আগে ধার চাইলে মুখ গোমড়া হত দোকানির, এখন ধারেই ক্রেতাকে স্বাগত!

মোদির নোট বাতিলের ধাক্কায় ধার বাজারেও উলটপুরাণ। আগে ধার চাইলেও মুখ গোমড়া হয়ে যেত দোকানিদের। এখন বিক্রি বাড়াতে ধারেই ক্রেতাকে স্বাগত জানাচ্ছে বিক্রেতাকূল। ধারের ফর্দ বড় হলে তবেই টাকা মেটাচ্ছেন ক্রেতারা। অচল টাকায় অচল প্রবাদ। নোট বাতিলের ধাক্কায় প্রায় ভ্যানিশ দোকানের পুরনো ক্যাপশন। উপায় নেই। বাজারে যে ঘুরছে দুহাজারের নোট। খুচরো নোটের বড়ই আকাল। বাগবাজারের এই চায়ের দোকানের কথাই ধরুন। সকাল হলেই চায়ের দোকানে বেজায় ভিড়। কিন্তু সবার পকেটেই বড় বড় নোট। ক্রেতাকেও ছাড়তে নারাজ বিক্রেতা। তাই লম্বা হচ্ছে ধারের ফর্দ।

Updated By: Dec 5, 2016, 07:20 PM IST
আগে ধার চাইলে মুখ গোমড়া হত দোকানির, এখন ধারেই ক্রেতাকে স্বাগত!

ওয়েব ডেস্ক: মোদির নোট বাতিলের ধাক্কায় ধার বাজারেও উলটপুরাণ। আগে ধার চাইলেও মুখ গোমড়া হয়ে যেত দোকানিদের। এখন বিক্রি বাড়াতে ধারেই ক্রেতাকে স্বাগত জানাচ্ছে বিক্রেতাকূল। ধারের ফর্দ বড় হলে তবেই টাকা মেটাচ্ছেন ক্রেতারা। অচল টাকায় অচল প্রবাদ। নোট বাতিলের ধাক্কায় প্রায় ভ্যানিশ দোকানের পুরনো ক্যাপশন। উপায় নেই। বাজারে যে ঘুরছে দুহাজারের নোট। খুচরো নোটের বড়ই আকাল। বাগবাজারের এই চায়ের দোকানের কথাই ধরুন। সকাল হলেই চায়ের দোকানে বেজায় ভিড়। কিন্তু সবার পকেটেই বড় বড় নোট। ক্রেতাকেও ছাড়তে নারাজ বিক্রেতা। তাই লম্বা হচ্ছে ধারের ফর্দ।

আরও পড়ুন গলি ক্রিকেটে ডান হাতে ব্যাট করেও সৌরভের দাদাগিরি!

চায়ের দোকান থেকে সেলুন। বাদ নেই মাছ বাজারও। সেখানেও ধারের জয়জয়কার। ধারের কারবারি দেখলে আগে বিক্রেতা যেখানে পেন্নাম ঠুকতেন। এখন হাসতে হাসতেই ধার দিচ্ছেন বিক্রেতারা। উপায় নেই ব্যবসাতো টেকাতে হবে।

আরও পড়ুন  যুবরাজ এবং হরভজন 'ফেকু' বললেন এই পাকিস্তানি ক্রিকেটারকে!