close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

একহাত দূর থেকে মাথা লক্ষ্য করে গুলি! নিমতায় তৃণমূল নেতা খুনে চাঞ্চল্যকর সিসিটিভি ফুটেজ

মদন মিত্রের দাবি, "যে নোংরা খেলায় বিজেপি নেমেছে, তার মাশুল বিজেপিকে খুব তাড়াতাড়ি দিতে হবে।" দিলীপ ঘোষের দাবি, তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের জেরেই খুন হয়েছেন নিমতার তৃণমূল নেতা।

Updated: Jun 5, 2019, 03:11 PM IST
একহাত দূর থেকে মাথা লক্ষ্য করে গুলি! নিমতায় তৃণমূল নেতা খুনে চাঞ্চল্যকর সিসিটিভি ফুটেজ
(বাঁদিক থেকে) বাইকে করে এল, চলন্ত বাইক থেকেই গুলি, বাইক ছুটিয়ে চম্পট, লুটিয়ে পড়েছেন নির্মল কুণ্ডু

নিজস্ব প্রতিবেদন : নিমতায় তৃণমূল নেতা খুনে সামনে এল সিসিটিভি ফুটেজ। সেই সিসিটিভি ফুটেজে পরিষ্কার ধরা পড়েছে দুষ্কৃতী হামলার ছবি। ফুটেজ থেকে স্পষ্ট, বাইকে করে আসে দুষ্কৃতীরা। তারপর গুলি করে চম্পট দেয়।

ছবিতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে, একটি বাইক করে দুই যুবক। এসে তৃণমূল নেতা নির্মল কুণ্ডুকে লক্ষ্য করে খুব কাছ থেকে গুলি চালায়। চলন্ত বাইক থেকেই মাথা লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতীদল। গুলি করেই বাইক ছুটিয়ে চম্পট দেয় আততায়ীরা। গুলির আঘাতে রাস্তাতেই লুটিয়ে পড়েন তৃণমূল নেতা নির্মল কুন্ডু। দেখুন ফুটেজটি-

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিমতার ঠাকুরতলায় খুন হন নির্মল কুণ্ডু। সন্ধেয় পাড়ার মুখে দাঁড়িয়েছিলেন উত্তর দমদম পুরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল সভাপতি নির্মল কুণ্ডু। ঠিক তখনই তাঁর উপর হামলা চালায় দুষ্কৃতীদল।  সঙ্গে সঙ্গেই তাঁকে বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে নির্মল কুণ্ডুকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিত্সকরা।

খুনের ঘটনায় তৃণমূল সরাসরি বিজেপির দিকেই অভিযোগ আঙুল তুলেছে। বিজেপির মদতপুষ্ট দুষ্কৃতীরাই নির্মল কুন্ডুকে খুন করেছে বলে দাবি করেছেন তৃণমূল নেতা সৌগত রায়। তৃণমূল নেতা মদন মিত্রের দাবি, "যে নোংরা খেলায় বিজেপি নেমেছে, তার মাশুল বিজেপিকে খুব তাড়াতাড়ি দিতে হবে।"

আরও পড়ুন, কালনায় চেনম্যানের তদন্তে সিআইডি, বৃহস্পতিবার ঘটনাস্থলে যাচ্ছে ৪ জনের দল

যদিও অভিযোগ উড়িয়ে দোষারোপের তির পাল্টা তৃণমূলের দিকেই ঘুরিয়ে দিয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। দিলীপ ঘোষের দাবি, তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের জেরেই খুন হয়েছেন নিমতার তৃণমূল নেতা। উল্লেখ্য, ৪ বছর আগে সিপিআইএম ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন নিহত তৃণমূল নেতা নির্মল কুণ্ডু। খুনের ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিস। এখনও পর্যন্ত দুজন বিজেপি কর্মীকে আটক করা হয়েছে।