প্রাক্তন ছাত্র কী করতে স্কুলে গেল? ইসলামপুরের ঘটনায় প্রশ্ন শিক্ষামন্ত্রীর

বৃহস্পতিবার ছাত্র বিক্ষোভে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে ইসলামপুরের দাড়িভিট হাইস্কুল। পুলিসের গুলিতে প্রাণ হারালেন প্রাক্তন ছাত্র। 

Updated By: Sep 20, 2018, 11:57 PM IST
প্রাক্তন ছাত্র কী করতে স্কুলে গেল? ইসলামপুরের ঘটনায় প্রশ্ন শিক্ষামন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদন: ইসলামপুরে স্কুলছাত্রের উপরে গুলিচালনার ঘটনায় আরএসএস মৃত্যুর রাজনীতি করছে বলে অভিযোগ করলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। একইসঙ্গে প্রশ্ন তুললেন মৃত প্রাক্তন ছাত্র কেন স্কুলে গিয়েছিল? ঘটনার তদন্ত করা হবে বলে জানালেন পার্থবাবু। 

বৃহস্পতিবার ছাত্র বিক্ষোভে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে ইসলামপুরের দাড়িভিট হাইস্কুল। স্কুলে শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে ঘটনার সূত্রপাত। জানা গিয়েছে, ওই স্কুলে উর্দু শিক্ষক নিয়োগের প্রতিবাদ করেছিলেন ছাত্ররা। শিক্ষামন্ত্রীর প্রতিক্রিয়া, ''শিক্ষা দফতরকে অন্ধকারে রেখে উর্দু শিক্ষক নিয়োগ করা হয়েছিল। ডিআই রবীন্দ্র মণ্ডলকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। আপাতত দায়িত্ব সামলাবেন ডিআই প্রাইমারী''। 

প্রধান শিক্ষক অভিজিত্ কুণ্ডুর ভূমিকাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তাঁর কথায়,''কেন উর্দু শিক্ষক নিয়োগ করা হল? স্কুলে গুলি চলেছে বলে কোনও খবর নেই। কিন্তু মৃত স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র, সে কী করতে গিয়েছিল, তা খতিয়ে দেখছে। বিষয়টি নিয়ে জলঘোলা করছে সিপিএম-বিজেপি। মৃত্যুর রাজনীতি করছে আরএসএস''।.

এদিন বিক্ষোভে পুলিসকে লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি শুরু হয় বলে অভিযোগ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোঁড়ে পুলিস। অভিযোগ, আচমকা লাঠিচার্জ করতে শুরু করে পুলিস। তারপরই গুলি ছোঁড়ে। এমনকি বোমাও ছোঁড়ে পুলিস। জানা গেছে, স্কুলে শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে ছাত্র বিক্ষোভের সূত্রপাত। দাড়িভিট হাইস্কুলে উর্দু শিক্ষক নিয়োগ বন্ধের দাবিতে আন্দোলনে নামে ছাত্ররা। এদিন সেই শিক্ষককে স্কুলে দেখেই বিক্ষোভে ফেটে পড়ে ছাত্রছাত্রীরা। অভিযোগ, ছাত্রীদের গায়েও হাত দেয় পুলিস। শ্লীলতাহানি করারও চেষ্টা করে পুলিসকর্মীরা।

আরও পড়ুন- মধ্যবিত্তের ক্ষতে মলম দিতে একাধিক সঞ্চয় প্রকল্পে সুদের হার বাড়াল মোদী সরকার