যারা চ্যালেঞ্জ করছে, তাদের পাল্টা চ্যালেঞ্জ করব, ২১শে-এর আগে হুঙ্কার পার্থর

লোকসভা ভোটে বিপর্যয়ের পর তৃণমূলের প্রথম বড় সভা।

Updated By: Jul 19, 2019, 07:27 PM IST
যারা চ্যালেঞ্জ করছে, তাদের পাল্টা চ্যালেঞ্জ করব, ২১শে-এর আগে হুঙ্কার পার্থর

নিজস্ব প্রতিবেদন: সাম্প্রদায়িক রাজনীতির বিরুদ্ধে মুখ মমতাই। যারা আমাদের চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছেন, তাদের পাল্টা চ্যালেঞ্জ জানাব। ২১ জুলাইয়ের শহিদ স্মরণসভা নিয়ে এমন হুঙ্কার দিলেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।        

লোকসভা ভোটে বিপর্যয়ের পর তৃণমূলের প্রথম বড় সভা। ২১ জুলাই প্রতিবারই নিয়ম করে শহিদদের স্মরণ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গতবারের সভা ছিল অত্যন্ত তাত্পর্যপূর্ণ। লোকসভা ভোটে ৪২-এ ৪২ করার ডাক দিয়েছিলেন নেত্রী। কিন্তু তা হয়নি। ১৮টি আসন নিয়ে রীতিমতো তৃণমূলের চ্যালেঞ্জার হয়ে উঠেছে বিজেপি। এমন প্রেক্ষাপটে ২১ জুলাইয়ের সভা হয়ে উঠেছে তৃণমূলের কাছে শক্তি প্রদর্শনের মঞ্চ। আর সে কারণে রাজ্যের প্রতিটি জেলা থেকে যতটা বেশি সম্ভব ভিড় আনতে চাইছে নেতৃত্ব। সেটা বুঝিয়ে দিলেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও। বলেন,'আমাদের যারা চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছে, তাদের এই সভা থেকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ জানাবো'।    
      
জঙ্গলমহল ও উত্তরবঙ্গে এবার বড় ধাক্কা খেয়েছে তৃণমূল। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের দাবি, রাজ্যের ওই দুটি অঞ্ল থেকে কর্মীরা আসবেন। তাঁর কথায়, 'আজ সকালেও কথা হয়েছে। পাহাড়, জঙ্গলের সব জায়গা থেকে লোক আসবেন। বন্যা উপেক্ষা করেও উত্তরবঙ্গ থেকে আসছেন মানুষ'। তৃণমূল জাতীয় শিক্ষানীতির প্রতিবাদ করবেও বলেও জানান তৃণমূলের মহাসচিব। 

ইভিএম নয়, ব্যালট ফেরতের দাবিতে এবার ২১ জুলাইয়ের শহিদ স্মরণ সভা করতে চলেছেন তৃণমূল নেত্রী। ইতিমধ্যেই গোটা রাজ্যজুড়ে পড়েছে ফ্লেক্স ও ব্যানার। প্রচারও চলছে জোরদার। আসন্ন ২১ জুলাইয়ে রেকর্ড ভিড় হতে চলেছে বলে দাবি তৃণমূল নেতৃত্বের। 

আরও পড়ুন- এয়ারপোর্ট থেকে নিউ বারাকপুর পর্যন্ত মাটির নীচ দিয়ে ছুটবে মেট্রো, সিদ্ধান্ত হল নবান্নে