেন!

মথুরা রেল স্টেশনের ৪ নম্বর প্লাটফর্মের ঘটনা। আর দশজনের মতো প্ল্যাটফর্মেই দাঁড়িয়ে ছিলেন সবাই। হঠাত্‍ই ট্রেন দেখতে ঝুঁকেছিলেন একজন। বিপত্তি তখনই। তিনি পড়ে যান ট্রেন লাইনেরই উপর!এমন সময় পড়ে যান, যে ট্রেন তখন একেবারে এসে পড়েছে গায়ের উপর। পড়ে যাওয়া মানুষটা কোনওরকমে প্ল্যাটফর্মের দিকে গুজরে শুয়ে পড়েন। পুরী ট্রেন তার উপর দিয়েই চলে যায় দ্রুত গতিতে। ট্রেন চলে যেতেই উপস্থিত লোকেরা দৌড়ে এসে ভদ্রলোককে টেনে প্ল্যাটফর্মের উপরে তোলেন। ট্রেন গায়ের উপর দিয়ে চলে যাওয়ার পরও দিব্যি বেঁচে গিয়েছেন তিনি। যদিও ভয় কাজ করছিল তাঁর।

আপ শিয়ালদহ-নৈহাটি লোকালের ৩ টি বগি লাইনচ্যুত আপ শিয়ালদহ-নৈহাটি লোকালের ৩ টি বগি লাইনচ্যুত

আপ কলকাতা-নৈহাটি লোকালের ৩ টি বগি লাইনচ্যুত। ঘটনাটি ঘটেছে ২৫ ডিসেম্বর রাত ৯ টা নাগাদ। ট্রেনটি কলকাতা স্টেশন থেকে ছেড়ে নির্বিঘ্নে দমদম পর্যন্ত পৌঁছয়। কিন্তু দমদম স্টেশনের  প্ল্যাটফর্ম থেকে ছাড়ার পরই তার ৩ টি বগি হঠাত্‍ই লাইনচ্যুত হয়ে যায়। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোনও হতাহতের খবর নেই। তবে, বেশ কয়েকজনের সামান্য চোট লেগেছে। একে বড় দিন। ছুটি এবং উত্‍সবের মেজাজ। তাই আজ ট্রেনে ভিড়ও বেশি। এই ঘটনার জন্য ট্রেন চলাচল সামান্য সময়ের জন্য বিঘ্নিত হয়নি ঠিকই। কিন্তু বেশি যাত্রী যেহেতু ট্রেনের ভরসায় রয়েছেন, তাই খানিকটা আতঙ্কে যাত্রীরা।

ট্রেনে অশালীন আচরণের প্রতিবাদ করায় ওই মহিলাকেই শ্লীতহানির শিকার হতে হল ট্রেনে অশালীন আচরণের প্রতিবাদ করায় ওই মহিলাকেই শ্লীতহানির শিকার হতে হল

ট্রেনে  মদ্যপ যুবক, যুবতীর অশালীন আচরণের প্রতিবাদ করেছিলেন পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুকের বাসিন্দা ওই মহিলা। ঘটনার জেরে ওই মহিলাকেই শ্লীতহানির শিকার হতে হয়ে বলে অভিযোগ। এমনকী ওই মহিলার সঙ্গে থাকা ব্যাগ চুরি করে চম্পট দেয় অভিযুক্ত যুবক। আঠারোই ডিসেম্বর  ডাউন যশবন্তপুর এক্সপ্রেসে ফেরার পথে এই অভিজ্ঞতা হয় ওই মহিলার।  ভেলোর থেকে চিকিত্সা করিয়ে স্বামীর সঙ্গে ফিরছিলেন ওই মহিলা। অভিযুক্ত যুবক ও যুবতী টিকিট ছাড়াই সংরক্ষিত কামরায় চড়েছিলেন বলে জানা গেছে। অভিযোগ, যুবক পালিয়ে গেলেও তাঁর সঙ্গীনিকে আটকে রাখেন নির্যাতিতা ও ট্রেনের অন্য যাত্রীরা।

স্লিপার ক্লাসে ১৪০ টাকায় মিলবে দুটি বেডশিট ও একটি বালিশ স্লিপার ক্লাসে ১৪০ টাকায় মিলবে দুটি বেডশিট ও একটি বালিশ

ট্রেন যাত্রীদের জন্য সুখবর। এবার স্লিপার ক্লাসেও মিলবে বেড রোল। ১৪০ টাকা দিলে দুটি বেডশিট এবং একটি বালিশ পাবেন ট্রেন যাত্রীরা। আরও একশো দশ টাকা দিলে মিলবে কম্বল। এই পরিষেবা সব স্টেশনে শুরুর আগে ট্রায়াল চালাতে চায় রেল কর্তৃপক্ষ। তাই আপাতত শুরু হচ্ছে দেশের মোট চারটি স্টেশনে। আপাতত এই পরিষেবা চালু হচ্ছে নিউ দিল্লি, হজরত নিজামুদ্দিন, ছত্রপতি শিবাজী টার্মিনাস এবং মুম্বই সেন্ট্রাল। অর্থাত্‍ ‍দিল্লি বা  মুম্বই থেকে কলকাতায় যাঁরা এই শীতে আসবেন, তাঁরা এই সুবিধা অনায়াসেই পাবেন। তবে বেড রোড পেতে আগে ভাগেই জানিয়ে রাখতে হবে। আইআরসিটিসির ওয়েবসাইটে অনলাইনে বুক করতে হবে বেডরোল।

ঘুরপথে ফের ট্রেন ভাড়া বাড়ছে ঘুরপথে ফের ট্রেন ভাড়া বাড়ছে

ঘুরপথে ফের ট্রেনের ভাড়া বাড়ছে। প্যাসেঞ্জার ট্রেনের ন্যূনতম ভাড়া একধাক্কায় বাড়ছে দ্বিগুণ। ন্যূনতম ভাড়া পাঁচ টাকা থেকে বেড়ে হচ্ছে দশ টাকা। তবে লোকাল ট্রেনের ভাড়া বাড়ছে না। নতুন ভাড়া বিশে নভেম্বর থেকে  চালু হচ্ছে। নতুন ভাড়া চালু হলে শহরতলি এলাকার বাইরে যাত্রীদের এবার থেকে বেশি ভাড়া গুণতে হবে। রেলের যুক্তি, প্ল্যাটফর্মের টিকিটের সঙ্গে সামঞ্জস্য রাখতেই এই ভাড়া বাড়ানো হচ্ছে। এই খবরে চিন্তার ভাঁজ নিত্যযাত্রীদের। তবে একটা মহল থেকে এই ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্তকে স্বাগতও জানানো হচ্ছে। নিত্যযাত্রীরা অবশ্য বলছেন, এতে তারা অসুবিধার মুখে পড়বেন।