লাগাতার কুপ্রস্তাব, রাজি না হওয়ায় গৃহবধূর মাথা ফাটাল প্রতিবেশী

ওই গৃহবধূ গোচরন ষ্টেশন চত্বর থেকে ভ্যানে যখন উঠছিলেন,  তখনই হঠাত্ সঞ্জয় তাঁর ওপর হামলা করে বলে অভিযোগ

Updated: Jul 11, 2018, 12:12 PM IST
লাগাতার কুপ্রস্তাব, রাজি না হওয়ায় গৃহবধূর মাথা ফাটাল প্রতিবেশী

নিজস্ব প্রতিবেদন:   যাতায়াতের পথে প্রায়ই দেখা হত। সেই থেকেই ভালোলাগা। পছন্দের মহিলা যে বিবাহিত, তা বুঝতে পারেননি প্রথমে। যখন বুঝলেন, তখন ভালোলাগা বদলে গেল কুপ্রস্তাবে। রাস্তঘাটে, স্টেশনে, কাজ থেকে বাড়ি যাতায়াতের পথে যে কোনও জায়গায় যে কোনও সময়ে গৃহবধূকে লাগাতার কুপ্রস্তাব যুবকের। আর কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে জয়নগরের বামনগাছির অরুননগর গ্রামে।

অরুননগর গ্রামের বাসীন্দা পিন্টু হালদার পেশায় দিনমজুর। তাঁর স্ত্রী কলকাতায় পরিচারিকার কাজ করেন। কলকাতায় কাজের জন্য  গ্রাম থেকে গোচরণ রেল ষ্টেশন পর্যন্ত প্রতিদিন ভ্যানে যাতায়াত করেন তিনি। অভিযোগ,  এলাকারই যুবক সঞ্জয় সাঁফুই প্রায় দিন তাঁর রাস্তা আটকে কুপ্রস্তাব দিত। মহিলার স্বামীর সঙ্গেও সঞ্জয়ের একাধিকবার গণ্ডগোল হয়েছে।

আরও পড়ুন: নৌকার ভিতরে উঁকি দিতেই পুলিসের শরীর দিয়ে বয়ে গেল হিমস্রোত!

মঙ্গলবার ওই গৃহবধূ গোচরন ষ্টেশন চত্বর থেকে ভ্যানে যখন উঠছিলেন,  তখনই হঠাত্ সঞ্জয় তাঁর ওপর হামলা করে বলে অভিযোগ। গৃহবধূকে জোর করে অন্যত্র নিয়ে যেতে চায় অভিযুক্ত। অন্ধকার রাস্তায় তাঁর শ্লীলতাহানী করা হয় বলেও অভিযোগ। বাধা দিতে গেলে সঞ্জয়ের হাতে আক্রান্ত হন ওই গৃহবধূ। গৃহবধূর চিত্কারে সঞ্জয় সেই মুহূর্তে পালিয়ে গেলেও, আবার বাড়ির সামনেই সঞ্জয়ের হাতে আক্রান্ত হন ওই গৃহবধূ। অভিযোগ ইট দিয়ে তাঁর মাথায় আঘাত করা হয়।

পরে স্থানীয়রাই আক্রান্ত গৃহবধূকে রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয় গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান। জয়নগর থানায় অভিযুক্ত যুবক সঞ্জয় ও তার মা জবা সাঁফুইয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।