লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা থাকছেন Adhir-ই; বললেন,'সিপিএমের সঙ্গে জোট ভাঙিনি'

অধীরের লোকসভার কংগ্রেস দলনেতার পদ থাকা নিয়ে জল্পনা ছড়িয়েছিল।

Updated By: Jul 15, 2021, 12:05 AM IST
লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা থাকছেন Adhir-ই; বললেন,'সিপিএমের সঙ্গে জোট ভাঙিনি'

নিজস্ব প্রতিবেদন: লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা থাকছেন অধীর চৌধুরীই (Adhir Chowdhury)। এমনটাই সূত্রের খবর। সনিয়া গান্ধীর সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠকের পর বুধবার দলীয় বৈঠক ডাকেন প্রদেশ সভাপতি। ভোটে ভরাডুবি নিয়ে আলোচনা হলেও বৈঠকে দেখা গেল না মান্নানের মতো বর্ষীয়ান নেতাদের। ফলে প্রদেশ কংগ্রেস অন্দরে সদ্ভাব কতটা রয়েছে তা নিয়ে একটা প্রশ্ন রয়েই গেল।        

সংসদীয় নীতি নির্ধারক কমিটির বৈঠক। সনিয়া গান্ধীর নেতৃত্বে এই বৈঠকে ভার্চুয়ালি হাজির ছিলেন অধীর চৌধুরী (Adhir Chowdhury)। বৈঠকের আগে অধীরের লোকসভার কংগ্রেস দলনেতার পদ থাকা নিয়ে জল্পনা ছড়িয়েছিল। ১৯ জুলাই থেকে শুরু হওয়া বাদল অধিবেশনে ফের কি দলনেতার ভূমিকায় দেখা যাবে অধীরকে? সূত্রের খবর, যাবতীয় জল্পনার অবসান ঘটিয়ে অধীরেই আস্থা রেখেছেন সনিয়া। এদিন ভোটের পর প্রথম হাইকমান্ডের সঙ্গে বৈঠক হয় প্রদেশ কংগ্রেসের। আলোচনায় ওঠে ভোট ভরাডুবি প্রসঙ্গ। অধীর চৌধুরী বলেন,'নিজেরা চর্চা করছি। ভয়ঙ্করভাবে পরাজিত হয়েছি। কংগ্রেস কর্মীরা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। এখান থেকে দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। প্রদেশ নেতৃত্ব লিখিত পরামর্শও দিতে পারেন।'

অধীর যখন ঘুরে দাঁড়ানোর কথা বলছেন, কাকতালীয়ভাবে তখনই কার্যত বিদ্রোহ ঘোষণা করে দলীয় পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন সোমেন পুত্র রোহন মিত্র। তবে বিষয়টির গুরুত্ব দিচ্ছেন না প্রদেশ সভাপতি। তাঁর মন্তব্য,'সোমেন মিত্রকে শ্রদ্ধা করি। তাঁর পুত্র স্নেহের। সে কী করবে, তাঁর ব্যক্তিগত ব্যাপার। তার জবাব দেব না।'   

উপনির্বাচনে ভবানীপুর আসনে লড়া নিয়ে আলোচনা চূড়ান্ত হয়নি। কিন্তু বাকি আসনে লড়ার কথা জানিয়েছেন অধীর (Adhir Chowdhury)। বিধানসভা ভোটে আইএসএফের সঙ্গে যে কংগ্রেসের জোট হয়নি তা আরও একবার স্পষ্ট করার চেষ্টা করেছেন অধীর। তাঁর কথায়,'আগেও বলেছি সিপিএম পার্টির সঙ্গে আলোচনা করেছি। এখনও জোট ভাঙিনি। আবারও আলোচনা করব।'

এদিন দলীয় বৈঠকের ডাক দিয়েছিলেন অধীর। কিন্তু সেখানে আবু হাসেম খান চৌধুরী, সুনীল তিরকে, সুখবিলাস ভার্মার মতো কয়েকজন ছাড়া আর কাউকে দেখা যায়নি। কেন আবদুল মান্নানের মতো শীর্ষ নেতারা বৈঠক এড়ালেন তা নিয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি প্রদেশ সভাপতি। 

আরও পড়ুুন- কলকাতা হাইকোর্ট থেকে সরানো হোক নন্দীগ্রাম মামলা, সুপ্রিম কোর্টে আবেদন Suvendu-র

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)