Sushant এর বায়োপিকে রাজি নন বাবা, দিল্লি আদালতের আইনি নোটিস নির্মাতাদের

তিনি নেই, তাঁর মৃত্যু-তদন্তের এখনও কিনারা হয়নি। পরিবারও তাঁর মৃত্যু নিয়ে কোনও ‘ক্লোজার’ পায়নি। তারই মধ্যে ছেলের বায়োপিক তৈরির খবরে মুষড়ে পড়েছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুতের বাবা কে কে সিং (K K Singh)। বোন প্রিয়াঙ্কা সিং ছবির ট্রেলার দেখে টুইটে ক্ষোভে ফেটে পড়েন। হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, ‘দেখা হবে আদালতে’।

Updated By: Apr 20, 2021, 06:43 PM IST
Sushant এর বায়োপিকে রাজি নন বাবা, দিল্লি আদালতের আইনি নোটিস নির্মাতাদের

নিজস্ব প্রতিবেদন- তিনি নেই, তাঁর মৃত্যু-তদন্তের এখনও কিনারা হয়নি। পরিবারও তাঁর মৃত্যু নিয়ে কোনও ‘ক্লোজার’ পায়নি। তারই মধ্যে ছেলের বায়োপিক তৈরির খবরে মুষড়ে পড়েছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুতের বাবা কে কে সিং (K K Singh)। বোন প্রিয়াঙ্কা সিং ছবির ট্রেলার দেখে টুইটে ক্ষোভে ফেটে পড়েন। হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, ‘দেখা হবে আদালতে’।

তাই হল। সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) জীবনের উপর আধারিত ছবির নির্মাতাদের আইনি নোটিস পাঠাল দিল্লি আদালত (Delhi High Court)। সুশান্তের মৃত্যুর কিছুদিন পরই তাঁর পরিবারসূত্রে জানানো হয়েছিল, সুশান্তের জীবন নিয়ে, ছবি, ওয়েব সিরিজের জন্য তাঁর বাবা কে কে সিংয়ের কাছ থেকে অনুমোদন নিতে হবে। সরাসরি বায়োপিক (Biopic) বা তাঁর জীবনের উপর আধারিত কোনও কিছুই সুশান্তের বাবার অনুমতি ছাড়া তৈরি করা যাবে না। দিল্লি আদালতকে সুশান্তের বাবা জানিয়েছেন, তাঁর ছেলের মৃত্যুর তদন্ত এখনও চলছে। তাই কোনও সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়ার আগেই তাঁর সন্তানকে নিয়ে এমন কোনও প্রজেক্ট হোক, তা তিনি চান না।

আরও পড়ুন: Virat-Anushka র সঙ্গে ছোট্ট Vamika, সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুলে দিল ছবি

গত বছর ১৪ জুন বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া য়ায় সুশান্ত সিং রাজপুতকে। তাঁর মৃত্যু আত্মহত্যা (Suicide) নাকি হত্যা (Murder), তা নিয়ে প্রায় পাঁচ মাসের ও বেশি সময় ধরে চলেছে টানাপোড়েন। বলিউডের তাবড় তারকাকে জিজ্ঞাসাবাদ, সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী (Rhea Chakraborty) ও তাঁর পরিবারকে সুশান্তের পরিবার দ্বারা কাঠগড়ায় দাঁড় করানো, আর্থিক তছরূপের অভিযোগে ইডির (Enforcement Directorate) তদন্ত, মৃত্যু-রহস্যের কিনারা করতে সিবিআই (CBI), বলিউডে ড্রাগযোগ, তারকাদের মাদক নিয়ে জেরা এনসিবি-র (NCB)। এতকিছুর পরেও এখনও পরিবার মৃত্যু তদন্তের কোনও কিনারা পায় নি।

তাই সুশান্তের বায়োপিক নির্মাতাদের আইনি নোটিস পাঠিয়ে সব রকমের প্রোমোশনে স্থগিতাদেশ চেয়ে দিল্লি আদালতে গেল পরিবার। সুশান্তের বাবার দাবি, যে নির্মাতারা এই ছবিটি বানাচ্ছেন, তাঁরাও সন্দেহভাজনের তালিকায় রয়েছেন। সুশান্তের চরিত্রে কালি ছেটানোর জন্যই এমন উদ্যোগ বলে মনে করছেন তিনি।