রাফালে ইস্যুতে মতবিরোধ মহাজোটে, উল্টো সুর অখিলেশের

রাফালে ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্ট কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষেই রায় দিয়েছে। এই ইস্যুতে মোদী সরকারের নেওয়া সিদ্ধান্তগুলির উপরই সিলমোহর দিয়েছে শীর্ষ আদালত। তা নিয়েই কংগ্রেসের সঙ্গে মতবিরোধ শুরু হয়ে গেল সমাজবাদী পার্টির।

Updated By: Dec 15, 2018, 05:14 PM IST
রাফালে ইস্যুতে মতবিরোধ মহাজোটে, উল্টো সুর অখিলেশের

নিজস্ব প্রতিবেদন: পাঁচ রাজ্যে সাফল্যের রেশ এখনও কাটেনি। তার আগেই মতবিরোধ শুরু হয়ে গেল বিজেপি বিরোধী জোটে। আর এই ফাটল তৈরি হল রাফালে ইস্যু নিয়ে। সুপ্রিম কোর্ট এই ইস্যুতে যে রায় দিয়েছে, তা নিয়েই কংগ্রেসের সঙ্গে মতবিরোধ শুরু হয়ে গেল সমাজবাদী পার্টির।

রাফালে ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্ট কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষেই রায় দিয়েছে। এই ইস্যুতে মোদী সরকারের নেওয়া সিদ্ধান্তগুলির উপরই সিলমোহর দিয়েছে শীর্ষ আদালত। কিন্তু তা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছে কংগ্রেস। আদালতে সরকারের তরফে ভুল ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: বিরোধীদের দুর্বল মহাজোট মেনে নেবে না দেশ, দাবি অরুণ জেটলির

কিন্তু কংগ্রেসের বক্তব্যের সম্পূর্ণ উল্টো সুর শোনা গেল সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো অখিলেশ যাদবের গলায়। তিনি এই ইস্যুতে সম্পূর্ণ আস্থা রাখলেন সুপ্রিম কোর্টের উপর। তাঁর কথায়, "আমার মনে হয় সুপ্রিম কোর্টই সবচেয়ে উপরে।"

মঙ্গলবার থেকে সংসদে শীতকালীন অধিবেশন শুরু হয়েছে। বুধবার থেকে রাফালে ইস্যুতে অচল লোকসভা ও রাজ্যসভা। সংসদের উচ্চকক্ষে রাফালে নিয়ে মুলতবি প্রস্তাবের নোটিস দিয়েছে কংগ্রেস। অন্যদিকে রাফালের তদন্তে যৌথ সংসদীয় কমিটি গঠন করার দাবি জানিয়েছে কংগ্রেস। সেই দাবিকে সমর্থন করেছে অন্য বিরোধীরাও।

 

সুপ্রিম কোর্ট রাফালে নিয়ে রায় দেওয়ার পর আর যৌথ সংসদীয় কমিটির প্রয়োজন নেই বলেই মনে করছেন অখিলেশ যাদব। শনিবার সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো জানিয়েছেন, তাঁরা যখন যৌথ সংসদীয় কমিটি তৈরির দাবি জানিয়েছিলেন, তখন সুপ্রিম কোর্টের রায় আসেনি। কিন্তু এই বিষয়ে এখন শীর্ষ আদালত রায় দিয়ে দিয়েছে। তারা সব দিক খতিয়ে দেখেই এই রায় দিয়েছে।

আরও পড়ুন: মোদীর 'বফর্স' হল না রাফাল, লোকসভার আগে ব্যুমেরাং রাহুলের অস্ত্র 

সরাসরি না বললেও উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর কথায় স্পষ্ট সমাজবাদী পার্টি রাফালে ইস্যুতে যৌথ সংসদীয় কমিটি গঠনের দাবি থেকে সরে আসছে। কারণ, নিজের বক্তব্যের শেষ অংশে অখিলেশ জানিয়েছেন, এর পর কারও কোনও বক্তব্য থাকলে ফের আদালতের কাছে যাওয়া উচিত।

প্রসঙ্গত, রাহুল গান্ধী শুক্রবার জানিয়েছিলেন, ক্যাগ ও পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির কাছে রাফালে নিয়ে কোনও তথ্য ছিল না। এ নিয়ে ভুল তথ্য দেওয়া হয়েছে আদালতে। বর্তমানে সংসদে পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান কংগ্রেস সাংসদ মল্লিকার্জুন খারগে। তিনিও কংগ্রেস সভাপতির বক্তব্যকে সমর্থন করেছেন।

রাজনৈতিক মহলের ব্যাখ্যা, অখিলেশ কার্যত সেই প্রসঙ্গের কথা মনে করিয়ে দেওয়ার জন্যই এই ইস্যুতে আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। নাম না করে তিনি খোঁচা দিয়েছেন রাহুল গান্ধীকেই।

আরও পড়ুন: কোথা থেকে এসব ভুলভাল তথ্য জোগাড় করেছিলেন রাহুল, রাফাল নিয়ে জোর বিঁধলেন অমিত শাহ

মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থানে কংগ্রেস ম্যাজিক ফিগার ছুঁতে পারেনি। বসপা ও সপার সমর্থনেই সরকার গড়ছে তারা। ২০১৯-এর লোকসভা ভোটের আগে মহাগঠবন্ধনের পক্ষে এই চিত্র ইতিবাচক বলেই ধরা হচ্ছিল। কিন্তু তার আগেই এই মতবিরোধ মহাগঠবন্ধনের পক্ষে সুখকর নয় বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।