অখিলেশ-প্রশান্ত কিশোর গোপন বৈঠকই উত্তরপ্রদেশে কং-সপা জোটের জল্পনা বাড়াচ্ছে

উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে কি সমাজবাদী পার্টি (সপা) ও কংগ্রেসের জোট হচ্ছেই? অন্তত পরিস্থিতি যেদিকে গড়াচ্ছে তাতে তো তাই অনুমান করছেন রাজনীতির কারবারিরা। এই অনুমান আরও উস্কে দিল কাল রাতে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী তথা মুলায়মপুত্র অখিলেশের সঙ্গে উত্তরপ্রদেশে কংগ্রেসের নির্বাচনী পরিকল্পনার দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রশান্ত কিশোরের (পিকে) ম্যারাথন বৈঠক থেকে।

Updated By: Nov 8, 2016, 10:30 AM IST
অখিলেশ-প্রশান্ত কিশোর গোপন বৈঠকই উত্তরপ্রদেশে কং-সপা জোটের জল্পনা বাড়াচ্ছে

ওয়েব ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে কি সমাজবাদী পার্টি (সপা) ও কংগ্রেসের জোট হচ্ছেই? অন্তত পরিস্থিতি যেদিকে গড়াচ্ছে তাতে তো তাই অনুমান করছেন রাজনীতির কারবারিরা। এই জল্পনা আরও উস্কে দিল কাল রাতে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী তথা মুলায়মপুত্র অখিলেশের সঙ্গে উত্তরপ্রদেশে কংগ্রেসের নির্বাচনী পরিকল্পনার দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রশান্ত কিশোরের (পিকে) ম্যারাথন বৈঠক।

গত রাতে, মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশের সঙ্গে প্রায় তিন ঘন্টা ধরে দীর্ঘ বৈঠক করেছেন প্রশান্ত কিশোর। উল্লেখ্য, কালকের বৈঠকের ঠিক এক দিন আগেই এই পিকে-কে দেখা যায় সপা প্রধান মুলায়ম সিং যাদবের সঙ্গে বৈঠক করতে। আর এখানেই কালকের বৈঠকের তাত্পর্য। মনে করা হচ্ছে, বিহারের মতোই হয়ত উত্তরপ্রদেশেও 'মহা গাটবন্ধন' বা মহাজোট হতে চলেছে। যে জোটে সাবেক জনতা পরিবারের সমমনোভাবাপন্ন দলগুলির সঙ্গে অংশ নেবে কংগ্রেসও আর সেজন্যই অখিলেশের সঙ্গে এই সুদীর্ঘ বৈঠক। কারণ, সম্প্রতিক কালে, মুলায়মের 'যদু বংশে' কাকা শিবপাল বনাম ভাইপো অখিলেশের যে কাজিয়া লেগেছে তার প্রধান কারণ আসন্ন নির্বাচনে দলীয় টিকিট বন্টন। আর তাই পিকে হয়ত দীর্ঘ বৈঠকের মাধ্যমে আসন ও টিকিট বন্টনের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলিতে বর্তামান মুখ্যমন্ত্রীর মনোভাব বুঝে নিতে চাইছেন।

আরও পড়ুন- ওয়ার্ল্ড ট্যুরের আগে আমার গ্রামে আসুন, প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি ১০ বছরের কিশোরের

যদিও গতকালের বৈঠকের আলোচ্য নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলতে চাননি অখিলেশ। বরং বলেছেন, "জোটের বিষয়ে যা বলার বলবে দলের সভাপতি। আমি আমার যা বক্তব্য তা দলের অন্দরে জানাব"। 'উত্সাহী' সংবাদ মাধ্যম বার বার জোটের সম্ভবনার বিষয়ে জানতে চাইলে কিঞ্চিত বিরক্ত অখিলেশের উত্তর, "যদি সপা-কংগ্রেস জোট হয়, আপনারা (মিডিয়া) কি তা আটকাতে পারবেন?"

এখন দেখার, বিজেপিকে আটকাতে লালু-নীতিশ-কংগ্রেসের যে বিহার মডেল চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল সেই সূত্র উত্তরপ্রদেশের কঠিন নির্বাচনের ক্ষেত্রেও সফল হয় কিনা। তবে একথা ঠিক বিহারে যেমন শেষ মুহূর্তে সপা জোটে থাকেনি, তেমনও কিছু ঘটে কিনা ভারতের সবচেয়ে জনবহুল রাজ্যে সেটাও দেখার। আসল কথা রজনীতিকরা কোনও সম্ভবনাই ঝেড়ে ফেলছেন না, আর ঝাড়বেনই বা কি করে, দিনের শেষে রাজনীতি তো সম্ভবনার শিল্প।