সোনা চুরি করে ধরা পড়েছেন, কাগজ দেখাতে পারেননি, কটাক্ষ দিলীপের

'কাগজ আমরা দেখাব না'- গলা মিলিয়েছেন সব্যসাচী চক্রবর্তী, অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়, কঙ্কনা সেনশর্মা, ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়, চিত্রাঙ্গদা, তিলোত্তমা সেন ও রূপম ইসলামরা।

Reported By: অঞ্জন রায় | Updated By: Jan 15, 2020, 04:57 PM IST
সোনা চুরি করে ধরা পড়েছেন, কাগজ দেখাতে পারেননি, কটাক্ষ দিলীপের

নিজস্ব প্রতিবেদন: নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন ও নাগরিকপঞ্জির বিরোধিতায় এক সুরে প্রতিবাদ করেছে বাংলার শিল্পীমহল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিয়োয় সকলের মুখে এক রা,'আমরা কাগজ দেখাবো না।' বাম মনোভাবাপন্ন বুদ্ধিজীবীদের কটাক্ষ করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বলেন,''বামপন্থীরাই প্রচার করছেন। অনেকের কাছে সত্যি সত্যিই কাগজ নেই। সোনা চুরি করে ধরা পড়েছেন, কাগজ দেখাতে পারেননি।''

'হম কাগজ নেহি দিখায়েঙ্গে'-  কবিতার মাধ্যমে প্রতিবাদ করেছিলেন গীতিকার, কবি ও স্ট্যান্ড আপ কমেডিয়ান বরুণ গ্রোভার। ওই কবিতাটির বাংলা অনুবাদ গলা মিলিয়েছেন সব্যসাচী চক্রবর্তী, অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়, কঙ্কনা সেনশর্মা, ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়, চিত্রাঙ্গদা, তিলোত্তমা সেন ও রূপম ইসলামরা। ভিডিয়োটি টুইট করেন স্বরাজ ভারতের জাতীয় সভাপতি যোগেন্দ্র যাদব। এরপরই পাল্টা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার শুরু করেছে বিজেপি। অভিনেত্রী স্বস্তিকাকে নিয়ে অশালীন মিম ছড়ানোর অভিযোগও উঠেছে গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে। এদিন নাম না করে দিলীপ বলেন,''সোনা চুরি করে ধরা পড়েছেন, কাগজ দেখাতে পারেননি। বিদেশে গিয়ে নাক-কান কাটিয়ে দিয়েছেন। বিমানবন্দরে ঢুকলে বিনা টিকিটে ঢুকতে দেবে? বিনা টিকিটে ট্রেনে উঠতে দেবে? বিনা রেশন কার্ডে রেশন পাওয়া যায়? ননসেন্সগুলো জানেই না।'' 

দিলীপ আরও বলেন,''নেমকহারাম। লোককে বোকা বানানো হচ্ছে। কাগজ অনেকের কাছে নেই। ধরা পড়বে। মিথ্যা প্রচারে মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। পরের নির্বাচন লড়াইয়ের মতো ক্ষমতা থাকবে না।''

দিন কয়েক আগে ১ মিনিট ২৭ সেকেন্ডের ভিডিয়ো পোস্ট করেন যোগেন্দ্র যাদব। শুরুতেই অভিনেতা সব্যসাচী চক্রবর্তী বলছেন,''শাসক আসবে, শাসক যাবে কাগজ আমরা দেখাবো।'' এরপর স্বস্তিকা বলেন,'' ভালবাসা ও বিপ্লব বুকে ভয়েতে পিছু হটব না, কাগজ আমরা দেখাব না। '' 

প্রসঙ্গত, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন গত শুক্রবার গোটা দেশে চালু করার নির্দেশিকা দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। রবিবার বেলুড়ে প্রধানমন্ত্রী আরও একবার স্পষ্ট করেন, ''নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের সঙ্গে এদেশের নাগরিকদের কোনও সমস্যা নেই। এটা নাগরিকত্ব দেওয়ার আইন, নাগরিকত্ব ছিনিয়ে নেওয়া নয়। মানুষকে ভুল বুঝিয়ে রাজনীতি করা হচ্ছে।'' বিজেপির বক্তব্য, দেশের নাগরিকদের কাগজ দেখানোর কোনও প্রশ্নই নেই। 

 

আরও পড়ুন- পরপর বিতর্কিত মন্তব্য, দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে একাধিক FIR দায়ের DYFI-এর