`ধর্ষণ শুধুই ছেলেদের সাধারণ ভুল!` মুলায়মকে প্রশ্ন নির্ভয়ার ক্ষুব্ধ বাবা-মায়ের

২০১২ সালের ডিসেম্বর মাসে রাজধানীর রাস্তায় চলন্ত বাসে পৈশাচিক নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন তাঁদের একমাত্র মেয়ে। মৃত্যুর সঙ্গে তীব্র লড়াই করেও শেষ পর্যন্ত পরাজিত হয়ে ছিলেন তাঁদের সেই অসম সাহসী মেয়ে। সন্তান হারানোর যন্ত্রণা এখনও তাঁদের কুড়ে কুড়ে খায়। শুক্রবার সারা দেশের সঙ্গেও তাঁরাও বিস্মিত, ক্ষুব্ধ হলেন ধর্ষণে ছেলেদের ভূমিকা নিয়ে সমাজবাদী পার্টির নেতা মুলায়ম সিং যাদবের মন্তব্যে। তাঁরা দিল্লি গণধর্ষণ কাণ্ডের শিকার নির্ভয়ার বাবা-মা।

Updated By: Apr 11, 2014, 10:57 AM IST

২০১২ সালের ডিসেম্বর মাসে রাজধানীর রাস্তায় চলন্ত বাসে পৈশাচিক নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন তাঁদের একমাত্র মেয়ে। মৃত্যুর সঙ্গে তীব্র লড়াই করেও শেষ পর্যন্ত পরাজিত হয়ে ছিলেন তাঁদের সেই অসম সাহসী মেয়ে। সন্তান হারানোর যন্ত্রণা এখনও তাঁদের কুড়ে কুড়ে খায়। শুক্রবার সারা দেশের সঙ্গেও তাঁরাও বিস্মিত, ক্ষুব্ধ হলেন ধর্ষণে ছেলেদের ভূমিকা নিয়ে সমাজবাদী পার্টির নেতা মুলায়ম সিং যাদবের মন্তব্যে। তাঁরা দিল্লি গণধর্ষণ কাণ্ডের শিকার নির্ভয়ার বাবা-মা।

সমাজবাদী পার্টি সুপ্রিমোর বিতর্কিত মন্তব্যের পর নির্ভয়ার বাবা জানান ``মুলয়াম সিং যাদবের মত বর্ষীয়ান রাজনৈতিকের এই ধরণের মন্তব্য চিন্তার, দুঃখের। আমি সাধারণ মানুষের কাছে অনুরোধ করছি এই ধরণের লোকেদের যেন তাঁরা ক্ষমতায় না নিয়ে আসেন।`` নির্ভয়ার বাবার মতে করেন দেশ জুড়ে মেয়েদের নিরাপত্তার এত খানি খারাপ অবস্থার জন্য দায়ি এই ধরণের নেতারাই।

``একটি মেয়েকে টার্গেট করে তার উপর নৃশংস অত্যাচারকে কখনই সাধারণ ভুলের তকমায় আবদ্ধ করা যায় না।`` মন্তব্য ক্ষুব্ধ নির্ভয়ার মায়ের।

মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে দেশ উত্তাল। সেই সময়ই বিতর্কিত মন্তব্য সমাজবাদী পার্টি প্রধান মুলায়ম সিং যাদবের। বৃহস্পতিবার একটি সমাবেশের অনুষ্ঠানে যাদবকে সম্প্রতি মুম্বাই গণধর্ষণকাণ্ডে অভিযুক্তদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হয়। তার উত্তরে উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ছেলেদের ছোট্ট ভুলের সাজা কী ফাঁসি হওয়া উচিত? তিনি আরও বলেন, ক্ষমতায় এলে আইনের বদল ঘটিয়ে একাধিবার ধর্ষণের কাণ্ডে জড়িতদেরও ফাঁসির আদেশ রদ করবেন তিনি।

মুলয়াম সিং যাদবের এই মন্তব্যের পর দেশ জুড়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। সমাজকর্মী, সাধারণ মানুষ থেকে রাজনৈতিকরা সবাই এক সঙ্গে সমাজবাদী পার্টি সুপ্রিমোর বিরুদ্ধে ক্ষোভে গর্জে ওঠেন। কাছে দাবি করা হয় এই মন্তব্যের জন্য মুলায়মের বিরুদ্ধে এফআইআর করার দাবি জানানো হয় নির্বাচন কমিশনের কাছে।