পদত্যাগের পরও হঠাত্ বিধানসভায় 'হাজির' মন্ত্রী শোভন

 পরিবেশ দফতরের দায়িত্ব ৫ মাস আগেই হারিয়েছেন শোভন। বৈশাখী নিয়ে টানাপোড়েনের মধ্যেই গত জুনে শোভনের কাছ থেকে নিয়ে পরিবেশ দফতরের দায়িত্ব শুভেন্দু অধিকারীর হাতে তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রী। ৫ মাস পর শীতকালীন অধিবেশনে সেই বিল বিধানসভায় পেশ হলেও নথিতে রয়ে গেল শোভনেরই নাম। 

Updated By: Nov 22, 2018, 07:21 PM IST
পদত্যাগের পরও হঠাত্ বিধানসভায় 'হাজির' মন্ত্রী শোভন

নিজস্ব প্রতিবেদন: দফতর গিয়েছে ৫ মাস আগে। সেই মন্ত্রীর নামেই বিধানসভায় পাশ হল বিল। কাকতালীয় ভাবে সেই মন্ত্রী হলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। গতকালই যিনি পদত্যাগ করেছেন রাজ্য মন্ত্রিসভা থেকে। বিধানসভায় এহেন বেনজির ঘটনায় তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে আইনসভাকে অবহেলার অভিযোগ তুলছেন বিরোধীরা। 

বৃহস্পতিবার রাজ্য বিধানসভায় পাশ হয় যত্রতত্র ধূমপান রোধে একটি বিল। বিলটি পেশ করা হয় পরিবেশ দফতরের তরফে। মূলত ১৯০৫ সালের একটি আইনকে নতুন করে লাগু করার প্রস্তাব ছিল ওই বিলে। সেই বিলের নথিতে দেখা যায় মন্ত্রী হিসাবে নাম রয়েছে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের। যদিও পরিবেশ দফতরের দায়িত্ব ৫ মাস আগেই হারিয়েছেন শোভন। বৈশাখী নিয়ে টানাপোড়েনের মধ্যেই গত জুনে শোভনের কাছ থেকে নিয়ে পরিবেশ দফতরের দায়িত্ব শুভেন্দু অধিকারীর হাতে তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রী। ৫ মাস পর শীতকালীন অধিবেশনে সেই বিল বিধানসভায় পেশ হলেও নথিতে রয়ে গেল শোভনেরই নাম। 

বিধানসভায় এমন বেনজির কাণ্ডে হতবাক বিরোধীরা। বিধানসভায় কংগ্রেসের পরিষদীয় দলনেতা মনোজ চক্রবর্তী বলেন, 'পাঁচ মাস আগে বদল হয়ে যাওয়া মন্ত্রীর নামে বিল পেশ হচ্ছে। এতেই স্পষ্ট আইনসভাকে ঠিক কতটা গুরুত্ব দেয় তৃণমূল সরকার।' ঘটনায় ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন সিপিএমের পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তীও।