কালীপুজোর চাঁদা ১০ হাজার টাকা!

না দেওয়ায় আক্রান্ত গাড়িচালক।

Reported By: অর্ণবাংশু নিয়োগী | Updated By: Nov 7, 2020, 06:35 PM IST
কালীপুজোর চাঁদা ১০ হাজার টাকা!
নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন : অতিমারীর মাঝে চাঁদার জুলুম। না দেওয়ায় চলল বেধড়ক মারধর। করোনার মাঝে কালীপুজোর চাঁদার নাম করে জুলুমের অভিযোগ উঠল খাস কলকাতায়। অভিযোগ, পুজোর জন্য ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। সেই চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে ব্যাপক মারধর করা হয় বলেও অভিযোগ। 

ঘটনাস্থল হরিদেবপুরের আরসি ঠাকুরানি মল্লিকপুর। আক্রান্ত অজয় কুমার মিশ্র পেশায় গাড়িচালক। তাঁর অভিযোগ, গত পরশুদিন তিনি কাজ থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। পকেটে ছিল পুরো মাসের বেতন। সেইসময় তাঁর কাছে কালীপুজোর জন্য চাঁদা চাওয়া হয়। ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করা হয় তাঁর কাছে। তিনি তা দিতে অস্বীকার করে পুজোর জন্য আড়াইশো টাকা দেবেন বলেন। 

অভিযোগ, চাঁদা দেওয়া নিয়ে কথা কাটাকাটি হওয়ার মাঝখানেই পিছন থেকে ভারী বস্তু দিয়ে আঘাত করা হয় তাঁর মাথায়। মারধর করা হয় তাঁকে। তাঁর চোখে-মুখে সর্বত্রই আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। শরীরের একাধিক জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। অভিযোগকারীর দাবি, মারধরের চোটে তিনি সংজ্ঞা হারালে, তাঁর পকেট থেকে বেতনের সম্পূর্ণ টাকা ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে। 

এই ঘটনায় ৩ জনের নামে হরিদেবপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। তবে এখনও পর্যন্ত কাউকেই গ্রেফতার করেনি পুলিস। অজয় কুমার মিশ্র আরও জানিয়েছেন, গত ২ বছর হল তিনি এই এলাকায় নতুন বাড়ি করে এসেছেন। সেই জন্যও তাঁর কাছে মোটা টাকা দাবি করা হয়েছিল। তিনি তখন ১০ হাজার টাকা দেবেন বলেছিলেন। সেইসময় ৪ হাজার টাকা দিয়েছিলেন তিনি। পরে করোনা পরিস্থিতির জন্য আর বাকি টাকা দিতে পারেননি। তাই এবার একসঙ্গে ১০ হাজার টাকা চাঁদা দিতে জোর করা হয়।

আরও পড়ুন, বিজেপি-কংগ্রেসকে জোর ধাক্কা, একযোগে সহ সভাপতি-বিধায়ক যোগ দিলেন তৃণমূলে