'শিউরে উঠতে হয়!' ডাক্তারকে চড় মারার ঘটনায় দোষীর শাস্তির দাবি নির্মল মাজির

এমন ঘটনা ঠেকাতে আইন আনতে হবে। কিন্তু কেন্দ্র সেই সব নিয়ে ভাবছেই না।

Updated By: Feb 20, 2020, 04:23 PM IST
'শিউরে উঠতে হয়!' ডাক্তারকে চড় মারার ঘটনায় দোষীর শাস্তির দাবি নির্মল মাজির

নিজস্ব প্রতিবেদন : NRS-কাণ্ডের পুনরাবৃত্তি এবার CMRI-তে। প্রসূতি মৃত্যুকে কেন্দ্র করে পুলিসের সামনেই চিকিৎসক নিগ্রহের অভিযোগ উঠল মৃতার পরিবারের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় তীব্র ধিক্কার জানিয়েছে চিকিৎসক মহল।

ডাক্তারকে চড় মারার ঘটনায় এসএসকেএম-এর রোগীকল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান নির্মল মাজি বলেন, "একবালপুরের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে ডাক্তারের উপর হামলা করা, প্রকাশ্যে চড় মারা, খুবই মর্মান্তিক ব্যাপার। খুবই দুঃখজনক ব্যাপার। শিউরে উঠতে হয়। যে মানুষটা কর্তব্যরত চিকিৎসক, সুশীল সমাজে তাঁর দোষ-গুণ বিচার হবে। সেটা বিচারবিভাগীয় জায়গায় বিচার হতে পারে। পশ্চিমবঙ্গ মেডিক্যাল কাউন্সিলে বিচার হতে পারে। হাসপাতালের দোষ-গুণ হেলথ রেগুলেটরি কমিশনে বিচার হতে পারে। বিচারের অনেক জায়গা রয়েছে। কিন্তু ওইভাবে প্রকাশ্যে জনসম্মুখে কর্মরত চিকিৎসকের উপর এই ধরনের হামলা, চড় মারা থেকে শুরু করে সংঘবদ্ধভাবে হামলা, এ জিনিস কোনও সভ্য সমাজের মানুষ মেনে নিতে পারে না। আমি এর তীব্র নিন্দা করছি। ধিক্কার জানাচ্ছি। প্রকৃত দোষীর সিসিটিভি ফুটেজ রয়েছে। পুলিসের উপস্থিত রয়েছে। প্রকৃত দোষীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাইছি।"

প্রসূতি মৃত্যুতে ফের ডাক্তারের গায়ে হাত রোগীর আত্মীয়ের। বারবার কেন একই ঘটনা ঘটছে? একবালপুর কাণ্ডের নিন্দায় সরব হন IMA সভাপতি শান্তনু সেনও। এমন ঘটনা ঠেকাতে আইন আনতে হবে। কিন্তু কেন্দ্র সেই সব নিয়ে ভাবছেই না। মন্তব্য করেন IMA সভাপতি। চিকিত্সক কুণাল সরকার বলেন, ডাক্তারকে মারধর করে কোনও সমাধান করা যায় না। এ ঘটনা দুঃখজনক।

প্রসঙ্গত, প্রসূতি মৃত্যু ঘিরে এদিন সাতসকালে ধুন্ধুমার বাধে একবালপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে। চিকিৎসকের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগে এরপরই সকাল থেকে হাসপাতালে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে মৃতার পরিবারের লোকেরা। দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়ায় হাসপাতালে। পরিবার অভিযোগ করে, ঘুমের ওষুধের অতিরিক্ত ডোজের জন্যই মৃত্যু হয়েছে পিঙ্কি ভট্টাচার্যর। অন্যদিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পাল্টা দাবি করে, বারবার যোগাযোগ করা হলেও রোগীর পরিবারের লোকজন অনেক পরে হাসপাতালে আসেন। সেইসময়ে উপস্থিত ছিলেন চিকিত্সক। বিনা প্ররোচনায় পরিবারের লোকজন তাঁর উপর চড়াও হন বলেও পাল্টা অভিযোগ করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন, পুলিসের সামনেই ডাক্তারকে সপাটে চড়, প্রসূতি মৃত্যু ঘিরে ধুন্ধুমার একবালপুরে

আরও পড়ুন, ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন স্বামী, প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে চুপিসাড়ে ঢোকেন স্ত্রী, তারপরই 'কুকীর্তি'!

এরপরই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ একটি সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ্যে আনে। যেখানে দেখা যায়, মৃতার পরিবারের উত্তেজিত আত্মীয়দের সঙ্গে কথা বলছেন চিকিৎসক বাসব মুখোপাধ্যায়। সেইসময় কথা বলার মাঝখানেই সোফায় বসে থাকা প্রসূতির স্বামী তপেন ভট্টাচার্য উঠে গিয়ে সপাটে চড় কষান ডাক্তারের গালে। ফুটেজ সামনে আসতেই জোর চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। চিকিৎসক নিগ্রহের এই ঘটনা যে কোনওভাবেই বরদাস্ত করা হবে না, এক বিবৃতি জারি করে তা স্পষ্ট করে দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।