এক গ্লাস দুধেই ভয়ঙ্কর পরিণতি উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর!

রাতভর পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়েছিল। সকালে স্নান করে হালকা জলখাবার খেয়ে পরীক্ষা দিতে যাচ্ছিল স্বাগতা বেরা। কিন্তু যাওয়ার আগেই মায়ের কথা শুনে এক গ্লাস দুধ খায় সে।

Updated By: Mar 29, 2018, 01:45 PM IST
এক গ্লাস দুধেই ভয়ঙ্কর পরিণতি উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর!

নিজস্ব প্রতিবেদন:  বাড়ির বড়রা বলেন, পরীক্ষা দিতে যাওয়ার আগে দুধ খেয়ে যাওয়া আর কপালে একটা দইয়ের ফোঁটা নাকি শুভ! সেটাই হয়তো বলেছিলেন পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথির পূর্ব কুমারপুর গ্রামের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী স্বাগতা বেরার বাড়ির সদস্যরাও। বৃহস্পতিবার উচ্চ মাধ্যমিকের ইংরাজি পরীক্ষা। এক গ্লাস দুধ খেয়েই পরীক্ষা দিতে গিয়েছিল স্বাগতা। কিন্তু এক গ্লাস দুধ খাওয়ার ফলে তার সঙ্গে ঘটল মারাত্মক ঘটনা।

আরও পড়ুন: লেবার রুমে প্রসব যন্ত্রণায় কাতর মহিলার সঙ্গে ঘৃণ্য কাজ চিকিত্সকের!

রাতভর পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়েছিল। সকালে স্নান করে হালকা জলখাবার খেয়ে পরীক্ষা দিতে যাচ্ছিল স্বাগতা বেরা। কিন্তু যাওয়ার আগেই মায়ের কথা শুনে এক গ্লাস দুধ খায় সে। কিছুক্ষণের মধ্যেই শুরু হয় বমি। বমি করতে করতে মুখ গিয়ে ফ্যানা বেরিয়ে যায় তার। সঙ্গে সঙ্গেই তাকে নিয়ে যাওয়া হয় কাঁথি হাসপাতালে।

আরও পড়ুন: ব্যবসায়ীর স্ত্রীর হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটই বাতলে দিল বাগুইআটির ডাকাতির সূত্র

প্রাথমিক চিকিত্সার পর কিছুটা সুস্থ হয়ে ওঠে স্বাগতা। তবে হলে বসে পরীক্ষা দেওয়ার অনুমতি দেন না চিকিত্সকরা। হাসপাতালের বেডে বসেই পরীক্ষা দিতে হয় তাকে।

কিন্তু হঠাত্ দুধ খেয়ে কেন অসুস্থ হয়ে পড়ল স্বাগতা?

আরও পড়ুন: পোলের ওপর থেকে ছিটকে পড়লেন ব্যক্তি! শান্তিনিকেতনে ভয়ঙ্কর ঘটনা

চিকিত্সকরা অনুমান করেছিলেন, দুধে বিষাক্ত কিছু পড়েছিল, তার থেকেই এই ঘটনা। পরে পরিবার সূত্রে জানা যায়, দুধের গামলাতে পড়েছিল টিকটিকে। তা খেয়াল না করেই তাড়াহুড়োতে গামলার ওপরের অংশ থেকে দুধ তুলেই স্বাগতা খেতে দিয়েছিলেন তার পরিবারের সদস্যরা। তার থেকেই এই ঘটনা।