জুন পর্যন্ত বিনা পয়সায় চাল, ব্লকে ব্লকে 'দুয়ারে দুয়ারে সরকার'-এর সূচনা মুখ্যমন্ত্রীর

"রাজ্যের স্কিমে যাঁরা চাকরি করেন, তাঁদের কারও চাকরি আমরা নষ্ট করিনি।  আমরা বাংলায় ৪০ শতাংশ বেকারি কমিয়ে দিয়েছি।"

Updated By: Nov 23, 2020, 07:08 PM IST
জুন পর্যন্ত বিনা পয়সায় চাল, ব্লকে ব্লকে 'দুয়ারে দুয়ারে সরকার'-এর সূচনা মুখ্যমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদন : বাঁকুড়ার খাতড়ায় প্রশাসনিক জনসভা থেকে নতুন কর্মসূচির ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নয়া এই প্রকল্পের নাম দেওয়া হয়েছে 'দুয়ারে দুয়ারে সরকার।'

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, নয়া এই প্রকল্পের আওতায় আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে শুরু হয়ে যাবে কাজ। চলবে আগামী ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত। এই প্রকল্পের আওতায় প্রতিদিন বেলা ১২১টা থেকে বেলা ৩টে পর্যন্ত রাজ্যের ব্লকে ব্লকে প্রশাসনের তরফে ক্যাম্প করা হবে। 'দুয়ারে দুয়ারে সরকার' প্রকল্পে মানুষ প্রশাসনের কাছে যে অভাব, অসুবিধার কথা তুলে ধরবে, তা সঙ্গে সঙ্গে সমাধান করতে হবে। মানুষ যা চাইবে, তা তত্ক্ষণাত্ মানুষকে দিতে হবে। যদি সেইসময় প্রশাসনের হাতে সেই সুযোগ না থাকে, তবে তালিকা তৈরি করতে হবে। জনপরিষেবা সংক্রান্ত প্রকল্পগুলির সুযোগ-সুবিধা আরও বেশি করে মানুষকে পাইয়ে দিতে হবে। 

এদিন খাতড়ার প্রশাসনিক সভা থেকে বেকারত্ব ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারকে একহাত নেন মুখ্যমন্ত্রী। তোপ দাগেন, কেন্দ্র বিভিন্ন প্রকল্পের নামে নিয়োগ করছে। তারপর যেই সেই প্রকল্প শেষ হয়ে যাচ্ছে, তখন ছেলেমেয়েরা কাজ হারাচ্ছে। বেকার হয়ে যাচ্ছে। কেন্দ্র 'মাছের তেলে মাছ ভাজছে' বলেও এদিন কটাক্ষ করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানান, "করোনা পরিস্থিতিতে অনেক রাজ্যে বেতন কমিয়ে দিয়েছে। কেন্দ্র এমপি ল্যাডের টাকা বন্ধ করে দিয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের ডিএ ফ্রিজ করে দেওয়া হয়েছে। এমনকি মাসে একদিন করে বেতনও কাটা হচ্ছে। কিন্তু এরাজ্যে কারও বেতন, পেনশন বন্ধ হয়নি। রাজ্যের স্কিমে যাঁরা চাকরি করেন, তাঁদের কারও চাকরি আমরা নষ্ট করিনি।  উপরন্তু রাজ্য সরকার চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা বাড়িয়েছে। জেনারেল প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বয়সের ঊর্ধ্বসীমা ৪০ বছর, ওবিসি ৪৩ বছর, তফশিলি জাতি-উপজাতির ক্ষেত্রে ৪৫ বছর করা হয়েছে। আমরা বাংলায় ৪০ শতাংশ বেকারত্ব কমিয়ে দিয়েছি।"

এছাড়া এদিন মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, 

- ১২০০ লোকের কাছে আজ পরিষেবা দেওয়া হল।

- আগামী জুন মাস অবধি বিনামূল্যে রেশন পাবেন। আমাদের সরকার থাকবে। আমরা আবার বাড়িয়ে দেব বিনামূল্যে রেশন। সরকার আমাদেরই থাকবে।

- আমরা আপনাদের জন্যে কাজ করব। ভোটের আগে অনেকে আসবে। ভোটের জন্যে ব্যাঙ্কে টাকা দেবে। মনে রাখবেন, ওটা আপনাদের হকের খাতা। ভোট আপনারা আমাদের দেবেন।

