মার্কিন মুলুকে আজ থেকে কার্যকর `ফিস্কাল ক্লিফ`

অনেক চেষ্টা সত্ত্বেও বিপুল করের বোঝা থেকে বাঁচল না আমেরিকার আম আদমি। পয়লা জানুয়ারি থেকে কার্যকর হবে `ফিস্কাল ক্লিফ`। বাজেট ঘাটতি এবং প্রভূত ঋণের বোঝা লাঘব করতে সরকারি কোষাগারের ব্যয় সংকোচ ও ব্যাপক হারে কর বৃদ্ধি করার এই নীতির চালু হওয়ার কথা ছিল নতুন বছরের শুরুর দিন থেকেই। তবে দেশবাসীর উপর থেকে এই বিপুল করের বোঝা লাঘব করতে চেষ্টা চলেছে হোয়াইট হাইস থেকে হাউস অফ রিপ্রেসেন্টেটিভ, সর্বত্রই। কিন্তু বছরের শেষ দিনে, অর্থাৎ ৩১ ডিসেম্বর রাত ১২টার আগে কোনও সমাধান সূত্র না মেলায় এক অর্থে কার্যকরী হয়ে গেল ফিস্কাল ক্লিফ। ফলে চূড়ান্ত চাপের মুখে মার্কিন করদাতারা।

Updated: Jan 1, 2013, 02:48 PM IST

অনেক চেষ্টা সত্ত্বেও বিপুল করের বোঝা থেকে বাঁচল না আমেরিকার আম আদমি। পয়লা জানুয়ারি থেকে কার্যকর হবে `ফিস্কাল ক্লিফ`। বাজেট ঘাটতি এবং
প্রভূত ঋণের বোঝা লাঘব করতে সরকারি কোষাগারের ব্যয় সংকোচ ও ব্যাপক হারে কর বৃদ্ধি করার এই নীতির চালু হওয়ার কথা ছিল নতুন বছরের শুরুর দিন
থেকেই। তবে দেশবাসীর উপর থেকে এই বিপুল করের বোঝা লাঘব করতে চেষ্টা চলেছে হোয়াইট হাইস থেকে হাউস অফ রিপ্রেসেন্টেটিভ, সর্বত্রই। কিন্তু বছরের শেষ
দিনে, অর্থাৎ ৩১ ডিসেম্বর রাত ১২টার আগে কোনও সমাধান সূত্র না মেলায় এক অর্থে কার্যকরী হয়ে গেল ফিস্কাল ক্লিফ। ফলে চূড়ান্ত চাপের মুখে মার্কিন করদাতারা।
সেনেট-নেতৃত্ব বিষয়টি নিয়ে ভোটাভুটির দিকে এগোলেও রিপাবলিকান সংখ্যাগরিষ্ঠ হাউস অফ রিপ্রেসেন্টেটিভ মঙ্গলবার বেলার আগে কোনও সিদ্ধান্তে আসতে পারবে না। তবে অর্থনীতিতে এর বিরূপ প্রভাব পড়ার আগেই বিল এনে বিষয়টি প্রতিরোধ করার ব্যাপারে আশাবাদী মার্কিন কংগ্রেস নেতৃত্ব এবং হোয়াইট হাউস।
এই ফিস্কাল ক্লিফের জেরে মোট ৬০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের ব্যয়সংকোচ এবং করের বোঝা বইবে মার্কিন অর্থনীতি।