'কিছু পদের আর প্রয়োজন নেই', আমাজনে শুরু গণ-ছাঁটাই

অ্যামাজন ছাড়াও, মার্কিন প্রযুক্তি জায়ান্ট মেটা এবং ট্যুইটারও বড় ধরনের কর্মী ছাঁটাইয়ের কথা ঘোষণা করেছে। সংস্থার কর্পোরেট কর্মীর প্রায় তিন শতাংশ ছাঁটাইয়ের আওতায় আসব এবং ছাঁটাইয়ের মোট সংখ্যা পরিবর্তন হতে পারে বলেও জানা গিয়েছে।

Updated By: Nov 17, 2022, 11:25 AM IST
'কিছু পদের আর প্রয়োজন নেই', আমাজনে শুরু গণ-ছাঁটাই

জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: ট্যুইটার এবং মেটার পরে এবার চাকরি ছাঁটাই আমাজনে। এই সপ্তাহেই কোম্পানির বিভিন্ন ক্ষেত্রে কর্মী ছাঁটাই প্রক্রিয়া শুরু করেছে তাঁরা। বুধবার মার্কিন মিডিয়া রিপোর্টে এই খবর বলা হয়েছে। হার্ডওয়্যার প্রধান ডেভ লিম্প বুধবার কর্মীদের উদ্দেশ্যে একটি মেমোতে লিখেছেন, ‘একটি গভীর পর্যালোচনার পরে, আমরা সম্প্রতি কিছু দল এবং প্রোগ্রামকে কন্সলিডেট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এই সিদ্ধান্তগুলির একটি ফলাফল হল যে কিছু কাজের আর প্রয়োজন হবে না’।

তিনি যোগ করেন, ‘এই খবরটি দিতে আমার কষ্ট হচ্ছে কারণ আমরা জানি যে আমরা ডিভাইস এবং পরিষেবা সংস্থা থেকে প্রতিভাবান অ্যামাজনিয়ানদের হারাবো’। লিম্প বলেছেন যে কোম্পানি সেইসব কর্মীদের জানিয়েছে যারা এই খবরে প্রভাবিত হবেন। সংস্থা তাদেরকে নতুন কাজ খুঁজে পেতে সহায়তা করবে। পাশাপাশি এই সহায়তা প্রদানের জন্য প্রতিটি ব্যক্তির সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ চালিয়ে যাবে তাঁরা।

নিউইয়র্ক টাইমস এই সপ্তাহে রিপোর্ট করেছে যে আমাজন তাদের কর্পোরেট এবং প্রযুক্তি ক্ষেত্রে প্রায় ১০,০০০ কর্মী ছাঁটাই করার পরিকল্পনা করছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কোম্পানির ইতিহাসে এটাই সবচেয়ে বড় কর্মী ছাঁটাই প্রক্রিয়া।

জানা গিয়েছে সংস্থার কর্পোরেট কর্মীর প্রায় তিন শতাংশ ছাঁটাইয়ের আওতায় আসব এবং ছাঁটাইয়ের মোট সংখ্যা পরিবর্তন হতে পারে বলেও জানা গিয়েছে।

অ্যামাজনের মুখপাত্র কেলি নান্টেল বলেছেন বার্ষিক অপারেটিং পরিকল্পনা পর্যালোচনা প্রক্রিয়ার অংশ হিসাবে, কিছু নির্দিষ্ট কাজের আর কোনও প্রয়োজন নেই।

আরও পড়ুন: এলন মাস্কের নয়া নিয়ম কার্যকর হবে ভারতেও! টুইটারে ব্লু টুক পেতে কত খরচ করতে হবে?

বুধবার একটি প্রতিবেদনে ন্যান্টেলকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, ‘আমাদের বার্ষিক অপারেটিং পরিকল্পনা পর্যালোচনা প্রক্রিয়ার অংশ হিসাবে, আমরা সর্বদা আমাদের প্রতিটি ব্যবসার দিকে নজর রাখি এবং আমরা খুঁজে বের করি যে আমাদের কী পরিবর্তন করা উচিত। বর্তমান ম্যাক্রো-ইকোনমিক পরিবেশের পরিপ্রেক্ষিতে কিছু দল কন্সলিডেট করছে, যেখানে কিছু নির্দিষ্ট কাজের আর প্রয়োজন নেই। আমরা এই সিদ্ধান্তগুলিকে হালকাভাবে নিই না, এবং আমরা প্রভাবিত হতে পারে এমন প্রতিটি কর্মচারীকে সাহায্য করার জন্য কাজ করছি’।

এই কর্মী ছাঁটাই প্রধানত সংস্থার ডিভাইস সংগঠন, রিটেল বিভাগ এবং মানব সম্পদ বিভাগকে প্রভাবিত করবে। জানা গিয়েছে যে ম্যানেজাররা কর্মীদের জানাতে শুরু করেছেন যে কোম্পানির অভ্যন্তরে অন্য ভূমিকা খুঁজে নিতে অথবা সংস্থা থেকে সরে যেতে তাদের হাতে আরও দুই মাস সময় আছে।

অ্যামাজন ছাড়াও, মার্কিন প্রযুক্তি জায়ান্ট মেটা এবং ট্যুইটারও বড় ধরনের কর্মী ছাঁটাইয়ের কথা ঘোষণা করেছে।

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)