রাজ্যসভায় আজ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পেশ অমিত শাহের, ম্যাজিক ফিগার নিয়ে নিশ্চিত বিজেপি!

শিবসেনা(৩) বিজেপির চিন্তা কিছুটা বাড়ালেও অন্য অনেক দলের সমর্থন আদায় করতে পারবে বিজেপি

Updated By: Dec 11, 2019, 09:36 AM IST
রাজ্যসভায় আজ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পেশ অমিত শাহের,  ম্যাজিক ফিগার নিয়ে নিশ্চিত বিজেপি!

নিজস্ব প্রতিবেদন: লোকসভায় পাস হয়ে যাওয়ার পর আজ বুধবার দুপুরে রাজ্যসভায় পেশ হচ্ছে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। এনিয়ে বিরোধিতায় উত্তাল উত্তরপূর্ব ভারতের রাজ্যগুলি। তার থেকেও বড় প্রশ্ন, সংসদের উচ্চকক্ষ থেকে কি এই বিল পাস করিয়ে আনতে পারবে সরকার ? সরকার মহলের খবর, বিল পাস করানোর ব্যাপারে অনেকটাই নিশ্চিত তারা।

আরও পড়ুন-পদ্মার ইলিশ কিনলে পেঁয়াজ ফ্রি, জম্পেশ বিজ্ঞাপনে লাফিয়ে বাড়ল বিক্রি

রাজ্যসভায় আসনসংখ্যা ২৪৫। বর্তমানে রয়েছেন ২৪০ জন। ৫টি আসন ফাঁকা পড়ে রয়েছে।  ফলে ১২১ সদের সমর্থন পেলে উতরে যাবে এই বিল।  ফলে এনিয়ে শুরু হয়ে গিয়েছে হিসেবনিকেশ।  এখন রাজ্যসভায় বিজেপির সাংসদসংখ্যা ৮৩ । ফলে তাকে জোগাড় করতে হবে আরও ৩৮ সাংসদের সমর্থন।  রাজনৈতিক মহলের খবর ওই ৩৮ সাংসদের সমর্থন জোগাড় করে নিতে পারবে সরকার। এনিয়ে সবকিছু ঠিকঠাক হয়ে গিয়েছে।

শিবসেনা(৩) বিজেপির চিন্তা কিছুটা বাড়ালেও অন্য এনেক দলের সমর্থন আদায় করতে পারবে বিজেপি।  লোকসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে সমর্থন করলেও রাজ্যসভায় সমর্থন দেওয়া ব্যাপারে মাথা নাড়ছে উদ্ধব ঠাকরের দল।  তবে সেই অবস্থা কাটিয়ে উঠতে বিজেপিকে সাহায্য করবে এআইএডিএমকে(১১), জেডিইউ(৬), শিরোমনি অকালি দল(৩) ও  ১৩ অন্যান্য সাংসদ। সবেমিলিয়ে ১১৬।  এছাড়াও বিজেপিকে সমর্থন করতে পারে বিজু জনতা দল(৭), ওয়াইএসআর কংগ্রেস(২), টিডিপি(২)।  মোট ১২৭ সাংসদ। এই হিসেব ঠিক থাকলে রাজ্যসভা থেকে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বের করে নেওয়া এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা সরকারের।

আরও পড়ুন-পদ্মার ইলিশ কিনলে পেঁয়াজ ফ্রি, জম্পেশ বিজ্ঞাপনে লাফিয়ে বাড়ল বিক্রি

অন্যদিকে, বিরোধী শিবিরে রয়েছে ডিএমকে(৫), আরজেডি(৪), এনসিপি(৪), কেসি(১), পিএমকে(১), আইইউএমএল(১), এমডিএমকে(১)। মোট  ১৭।  এছাড়াও টিএমসি(১৩), সপা(৯), সিপিএম(৫), বসপা(৪), আপ(৩), পিডিপি(২), সিপিআই(১), জেডিএস(১), টিআরএস(৬) ভোট দেবে বিলের বিরুদ্ধে।  ইউপিএ –সহ সব বিরোধীদের ধরলে সরকার বিরোধী শিবিরের সদস্য সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াবে ১০৮। ফলে তাদের প্রয়োজন হবে আরও ১৩ সাংসদের সমর্থন।

এই হিসেবের কথা মাথা রাখলে রাজ্যসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস করানো সরকারের পক্ষে অসম্ভব নয়।  শিবসেনা সরকারের বিরুদ্ধে ভোট দিলেও হেসেখেলে বেরিয়ে যাবে সরকার। সেক্ষেত্রে বড় কোনও অঘটন ঘটলেই একমাত্র সরকারের ক্ষমতা ১২৭ থেকে ১২১ এর নীচে নেমে যেতে পারে। এটা হতে পারে নির্দল সহ অন্যান্য ১৩ সাংসদের একাংশ বেঁকে বসলেই।  তবে এনিয়ে অনেকটাই নিশ্চিত সরকার।