বাড়িতেই রমরমিয়ে চলছিল দেহব্যবসা, হাতেনাতে পাকড়াও স্বামী-স্ত্রী

গোপনসূত্রে খবর পেয়ে  ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুন্ডিবাড়ি থানার পুলিস। সেখান থেকে বাড়ির মালিক ও দুই মহিলাকে গ্রেফতার করে পুলিস। ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়। 

Updated By: Jan 27, 2020, 02:32 PM IST
বাড়িতেই রমরমিয়ে চলছিল দেহব্যবসা, হাতেনাতে পাকড়াও স্বামী-স্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাড়ির মধ্যে দেহ ব্যবসা চালানোর অভিযোগ উঠল এক  স্বামী-স্ত্রীর বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহার ২নং ব্লকের মহিষবাথান সংলগ্ন ডুমুর পাড়া এলাকায়। গোপনসূত্রে খবর পেয়ে 
ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুন্ডিবাড়ি থানার পুলিস। সেখান থেকে বাড়ির মালিক ও দুই মহিলাকে গ্রেফতার করে পুলিস। ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়। 

আরও পড়ুন: তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ হাসনাবাদে, বাড়ি ফিরেই আত্মহত্যা অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীর

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে এই বাড়ির মালিক দীপু চন্দ্র বাড়ির মধ্যে বাইরে থেকে মহিলা এনে দেহ ব্যবসার কাজ চালাতো। তবে কোনও প্রমাণ না থাকায় তাঁকে ধরা যেত না। গতকাল রাতে এক মহিলার কান্নার আওয়াজ শুনে পাশের বাড়ির এক মহিলা এসে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এরপরই সামনে আসে ঘটনা উঠে আসে। 

আরও পড়ুন: করোনা থাবা কলকাতায়! বেলেঘাটা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এক চিনা নাগরিককে

জানা গিয়েছে, অরুণাচল থেকে দুই মহিলাকে কাপড়ের দোকানে কাজ দেওয়ার নাম করে এখানে এনে দেহ ব্যবসার কাজে নিযুক্ত করা হয়। তাদেরই একজন এই কাজ করতে রাজি না হওয়ায় তাকে হাত পা বেঁধে মারধর করা হয়। ঘটনা জানাজানি হতেই আজ সকালে ওই বাড়ির উপরে চড়াও হয়  স্থানীয় বাসিন্দারা। পরে পুন্ডিবাড়ি থানার পুলিস এসে বাড়ির মালিক-সহ দুই মহিলাকে গ্রেফতার করেছে।