- কেন্দ্রর থেকে টাকার আমরা ভাগ পাই। দয়া করে দেয় না। কেন ১০০ দিনের কাজের টাকা তিন মাস পড়ে আসবে?  বিআরজিএস প্রকল্পের টাকা এখনও পাইনি আমরা।

- আজকের রাস্তা দেখুন। এখন এত ভালো ভালো রাস্তা হয়েছে। মানুষ মনে করে রাস্তায় শোওয়া যায়। পঞ্চায়েতগুলোকে বলব ভালো করে কাজ  করুন।

- মুকুটমণিপুর, খাতড়া কী ছিল? এখন দেখুন কী হয়েছে! স্টেডিয়াম, হাসপাতাল, সব করেছি।

- শিল্পের কাজ এখানে চলছে। আগামী দু'বছরের মধ্যে আরও মানুষের কাছে পানীয় জল পৌঁছে যাবে।

- হাতির হানায় মৃত্যু হলে পরিবারের একজনকে হোমগার্ডের চাকরি ও ৪ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিচ্ছে সরকার। 

- মাওবাদী হামলায় যাঁরা নিখোঁজ, ১০ বছরেও যাঁদের কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি, যাঁরা ফিরে আসেননি, তাঁদের পরিবাররাও পুলিসের কাছে দরখাস্ত করবেন।

- যারা শুধু পুরোহিতবৃত্তি করে সংসার চালান, তাঁদের 'পুরোহিত কল্যাণ' ভাতা হিসেবে বর্তমানে ১০০০ টাকা করে দেওয়া হচ্ছে। পরবর্তীতে এটাকে বাড়িয়ে ২০০০ টাকা করা হবে।

- 'মাটি সৃষ্টি' পরিকল্পনায় বাঁকুড়ার শুষ্ক জমিতে মাটি তৈরি করে বিভিন্ন কাজ করা হবে। বর্তমানে প্রায় ৮০০০ বিঘা জমি তৈরির কাজ চলছে। এখানে বহু ছেলেমেয়ের  কর্মসংস্থান হবে ভবিষ্যতে। 

- বিজেপি শুধু মামলা আর হামলা এটাই করতে পারে। পরবর্তী হবে গামলা। তাতে আবর্জনার মত পুরে ছুঁড়ে ফেলা হবে ওদের।

- ফাইভ স্টার হোটেল থেকে বাসমতি চালের ভাত নিয়ে এসে দলিতদের ঘরে বসে খায় ওরা। যদিও তোমার ঘরে বসে খাবো বলেছিলেন! যে তরকারি রান্না হল, সেই খাবার খেল না! মানুষ ওদের ভাঁওতাবাজি ধরে ফেলেছে।

- এই জিনিসপত্রের দাম বাড়ছে তার জন্যে কে দায়ী? আগে আলু, পটল, পেঁয়াজ রাজ্যের এক্তিয়ারে ছিল। দিল্লির সরকার আলুর সরকার। ওরা আপনাদের খেতে দিচ্ছে না। সব আলু নিয়ে পালিয়ে গিয়েছে। 

- চাষিদের, দলিতদের, আদিবাসীদের, সংখ্যালঘুদের সব কেড়ে নেবে। আর ক্ষমতায় এসে বলবে এনআরসি চাই। বাংলা থেকে বার করে দেবে।

- ইঞ্জেকশন দেওয়ার নামে নাটক করছে। ইঞ্জেকশন আসতে আসতে ৮ মাস লেগে যাবে। ইঞ্জেকশন আমরাও দিতে পারি। শুধু বলো, কার থেকে নিতে হবে?

-  একটা মূর্তিতে মালা দিল বিরসা মুন্ডা বলে। বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙবে। আবার এসে মালা দিয়ে মিথ্যা বলবে। এটা হতে পারে না। আগামী দিনে বিরসা মুন্ডার জন্মদিনেও ছুটি থাকবে।

- কাজ করতে গেলে কিছু খারাপ লোক থাকে। একজনকে দেখে গোটা কাজ দেখলে চলে না। কাজ করতে গেলে ১০ জনের মধ্যে ২ জন খারাপ হতে পারে। ১ শতাংশের জন্যে বাকিদের খারাপ ভাববেন না। বিজেপি, সিপিআইএম থেকে আসে। আমি অন্যায় সহ্য করি না। অভিযোগ আসলেই ব্যবস্থা নিতে বলি। 

আরও পড়ুন, বুকে লাথি, মাটিতে ফেলে মার! মধ্যরাতে পেট্রোল পাম্পে বাইক বাহিনীর তাণ্ডব, দেখুন CCTV ফুটেজ