শুরু হচ্ছে ভারতীয় বিজ্ঞানীদের তৈরি করোনার কার্যকরী ওষুধের চূড়ান্ত পর্বের হিউম্যান ট্রায়াল!

এই ট্রায়ালে ১৭ থেকে ২১ দিন সময় লাগতে পারে। তার পর এর ফলাফল সামনে আসবে। 

Edited By: সুদীপ দে | Updated By: Jul 9, 2020, 11:05 AM IST
শুরু হচ্ছে ভারতীয় বিজ্ঞানীদের তৈরি করোনার কার্যকরী ওষুধের চূড়ান্ত পর্বের হিউম্যান ট্রায়াল!
—প্রতীকী চিত্র।

নিজস্ব প্রতিবেদন: সম্প্রতি করোনার চিকিৎসায় সস্তার ‘জীবনদায়ী’ ওষুধ অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি স্টেরয়েড ‘ডেক্সামেথাসোন’ (Dexamethasone)-এর খোঁজ দিয়েছেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা। করোনার চিকিৎসায় প্রয়োগের ক্ষেত্রে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)-এর ‘সবুজ সংকেত’ও। ভারতে করোনার চিকিৎসায় ইতিমধ্যেই রেমডেসিভিরের প্রয়োগ শুরু হয়েছে। এর মধ্যেই শুরু হচ্ছে ভারতীয় বিজ্ঞানীদের তৈরি করোনার চিকিৎসায় কার্যকরী ওষুধের চূড়ান্ত পর্বের হিউম্যান ট্রায়াল!

হায়দরাবাদের ‘লক্ষাই লাইফ সায়েন্স’ (Laxai Life Science) এর তৈরি বিশেষ অ্যান্টি ভাইরাল ওষুধ MUCOVIN-এর চূড়ান্ত পর্বের হিউম্যান ট্রায়াল শুরু হতে চলেছে। ইতিমধ্যেই ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়ার (DCGI) থেকে হিউম্যান ট্রায়ালের অনুমতি পেয়ে গিয়েছে সংস্থা। ভারতের বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ (CSIR) এই পরিচালনায় MUCOVIN-এর চূড়ান্ত পর্বের হিউম্যান ট্রায়াল সম্পন্ন হবে।

জানা গিয়েছে, বিভিন্ন বয়সের মোট ৩০০ জন করোনা আক্রান্তকে ৭৫ জনের চারটি দলে ভাগ করে MUCOVIN-এর পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হবে। এই ট্রায়ালে ১৭ থেকে ২১ দিন সময় লাগতে পারে। তার পর এর ফলাফল সামনে আসবে। সংস্থার দাবি, এর আগে MUCOVIN-এর প্রাথমিক পর্যায়ে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে করোনার বিরুদ্ধে বেশ ভাল ফল মিলেছে। তার পরই MUCOVIN-এর হিউম্যান ট্রায়ালের অনুমতি মিলেছে।

আরও পড়ুন: শুরু হচ্ছে ভারতের দ্বিতীয় করোনা টিকার হিউম্যান ট্রায়াল, শেষ হচ্ছে তিন মাসের মধ্যেই!

ভারতের বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ (CSIR)-এর ডিরেক্টরেট জেনারেল ডঃ শেখর এস মানদে (Dr Shekhar C Mande) বলেন, “এই ওষুধ করোনার চিকিৎসায় একটি অত্যন্ত কার্যকরী বিকল্প যা দ্রুত ভাইরাসে আক্রান্তদের সারিয়ে তোলার ক্ষেত্রে সহায়ক হয়ে উঠবে।”