Pegasus কাণ্ডে বড় পদক্ষেপ Mamata-র, প্রথম রাজ্য হিসেবে পশ্চিমবঙ্গে তৈরি হল তদন্ত কমিশন

কমিশনের দয়িত্বে রয়েছেন ২ অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি। 

Updated By: Jul 26, 2021, 01:29 PM IST
Pegasus কাণ্ডে বড় পদক্ষেপ Mamata-র, প্রথম রাজ্য হিসেবে পশ্চিমবঙ্গে তৈরি হল তদন্ত কমিশন

নিজস্ব প্রতিবেদন: Pegasus স্পাইওয়্যারের মাধ্যমে আড়ি পাতা কাণ্ডে বড় পদক্ষেপ নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। প্রথম কোনও রাজ্য হিসেবে পশ্চিমবঙ্গে গঠিত হল তদন্ত কমিশন। মন্ত্রিসভার জরুরি বৈঠকে কমিশন গঠনের প্রস্তাবে সিলমোহর পড়ল। কমিশনের দায়িত্বে রয়েছেন ২ অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি। তাঁরা হলেন বিচারপতি এম বি লকুর এবং বিচারপতি জ্য়োতির্ময় ভট্টাচার্য। এদিন কেন্দ্রকে তোপ দেগে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'কেউ যদি না জাগে, তাঁকে জাগাতে হয়। আশা করব আমাদের পদক্ষেপ বাকিদেরও জাগিয়ে তুলবে'।

আজ দুপুরেই দিল্লি উড়ে যাবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজধানীতে একগুচ্ছ কর্মসূচি রয়েছে তাঁর। তবে, দিল্লি রওনা দেওয়ার আগে সোমবার মন্ত্রিসভার জরুরি বৈঠক ডাকেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই এই বিচার বিভাগীয় কমিশন গঠনের সিদ্ধান্তে সিলমোহর পড়ে। এরপর সাংবাদিক বৈঠকে চাঁচাছোলা ভাষায় কেন্দ্রকে তোপ দাগেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, 'Pegasus ব্যবহার করে সাংবাদ মাধ্যম, আইনজ্ঞ মহল, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, নাগরিক সমাজকে নজরবন্দি করে রাখা হয়েছে। গত এক সপ্তাহ ধরে সংসদ চলাকালীন আমরা ভেবেছিলাম, সুপ্রিম কোর্টের কোনও বিচারপতিকে দিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার নিশ্চয়ই তদন্ত করাবে। সেক্ষেত্রে মানুষ বিচার পাবে। কিন্তু আমরা যখন দেখলাম সরকারের কোনও ভ্রুক্ষেপ নেই। তখন দিল্লি যাওয়ার আগে আমি বিচার বিভাগীয় কমিশন তৈরি করে দিলাম।'   

আরও পড়ুন: গরুপাচারকাণ্ডে বিস্ফোরক তথ্য, ED-কে সামাল দিতে BSF কর্তাদের থেকেই টাকা নিতেন সুদীপ্ত!

আরও পড়ুন: দিল্লি গেলেন দিলীপ, 'চামচাগিরি-দাসত্ব করে জীবন কাটান', কটাক্ষ সৌগতর

মোদীবিরোধী আন্দোলনের সুর বেঁধে দিতে সোমবার বিকেলে দিল্লি যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রধানমন্ত্রী-রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করার পাশাপাশি, কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী এবং NCP প্রধান শরদ পাওয়ারের সঙ্গেও তাঁর বৈঠকের সম্ভাবনা রয়েছে। ২৮ জুলাই তৃণমূলের সংসদীয় কমিটির বৈঠকও ডেকেছেন ওই কমিটির চেয়ারম্যান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে পারেন আম আদমি পার্টির নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এছাড়া তাঁর সঙ্গে দেখা করতে পারে ডিএমকে, সমাজবাদী পার্টি, আরজেডি, শিবসেনা নেতৃত্ব।