আলিয়া মিথ্যা অভিযোগ এনে মানহানির চেষ্টা করছেন, পাল্টা নোটিস নওয়াজউদ্দিনের

 আইনি পথে বেশকিছু অভিযোগের প্রতিক্রিয়াও জানিয়েছেন তিনি। 

Edited By: রণিতা গোস্বামী | Updated By: Jun 26, 2020, 11:19 PM IST
আলিয়া মিথ্যা অভিযোগ এনে মানহানির চেষ্টা করছেন, পাল্টা নোটিস নওয়াজউদ্দিনের

নিজস্ব প্রতিবেদন : স্ত্রী আলিয়ার সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে এতদিন চুপ করেই ছিলেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি। গত মে মাসেই নওয়াজকে বিবাহবিচ্ছেদের নোটিস পাঠান আলিয়া। বিশাল অঙ্কের খোরপোশের দাবিও করেন তিনি। তবে এবিষয়টি নিয়ে এতদিন চুপই ছিলেন নওয়াজ। এবার আলিয়াকে পাল্টা নোটিস পাঠালেন অভিনেতা। যেখানে প্রতারণা, ইচ্ছাকৃৃতভাবে মানহানির কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি আইনি পথে বেশকিছু অভিযোগের প্রতিক্রিয়াও জানিয়েছেন তিনি। 

নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি নোটিসে বলেছেন, তিনি আলিয়ার থেকে বিবাহবিচ্ছেদের নোটিস পাওয়ার ১৫ দিনের মধ্যেই জবাব দিয়েছিলেন, সেই দিনটি ছিল ১৯ মে। অথচ আলিয়া বলেন, তিনি নাকি নওয়াজের কাছে কোনও জবাব পাননি। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে আলিয়া বলেন, তিনি নাকি নওয়াজের কাছ থেকে মাসিক খরচ বাবদ কোনও টাকাই পাচ্ছেন না, যেকারণে, বাচ্চাদের স্কুলের বেতন দিতে পারছেন না। যদিও নোটিসে নওয়াজ জানিয়েছেন তিনি বাচ্চাদের দেখাশোনা ও স্কুলের খরচ পাঠিয়েছেন। নওয়াজউদ্দিনের আইজীবী আদনান শেখ জানিয়েছেন, ''আমার মক্কেল ইএমআই-ও দিয়ে চলেছেন, সঙ্গে বাচ্চাদের খরচ। এমনকি বিবাহবিচ্ছেদের নোটিসের জবাবও দিয়েছেন আগেই এবং আবারও দিচ্ছেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও উনি (আলিয়া) আমার মক্কেলকে অপবাদ দেওয়ার চেষ্টা করে চলেছেন।''

আরও পড়ুন-'নেপোটিজম' নাকি 'কাউন্টার নেপোটিজম' অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়ের ক্ষেত্রে কোনটা সত্যি?

নওয়াজ তাঁর নোটিসে স্পষ্ট জানিয়েছেন, আলিয়া যেন তাঁকে অপবাদ দেওয়ার চেষ্টা না করেন। আর তিনি যা বলেছেন, তা যেন লিখিত বিবৃতি দিয়ে তুলে নেন, নাহলে অভিনেতা আলিয়ার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেবেন।

আরো পড়ুন-সুশান্তের শেষকৃত্যে কেন আমন্ত্রণ জানানো হয়নি? প্রভাবশালীদের প্রশ্নের মুখে বন্ধু সন্দীপ

সম্প্রতি নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির বিরুদ্ধে বিচ্ছেদের মামলা দায়ের করেন তাঁর স্ত্রী আলিয়া সিদ্দিকি। নওয়াজের সঙ্গে একাধিক মহিলার বিবাহ বর্হিভূত সম্পর্ক রয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। পাশাপাশি নওয়াজ তাঁর গয়ে হাত না তুললেও, যে ধরনের চিতকার চেঁচামেচি করে অশান্তি করতেন, তা অসহ্য হয়ে যায়। পাশাপাশি অভিনেতার মা, দাদার বিরুদ্ধেও গার্হস্থ হিংসার অভিযোগ করেন আলিয়া। নওয়াজের দাদা সামাস আলিয়ার গায়ে হাতও তোলেন বলে করা হয় অভিযোগ। এসবের পাশাপাশি নওয়াজের কোনও বান্ধবী এলে, আলিয়া বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতেন। তাঁর সামনে দিয়েও নওয়াজের বান্ধবীরা তাঁর ঘর ঢুকতেন বলেও অভিযোগ করেন আলিয়া। সবকিছু মিলিয়ে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ তুলে বিচ্ছেদের মামলা দায়ের করেন তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী আলিয়া সিদ্দিকি।

নবভারত টাইমসের খবর অনুযায়ী, বিচ্ছেদের জন্য নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির কাছে ৩০ কোটির দাবি করেছেন তাঁর স্ত্রী। ১০ কোটি তাঁর নিজের জন্য। বাকি ২০ কোটি তাঁর দুই সন্তানের ভবিষ্যতের জন্য। বিপুল অঙ্কের অর্থের পাশাপাশি মুম্বইয়ের ইয়ারি রোডে ৪ বিএইচকে-র একটি ফ্ল্যাটও দাবি করেছেন আলিয়া।