সংসদে কুমন্তব্য করায় ক্ষমা চাইলেন আজম খান, ওনার স্বভাবই খারাপ, কটাক্ষ রমাদেবীর

এ দিন সংসদে আজ়ম খান বলেন, “রমা দেবীকে আমি বোনের মতো দেখি। এ ভাবনা কোনও অবস্থাতে পরিবর্তন হতে পারে না। চেয়ারের উদ্দেশে এমন কোনও ভাবনা কখনও পোষণ করিনি

Updated By: Jul 29, 2019, 01:27 PM IST
সংসদে কুমন্তব্য করায় ক্ষমা চাইলেন আজম খান, ওনার স্বভাবই খারাপ, কটাক্ষ রমাদেবীর
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: অবশেষে সংসদে মহিলা অধ্যক্ষকে অশ্লীল মন্তব্য করার জন্য ক্ষমা চাইলেন সপা সাংসদ আজ়ম খান। অধিবেশন শুরুতেই আজ়ম খানের মন্তব্য নিয়ে হইহট্টগোল শুরু হয়। সরকার পক্ষ থেকে আজ়মের ক্ষমাভিক্ষার দাবি করেন। জানা যাচ্ছিল, আজ যদি আজ়ম খান ক্ষমা না চাইতেন, তা হলে তাঁর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হত। এই সিদ্ধান্তের জন্য সাংসদরের নিয়ে বিশেষ বৈঠকও করেন স্পিকার ওম বিড়লা।

এ দিন সংসদে আজ়ম খান বলেন, “রমা দেবীকে আমি বোনের মতো দেখি। এ ভাবনা কোনও অবস্থাতে পরিবর্তন হতে পারে না। চেয়ারের উদ্দেশে এমন কোনও ভাবনা কখনও পোষণ করিনি। যদি আমার মন্তব্যে চেয়ারের অসম্মান হয়ে থাকে, তা হলে ক্ষমা চাইছি।” এই পরিপ্রেক্ষিতে রমা দেবী বলেন, “ওনার আচরণ মোটেই ভাল নয়। সংসদের বাইরেও উনি মহিলাদের প্রতি অশ্লীল মন্তব্য করেছেন। তাঁর মন্তব্য দেশের নাগরিকের ভাবাবেগে আঘাত করেছে। উনি সেটা বুঝবেন না।” আজ়ম খানের সমর্থনে সপা সাংসদ অখিলেশকে প্রতিবাদ করতে দেখা যায়।

আরও পড়ুন- আজ কর্নাটকে শক্তিপরীক্ষা বিজেপির, হাসতে খেলতে জিতবেন দাবি মুখ্যমন্ত্রী ইয়েদুরাপ্পার

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার লোকসভায় তিন তালাক বিরোধী বিল পাশের সময় আলোচনা চলাকালীন অধ্যক্ষ পদে আসীন সাংসদ রমা দেবীকে অশ্লীল মন্তব্য করেন বলে অভিযোগ আজ়মের বিরুদ্ধে। রমা দেবীর উদ্দেশে তিনি বলেন, “আপনাকে আমার ভাল লাগে। ইচ্ছা হয়, আপনার চোখে চোখ রাখি।” তাঁর এই মন্তব্যের পরই হইচই শুরু হয়ে যায়। তাঁর এই মন্তব্যের প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ জানান বিজেপি সাংসদরা। যদিও আজ়ম খান নিজেকে সামলে নিয়ে বলেন, রমা দেবী আমার ছোটো বোনের মতো। ওনাকে এসব বলতে চাইনি। আজ়মের সমর্থনে সপা সাংসদ অখিলেশ যাদবের দাবি, তিনি অধ্যক্ষের পদকে কখনওই অসম্মান করেননি। বিজেপি সাংসদরা অসভ্য। অযথা জলঘোলা করছে।