মোট দশজন কোচ হওয়ার জন্য আবেদন করলেও, ইন্টারভিউ দেবেন সম্ভাবত ছ'জন

সোমবারই সেই দিন। সৌরভ,সচিন এবং লক্ষ্মণের কমিটি ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে বেঁছে নেবেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের নতুন কোচকে। বিরাট কোহলিদের কোচ হতে চেয়ে মোট দশজন আবেদন করেছেন। এই দশজন হলেন, রবি শাস্ত্রী, বীরেন্দ্র সেহবাগ, টম মুডি, রিচার্ড পাইবাস, ডোডা গনেশ, লালচাঁদ রাজপুত, লান্স ক্লুজনার, রাকেশ শর্মা (ওমান দলের কোচ), ফিল সিমন্ন এবং উপেন্দ্রনাথ ব্রহ্মচারী (ক্রিকেটের সঙ্গ জড়িয়ে থাকা কেউ নন, একজন ইঞ্জিনিয়ার শুধু)। যদিও এই দশজনকেই ইন্টারভিউয়ের জন্য ডাকা হচ্ছে না। ইন্টারভিউতে সৌরভদের সামনে বসবেন সম্ভাবত ছ'জন। এই ছ'জন হলেন, - রবি শাস্ত্রী, বীরেন্দ্র সেহবাগ, টম মুডি, ফিল সিমন্স, রিচার্ড পাইবাস এবং লালচাঁদ রাজপুত। এই কথা আর বলে দেওয়ার দরকার নেই যে, এই ছ'জন প্রার্থীর মধ্যে সবথেকে এগিয়ে রয়েছেন রবি শাস্ত্রীই। কারণ, টিম ডিরেক্টর হিসেবে তিনি এর আগে এই ভারতীয় দলের সঙ্গে কাজ করেছেন। এবং সফলও বটে।

Updated By: Jul 9, 2017, 06:18 PM IST
মোট দশজন কোচ হওয়ার জন্য আবেদন করলেও, ইন্টারভিউ দেবেন সম্ভাবত ছ'জন

ওয়েব ডেস্ক: সোমবারই সেই দিন। সৌরভ,সচিন এবং লক্ষ্মণের কমিটি ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে বেঁছে নেবেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের নতুন কোচকে। বিরাট কোহলিদের কোচ হতে চেয়ে মোট দশজন আবেদন করেছেন। এই দশজন হলেন, রবি শাস্ত্রী, বীরেন্দ্র সেহবাগ, টম মুডি, রিচার্ড পাইবাস, ডোডা গনেশ, লালচাঁদ রাজপুত, লান্স ক্লুজনার, রাকেশ শর্মা (ওমান দলের কোচ), ফিল সিমন্ন এবং উপেন্দ্রনাথ ব্রহ্মচারী (ক্রিকেটের সঙ্গ জড়িয়ে থাকা কেউ নন, একজন ইঞ্জিনিয়ার শুধু)। যদিও এই দশজনকেই ইন্টারভিউয়ের জন্য ডাকা হচ্ছে না। ইন্টারভিউতে সৌরভদের সামনে বসবেন সম্ভাবত ছ'জন। এই ছ'জন হলেন, - রবি শাস্ত্রী, বীরেন্দ্র সেহবাগ, টম মুডি, ফিল সিমন্স, রিচার্ড পাইবাস এবং লালচাঁদ রাজপুত। এই কথা আর বলে দেওয়ার দরকার নেই যে, এই ছ'জন প্রার্থীর মধ্যে সবথেকে এগিয়ে রয়েছেন রবি শাস্ত্রীই। কারণ, টিম ডিরেক্টর হিসেবে তিনি এর আগে এই ভারতীয় দলের সঙ্গে কাজ করেছেন। এবং সফলও বটে।

আরও পড়ুন রাহানেরা শুধু গেইল না ভেবে, আজ ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকেই দেখছেন

বীরেন্দ্র সেহবাগ ক্রিকেটার হিসেবে দুর্দান্ত। কিন্তু দুটো আইপিএলে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মেন্টরের দায়িত্ব নিয়ে বিরাট কিছু সফল নন। কোচ হিসেবে তাঁকে অনেক কিছু প্রমাণ করতে হবে এখনও।রিচার্ড পাইবাসের রয়েছে দীর্ঘদিনের কাজের অভিজ্ঞতা। টম মুডি কিন্তু বেশ খানিকটা এগিয়ে।২০১১ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে, তাঁর কোচিংয়েই ফাইনাল খেলে শ্রীলঙ্কা। আইপিএলেও তিনি কোচ হিসেবে চ্যাম্পিয়ন করেছেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে। লালচাঁদ রাজপুত কোচ হিসেবে ভারতকে ২০০৭ সালের টি২০ বিশ্বকাপ জিতিয়েছেন। আর ফিল সিমন্স আফগানিস্তান এবং আয়ারল্যান্ডের মতো ছোট দলগুলোকে নিয়ে সাফল্যের সঙ্গেই কাজ করেছেন। দক্ষিণ আফ্রিকার লান্স ক্লুজনারকে অবশ্য স্ট্যান্ডবাই হিসেবেই ভাবছেন সৌরভ, সচিন, লক্ষ্মনরা। শোনা যাচ্ছে, টম মুডি কোচ হলে, তিনি বোলিং কোচ হিসেবে আনতে পারেন আর এক অস্ট্রেলীয় ক্রেগ ম্যাকডারমটকে। আর রবি শাস্ত্রী ফের ভারতীয় দলের দায়িত্ব পেলে, বোলিং কোচ হিসেবে ভারতীয় দলে ফিরতে পারেন ভরত অরুণ। শেষ পর্যন্ত কে হবেন, ভারতীয় দলের নতুন কোচ, তা জানা যাবে আগামী কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই।

আরও পড়ুন  আজকের দিনের ক্রিকেটারদের দেখলে হাসি পায় কপিল দেবের