ভোপালে দিগ্বিজয়ের সিংয়ের বিরুদ্ধে দাঁড়াচ্ছেন প্রজ্ঞা! জল্পনা বিজেপির অন্দরে

জি় নিউজ়কে দেওয়া সাক্ষাত্কারে প্রজ্ঞা জানিয়েছেন, দিগ্বিজয়ের বিরুদ্ধে ভোটে লড়া কঠিন হবে না তাঁর। কারণ হিসাবে বলেন, তিনি একজন জাতীয়তাবাদী।

Updated By: Apr 16, 2019, 03:56 PM IST
ভোপালে দিগ্বিজয়ের সিংয়ের বিরুদ্ধে দাঁড়াচ্ছেন প্রজ্ঞা! জল্পনা বিজেপির অন্দরে
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: মধ্য প্রদেশের ভোপাল লোকসভা কেন্দ্র বিজেপির দুর্গ বলেই পরিচিত। এ বারে ওই কেন্দ্রটি নিজেদের দখলে রাখতে হেভিওয়েট প্রার্থী দিগ্বিজয় সিং-কে দাঁড় করিয়েছে কংগ্রেস। জ়ি নিউজ়ের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিজেপি সূত্রে খবর ওই কেন্দ্রে দিগ্বিজয়ের বিরুদ্ধে বিজেপির টিকিটে দাঁড়াতে পারেন প্রজ্ঞা সিং ঠাকোর। যদিও প্রজ্ঞার ভোটে লড়া নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা। যদিও, মালেগাঁও বিস্ফোরণ মামলায় অন্যতম অভিযুক্ত প্রজ্ঞার বিরুদ্ধে উপযুক্ত প্রমাণ্য না মেলায় মুক্তি দেয় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনআইএ-র বিশেষ আদালত। 

জি় নিউজ়কে দেওয়া সাক্ষাত্কারে প্রজ্ঞা জানিয়েছেন, দিগ্বিজয়ের বিরুদ্ধে ভোটে লড়া কঠিন হবে না তাঁর। কারণ হিসাবে বলেন, তিনি একজন জাতীয়তাবাদী। যেখানে দেশের বিরুদ্ধে কথা বলে কংগ্রেস। এমনকি প্রজ্ঞার অভিযোগ, ইদানীং মন্দিরে দেখা যাচ্ছে দিগ্বিজয়কে। তাঁর দেখনদারি হিন্দুত্ব, মানুষ জানে। ভোপাল থেকেই কেন? প্রজ্ঞাকে তো ‘বহিরাগত’ বলছে কংগ্রেস, কী বলবেন? এই প্রশ্নে প্রজ্ঞা বলেন, ১৬ বছর বয়স থেকে ভোপালে বাস করছি। এখানকার প্রত্যেকটি পরিবার আমায় চেনে। তাঁদের সঙ্গে ভাল সম্পর্ক রয়েছে।

আরও পড়ুন- সব মোদীই চোর! রাহুলের মন্তব্যে মানহানি মামলা করার হুঁশিয়ারি বিজেপির

প্রজ্ঞার আরও ব্যাখ্যা, এবিভিপি-র সংগঠন দেখার সময় গোটা ভোপাল ঘুরে বেড়িয়েছি। কংগ্রেসকে তোপ দেগে তাঁর অভিযোগ, ষড়যন্ত্র করে ৬ বছর রাজনীতিতে থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় তাঁকে। ভোপালের মানুষ প্রজ্ঞাকে ভোটে লড়তে দেখতে চাইছে বলে দাবি তাঁর। উল্লেখ্য, ২০০৮ সালে মালেগাঁও বিস্ফোরণে গ্রেফতার হলে লাইমলাইটে চলে আসেন প্রজ্ঞা সিং ঠাকোর।

১৯৮৯ সাল থেকে ভোপাল লোকসভা কেন্দ্র এক বারও দখল করতে পারেনি কংগ্রেস। ২০১৪ সালে বিজেপি প্রার্থী অলোক সঞ্জর ৩.৭ লক্ষ ভোটের ব্যবধানে জেতেন। সম্প্রতি বিধানসভা নির্বাচনে এই লোকসভার ৮টি বিধানসভা আসনে মাত্র ৩টি পায় কংগ্রেস। বিজেপির দখলে ছিল ৫টি।