কুকুর কাম ও কুকুর হত্যার অপরাধে হায়েদরাবাদে গ্রেফতার যুবক

কুকুর কাম। হ্যাঁ, কুকুরের সঙ্গে কামলীলা ও তার জঘণ্য পরিণতির ঘটনা ঘটল হায়েদরাবাদে। একটি গর্ভবতী কুকুরের সঙ্গে 'প্রাকৃতি বিরুদ্ধ' যৌন সঙ্গম ঘটানোর অপরাধে গ্রেফতার করা হয় এক যুবককে। মেলারদেবপল্লী থানার পুলিস অফিসার জানাচ্ছেন ধৃতের নাম আসলাম খান ওরফে সুভাষ সিং, বয়স বাইশ বছর। জানা যাচ্ছে, দিল্লি নিবাসী আসলাম খান হায়েদরাবাদে এসেছিল তার বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে।

Updated By: Oct 25, 2016, 10:30 AM IST
কুকুর কাম ও কুকুর হত্যার অপরাধে হায়েদরাবাদে গ্রেফতার যুবক

ওয়েব ডেস্ক: কুকুর কাম। হ্যাঁ, কুকুরের সঙ্গে কামলীলা ও তার জঘণ্য পরিণতির ঘটনা ঘটল হায়েদরাবাদে। একটি গর্ভবতী কুকুরের সঙ্গে 'প্রাকৃতি বিরুদ্ধ' যৌন সঙ্গম ঘটানোর অপরাধে গ্রেফতার করা হয় এক যুবককে। মেলারদেবপল্লী থানার পুলিস অফিসার জানাচ্ছেন ধৃতের নাম আসলাম খান ওরফে সুভাষ সিং, বয়স বাইশ বছর। জানা যাচ্ছে, দিল্লি নিবাসী আসলাম খান হায়েদরাবাদে এসেছিল তার বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে।

যে গর্ভবতী কুকুরটির সঙ্গে এই জঘণ্যতা ঘটান হয়েছে তার মালিক মহম্মদ জাহাঙ্গিরের বাস শাস্ত্রীপুরম এলাকায়। জাহাঙ্গির জানিয়েছেন যে, ঘটনার দিন সকাল আটটা নাগাদ তিনি হঠাত্ করেই তাঁর কুকুরের কণ্ঠে আর্তনাদ শুনতে পান। তখনই তিনি তাঁর ছেলেকে ব্যাপারটা কী হয়েছে সেটা দেখতে বলেন।

আরও পড়ুন- সারমেয়র স্বপ্ন মনিবময়!

জাহাঙ্গিরের ছেলে ঘটনাস্থলে গিয়েই দেখে যে, আসলাম খান তাদের কুকুরটির সঙ্গে 'প্রকৃতি বিরুদ্ধ' যৌনতায় লিপ্ত হয়েছে। দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে জাহাঙ্গিরের ছেলেকে উদ্ধৃত করে লেখা হয়েছে, "আসলাম আমাদের গর্ভবতী কুকুরটির শরীরে রক্ত পরিবহন আটকে দিয়ে তাকে মেরে ফেলে। এবং তারপর কাছেই একটা ঝোপের ধারে নিয়ে গিয়ে কুকুরের মৃতদেহের সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হয়। জাহাঙ্গির সেসময় বাড়ির বারান্দায় দাড়িয়ে গোটা ঘটনাটা চাক্ষুষ করে তাঁর ছেলেকে নির্দেশ দেয় পরিস্থিতির উপর সজাগ নজর রাখতে। এবং তত্ক্ষণাত্ বাবা ও ছেলে 'অপরাধী' আসলামকে হাতেনাতে ধরে ফেলে।"

আরও পড়ুন- দুঃস্বপ্ন দূর করতে ঘুমতে যাওয়ার আগে এই মন্ত্রগুলো জপ করুন

আসলাম খানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধীর ৪২৯ ও ৩৭৭ ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এছাড়াও ১১ ধারা অনুসারে প্রাণীর উপর নৃশংস অত্যাচারের অভিযোগও দায়বদ্ধ করা হয়েছে। কুকুরটির মৃতদেহটি ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।